৩০ নভেম্বর জাপার কাউন্সিল

আগের সংবাদ

ব্রাজিলকে বাঁচালেন নেইমার

পরের সংবাদ

মোদিকে জড়িয়ে শিশুর মতো কাঁদলেন ইসরো চিফ

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৯ , ৪:৪৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৯, ৪:৫১ অপরাহ্ণ

Avatar

কাঁদারই তো কথা। ভাঙতে চেয়েছিলেন ৬০ বছরের ইতিহাস। রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্রকে টপকে পরিকল্পনা সাজিয়েছিলেন চাঁদের সবচেয়ে দুর্গম দক্ষিণ গোলার্ধে পা রাখার জন্য। সেজন্য পরিকল্পনাও ছিল সুচারু। শ্রমঘাম তো ছিল। ইসরো চিফ হয়তো ভেবেছিলেন, বিশ্বের সবচেয়ে বড় অহংকার, বিজয়ের মহানন্দ তাকে সব ভুলিয়ে দেবে। কিন্তু না, চাঁদের মাটি থেকে মাত্র ২.১ কিলোমিটার উপরে এসে যে তরী ডুবে যাবে তা কি ভাবতে পেরেছিলেন। গোটা দেশের নিঃশ্বাস পড়েছিল তার ঘাড়ের উপরেই। কী আর করা! বিস্ময়, প্রশ্নবোধক চিহ্নের মধ্যেই তার ঘাম দিয়ে জ্বর ছেড়েছে মোদীর আশ্বাসে।

শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) সকালে জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যে ভাষণ দিলেন, তাতে ছিল আবেগ, দেশপ্রেম, গর্ব। ব্যর্থতার মধ্য দিয়েও যেন একটা বিজয়, কাছাকাছি যাওয়ার বিজয়। সবকিছু মিলে আবেগ যেন বাঁধ মানছিল না। তাই তো ইসরো চেয়ারম্যান বিশিষ্ট বিজ্ঞানী কে শিবন এক পর্যায়ে মোদীকে জড়িয়ে ধরে কাঁদলেন। গভীর আবেগে পানি ঝরতে থাকলো চোখ থেকে।

অবশ্য ইসরো চিফের এই কেঁদে ফেলার ভিডিও ভাইরাল হতে সময় লাগেনি। বিজ্ঞানীদের প্রচেষ্টাকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে কে শিবনের পাশে দাঁড়ালেন নেটিজেনরা। ভারতীয় বিজ্ঞানীদের উজ্জীবিত করতে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণও তো কম যায় না। তাই সেটা নিয়েও ‍উচ্ছাস সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে নিন্দুকেরা অবশ্য কিছুটা ফোঁড়ন কেটেছে। ক্যামেরার সামনে তার কেঁদে ফেলার ঘটনা মানতে পারছিলেন না। সমালোচনার সুরে বলেছেন কেউ কেউ, ব্যর্থতা থাকবেই। তবে এভাবে ছোট্ট শিশুর মতো কেঁদে ফেলা ইসরো চেয়ারম্যানকে মানায় না।