রবিঠাকুরের নৃত্যালেখ্য বর্ষামঙ্গল

আগের সংবাদ

মাথাব্যথা ‘গ্যাং কালচার’

পরের সংবাদ

ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯ , ২:৫৩ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯, ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ

Avatar

ছাত্রলীগের শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের ওপর চরম ক্ষুব্ধ হয়ে কমিটি ভেঙে দেয়ার কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্প্রতি বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে সংগঠনের কার্যালয়ে বসে মাদক সেবন করার অভিযোগ পেয়েছেন ছাত্রলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে। পরে ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতাকে দলীয় কার্যালয়ে যেতে নিষেধ করেছেন। গতকাল শনিবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের যৌথ সভায় এসব ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতার দেয়া তথ্যমতে, প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগের বিভিন্ন নেতাদের কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ হয়ে কমিটি ভেঙে দেয়ার কথা বলেছেন। এ বিষয়ে জোরালো আলোচনাও হয়েছে। এমনকি ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে তাদের দেখা দেননি। সিনিয়র নেতারা শেষ অবধি তাদের সেখান থেকে চলে যেতে বলেন।

সূত্রমতে, আগামী ৯ ও ১০ সেপ্টেম্বর পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁও জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন এবং রংপুর বিভাগের অন্যান্য জেলায় সাংগঠনিক সফরে যাওয়ার কথা ছিল ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের। এ বিষয়ে তারা গণভবনে কথা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে গিয়েছিলেন। তবে প্রধানমন্ত্রী সাক্ষাৎ না দেয়ায় কেন্দ্রীয় নেতারা তাদের দুজনকে গণভবন থেকে চলে যেতে বলেন। এরপর গণভবন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দুই নেতাকে সামনে পেয়ে সবার সামনেই ‘বকাঝকা’ করেন। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘চলে যাও এখান থেকে।’

বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা জানিয়েছেন, যৌথ সভা শেষে প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগের সাবেক দুই নেতা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আব্দুর রহমানের সঙ্গে ছাত্রলীগ প্রসঙ্গে প্রায় ১০ মিনিট কথা বলেন।