মাছরাঙা টিভিতে ম্যাজিক বাউলিয়ানার তৃতীয় আসর শুরু

আগের সংবাদ

খালেদা জিয়ার মুক্তি রাজপথেই : বিএনপি

পরের সংবাদ

বহুমুখী উৎপাদনের মাধ্যমে আমরা বিদ্যুৎ দিচ্ছি : শেখ হাসিনা

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯ , ১:৫০ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯, ২:০২ অপরাহ্ণ

Avatar

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন,বহুমুখী উৎপাদনের মাধ্যমে আমরা বিদ্যুৎ উৎপাদন করে যাচ্ছি। এপর্যন্ত ২২ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সক্ষম হয়েছি। বিদ্যুৎ উৎপাদন আর সঞ্চালন লাইন উন্নত মানের করছি। যেসব এলাকায় গ্রিট লাইন নাই সেখানে সোলার প্যানেল করে দিচ্ছি। সারাদেশের শতভাগ বিদ্যুৎ উৎপাদনের যা যা করা আমরা করে যাচ্ছি।
আজ বুধবার দুপুরে গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র, আটটি ৩৩/১১ কেজি জিআইএস উপকেন্দ্র এবং ১০ টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব নজিবুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, শতভাগ বিদ্যুৎ নিশ্চিতে আমরা নিরলসভাবে কাজ করছি। প্রতিবেশী দেশ ভারত, মিয়ানমার, নেপাল ও ভুটান থেকে বিদ্যুৎ আনছি। এজন্য আমরা তাদের সঙ্গে কথা বলছি। শুধু বিদ্যুৎ উৎপাদন নয়, সাথে সাথে সঞ্চালন বৃদ্ধি করাও আমাদের টার্গেট। সে জন্য যা যা করা দরকার আমরা তা করছি।
ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চারটি বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র উদ্বোধন করেন। এগুলো হলো রাঙ্গামাটির কাপ্তাইয়ে ৭.৪ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ, সিরাজগঞ্জের বাঘাবাড়ি তে ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ, জামালপুরে ১১৫ মেগাওয়াট ও বগুড়ায় ১১৩ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন। উদ্বোধন করেন আটটি কেভি জিআইএস উপকেন্দ্রের মধ্যে রাজধানীর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, বনশ্রী, লক্ষীনারায়ন, কমলাপুর রেলওয়ে কলোনি।
এছাড়া ১০ টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন করেন। এসব উপজেলা হল নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ, রাজশাহীর পবা, চাঁদপুরের মতলব, নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ, জয়পুরহাট সদর, পাঁচবিবি ও, আক্কেলপুর, মুন্সিগঞ্জ জেলার নারায়ণগঞ্জ, ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর এবং দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট। এরমধ্যে রাঙ্গামাটি, নারায়ণগঞ্জ, দিনাজপুর, জয়পুরহাট, ঠাকুরগাঁও ও নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে স্থানীয় উপকারভোগীদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন,একটা কথা মনে রাখবেন বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে যে টাকা খরচ হয়, গ্রাহকদের কাছ থেকে কিন্তু আমরা সেই টাকা নেই না। বিদ্যুৎ উৎপাদনে আমরা ভর্তুকি দিচ্ছি। কাজেই বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয় সেটি খেয়াল রাখবেন। দয়াকরে আপনারা প্রত্যেকেই বিদ্যুৎ ব্যবহারে মিতব্যায়ী হবেন। যদিও বিদ্যুতে এত ভর্তুকি দেওয়া ঠিক না। তারপরও জনগণের জন্য আমরা সেটা দিচ্ছি।