ওয়ানডের পর টি-টোয়েন্টিতেও মালিঙ্গার হ্যাটট্রিকের রেকর্ড

আগের সংবাদ

গীতিময় দিন চিরদিন...

পরের সংবাদ

মহিলা পার্টির ঝাড়– মিছিল

রংপুরের জাতীয় পার্টিতে রওশন মাইনাস

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৯ , ১:০০ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৯, ১:০০ অপরাহ্ণ

Avatar

জাতীয় পার্টিতে চেয়ারম্যান পদ নিয়ে সৃষ্ট দ্ব›দ্ব ও কোন্দলে রওশন এরশাদের ভ‚মিকায় ফুঁসে উঠেছে রংপুর জাতীয় পার্টি। জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টিসহ এর সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা গোলাম মোহাম্মদ কাদেরের পক্ষে একাট্টা থাকার ঘোষণা দিয়েছেন। সেই সঙ্গে রওশন এরশাদের ভ‚মিকা নিয়ে নানা প্রশ্ন তুলেছেন। তারা রওশন এরশাদকে মাইনাস করে জি এম কাদেরকে পার্টির চেয়ারম্যান মেনে দলীয় কার্যক্রমে যুক্ত রয়েছেন। অনেকে রওশন এরশাদের বিরুদ্ধে সরাসরি অবস্থান নিয়ে কথা বলছেন। এমনকি গতকাল শুক্রবার বিকেলে স্বঘোষিত চেয়ারম্যান রওশন এরশাদকে প্রত্যাখ্যান করে তার বিরুদ্ধে ঝাড়– মিছিল করেছেন দলের মহিলা পার্টির নেতাকর্মীরা।

রংপুর জাপার জি এম কাদেরের পক্ষের নেতাদের ভাষ্য, তারা রওশন এরশাদকে দলের চেয়ারম্যান মানেন না। যারা রওশনকে দলের চেয়ারম্যান ঘোষণা দিয়েছেন, তারা দলের ‘ভুঁইফোঁড়’ নেতা। জি এম কাদের ছাড়া কাউকে দলের চেয়ারম্যান মানেন না জানিয়ে রংপুর জাপার নেতারা রওশনপন্থিদের প্রতিহত করারও ঘোষণা দিয়েছেন।

গত এপ্রিলে অসুস্থ থাকা অবস্থায় এরশাদ তার ভাই জি এম কাদেরকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করেন। গত ১৪ জুলাই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ। তার মৃত্যুর ৪ দিন পর ১৮ জুলাই এক সংবাদ সম্মেলনে জি এম কাদেরকে জাপার চেয়ারম্যান হিসেবে ঘোষণা দেন দলের মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা। এরপর ২৩ জুলাই জি এম কাদেরকে চেয়ারম্যান অস্বীকার করে বিবৃতি দেন রওশন এরশাদসহ দলের ৭ জন সংসদ সদস্য ও ২ জন প্রেসিডিয়াম সদস্য।

এ নিয়ে জেলা জাপার নেতারা বলছেন, জীবিত অবস্থায় এরশাদই তার ভাই জি এম কাদেরকে দলের চেয়ারম্যান বলে ঘোষণা দিয়ে গেছেন। এ অবস্থায় রওশনকে দলের চেয়ারম্যান ঘোষণা করা মানে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতার শামিল।

এ ব্যাপারে মহানগর জাপার সভাপতি, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা সাংবাদিকদের বলেন, দলের চেয়ারম্যান কে হবেন, এটা তো এরশাদ ঘোষণা দিয়ে গেছেন। আমরা জি এম কাদেরকে চেয়ারম্যান মানি, রওশন এরশাদকে মানি না। রংপুর অঞ্চলের নেতাকর্মীরা জি এম কাদেরের নেতৃত্বে পূর্ণ আস্থা রাখেন। এখানে রওশন এরশাদের কোনো আদেশ-নির্দেশ মানা হবে না। তিনি বলেন, রওশন এরশাদকে চেয়ারম্যান ঘোষণাকারী ভুঁইফোঁড় নেতারা রংপুরে এলে তাদের প্রতিহত ও প্রতিরোধ করা হবে। দলের মধ্যে বিভাজন নিয়ে একই ধরনের কথা বলেন মহানগর জাপার সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসির। তিনি বলেন, যারা রওশন এরশাদকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করেছেন তারা দলের গঠনতন্ত্রবিরোধী কথা বলেছেন। রওশনকে চেয়ারম্যান ঘোষণা দেয়া ঠিক হয়নি।

এদিকে দলের চেয়ারম্যান নিয়ে এই পরিস্থিতিতে গতকাল শুক্রবার বিকেলে নগরীর সেন্ট্রাল রোড জাতীয় পার্টির কার্যালয় থেকে ঝাড়– মিছিল বের করে মহিলা পার্টি। মিছিলটি বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এ সময় মিছিল থেকে রওশনের প্রতি ঘৃণা প্রদর্শন করে বিদ্রুপ স্লোগান দেন মহিলা পার্টির নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। পরে মিছিল শেষে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সমাবেশে পার্টিও নেতারা দলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ঘোষিত বর্তমান চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের প্রতি সমর্থন জানান। একই সঙ্গে দলের ভেতরে কোন্দল, বিশৃঙ্খলা, দ্বন্দ্ব ও ভাঙন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থাকার অভিযোগে রওশন এরশাদ ও আনিসুল ইসলাম মাহমুদকে বহিষ্কারের দাবি জানান তারা। এ সময় বক্তব্য রাখেন- রংপুর মহানগর মহিলা পার্টির আহবায়ক জেসমিন আকতার, সদস্য সচিব জোৎস্না বেগম, যুগ্ম আহবায়ক হালিমা বেগম, সুলতানা প্রমুখ।

উল্লেখ্য, জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা নির্ধারণকে কেন্দ্র করে স্পিকারকে জি এম কাদের চিঠি দেয়ায় আপত্তি আনেন রওশন এরশাদ। এ দ্ব›দ্ব থেকে দলীয় চেয়ারম্যান পদ নিয়ে নতুন করে পাল্টাপাল্টি দাবি করছেন জি এম কাদের ও রওশন এরশাদ।