মালয়েশিয়ায় আতঙ্কে বাংলাদেশি শ্রমিকরা

আগের সংবাদ

মঞ্চেই সরব তানভীন সুইটি

পরের সংবাদ

পেশা ছাড়ছেন মালাকাররা

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯ , ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯, ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ

Avatar

মালাকার পরিবারগুলোর দুর্দিন চলছে। অর্থ সংকট আর উপকরণ তৈরির কাঁচামালের দাম বেড়ে যাওয়ায় জীবন-জীবিকার তাগিদে পৈতৃক পেশা ছেড়ে দিয়ে ঝুঁকছেন অন্য পেশায়। হিন্দু সম্প্রদায়ের বিয়েসহ বিভিন্ন পূজা-অর্চনার অনুষঙ্গ শোলার উপকরণ তৈরির কাজ করে থাকেন মালাকাররা।

এক সময় তাদের কদর ছিল। তারা বিয়ের মুকুট, প্রতিমার অলঙ্কার, মনসা ঠাকুরসহ বিভিন্ন পূজার সরঞ্জামাদি ও ধর্মীয় উপকরণ তৈরি করে নিজেকে গর্বিত মনে করতেন। সংসারও চলত ভালোভাবে। এক সময় পরিত্যক্ত নিচু জমিতে শোলা চাষ হতো। কিন্তু বর্তমানে প্রতি পণ ৮০টি শোলা ৫০০-৬০০ টাকায় কিনতে হয়, যা দিয়ে এসব উপকরণ তৈরি করে মজুরি খরচও উঠছে না তাদের। উলিপুর ও চিলমারী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বেশ কিছু মালাকার পরিবার থাকলেও এখন হাতেগোনা কয়েকটি পরিবার এ কাজের সঙ্গে জড়িত। আর্থিক সংকটের পাশাপাশি উপকরণের অভাবে অনেকেই এ পেশা ছেড়ে দিচ্ছেন।

জেলার উলিপুর হাটে গিয়ে দেখা যায়, বিভিন্ন উপকরণের পসরা সাজিয়ে শোলা দিয়ে তৈরি করছেন হিন্দু সম্প্রদায়ের বিয়েসহ পূজা-অর্চনার জিনিষপত্র। এ সময় নারায়ণচন্দ্র মালাকার বলেন, পারিবারিক পেশা, ছাড়তেও পারি না, অন্য কামও পাই না। এগল্যা বিক্রি করি আর সংসার চলে না।