সাবের হোসেন চৌধুরীর জন্মদিন উদযাপন

আগের সংবাদ

প্রতারণার দায়ে কারাগারে থাই নাগরিক

পরের সংবাদ

‘ডেঙ্গুতে একজন মানুষের মৃত্যুও কাম্য নয়’

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯ , ৭:৩২ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯, ১:২৫ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক

বিশ্বের অনান্য ডেঙ্গু আক্রান্ত দেশের তুলনায় বাংলাদেশে এ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর ঘটনা কম। তবে ডেঙ্গুতে একজন মানুষের মৃত্যুও কাম্য নয় বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, থাইল্যান্ড ও মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশের ডেঙ্গুতে মৃতের তুলনায় বাংলাদেশে এ সংখ্যা অনেক কম। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, ডেঙ্গুতে মোট আক্রান্তদের মধ্যে এক শতাংশের নিচে মৃত্যুবরণ করলে তা সহনীয় বলে ধরা হয়। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশে মৃত্যু হার দশমিক শূণ্য শূণ্য ২ শতাংশ (.০০২)। তবে ডেঙ্গুতে একজন মানুষের মৃত্যুও আমাদের কাম্য নয়।

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ‘নলেজ শেয়ারিং অন ডেঙ্গু সার্ভিলেন্স ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন হেলথ রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি তৌফিক মারুফ ও সাধারণ সম্পাদক নিখিল মানখিন প্রমুখ। আইইডিসিআর মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠান যৌথভাবে আয়োজন করে আইইডিসিআর ও বাংলাদেশ হেলথ রিপোর্টার্স ফোরাম।

অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, জলবায়ুর পরিবর্তনসহ বিভিন্ন কারণে এ বছর শুধু বাংলাদেশেই নয়, বিশ্বের ১২৭টি দেশে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। কোনো দেশই আগে থেকে বুঝতে পারেনি ২০১৯ সালে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব এতটা ব্যাপক হবে। এ বছর ডেঙ্গুর মৌসুম শেষ হয়ে আসছে। আমাদের লক্ষ্য হবে আগামী বছর। এ বছর আমাদের যথেষ্ট অভিজ্ঞতা অর্জন করেছি। আগামী বছরও ডেঙ্গু হবে। আক্রান্তের সংখ্যা কমানোর পাশাপাশি মৃত্যুর ঘটনাও যাতে আমরা ঠেকাতে পারি সেই চেষ্টাই আমাদের করতে হবে। সে জন্য সারা বছরব্যাপী আমাদের মশা নিধন কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে। তবে পৌরসভা ও সিটি কর্পোরেশন পর্যন্ত এ কার্যক্রম চালালে হবে না। ইউনিয়ন পর্যন্ত মশা নিধন কার্যক্রম চালাতে হবে।

সেবি/আর.এইচ