মহেশখালের ৮১টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

আগের সংবাদ

রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত হলেন মোজাফফর আহমদ

পরের সংবাদ

সবুজ মেলায় চসিক মেয়র

কেবল বৃক্ষরোপণ নয়, বৃক্ষের যত্নও নিতে হবে

প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ২৫, ২০১৯ , ৬:১৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: আগস্ট ২৫, ২০১৯, ১০:২১ অপরাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে নগরীতে শুরু হয়েছে ১৫ দিনব্যাপী সবুজ মেলা। গতকাল রবিবার বিকেলে নগরীর কাজীর দেউড়ির আউটার স্টেডিয়ামে পায়রা, বেলুন ও ফেস্টুন উড়িয়ে মেলার উদ্বোধন করেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। মেলা উদ্বোধনকালে মেয়র বলেন, নগরায়ন শুরুর সময় আমরা বুঝে না বুঝে বৃক্ষরাজি ধ্বংস করি। প্রধানমন্ত্রী বৃক্ষরোপণে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করায় ক্রমে বৃক্ষরোপণ বাড়ছে। তিনি বলেন, বালুর ন্যাড়া পাহাড়ের পলিতে ড্রেন ভরে যায়। পানি প্রবাহ বন্ধ হয়ে জলাবদ্ধতা হয়, সড়কে যানবাহন ও পথচারীদের দুর্ভোগ বাড়ে। পাহাড়ধসে প্রাণহানি ও সম্পদহানি ঘটছে। তাই কেবল বৃক্ষরোপণই নয়, বৃক্ষের যত্নও নিতে হবে। নগরবাসীকে বেশি বেশি গাছ লাগানো ও ছাদবাগান করার আহ্বান জানিয়ে মেয়র বলেন, এডিস মশার জন্য ছাদবাগান দায়ী নয়। যাতে তিন দিনের বেশি পানি না জমে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
সভায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. জেরিন আকতার বলেন, দেশের ২৫ ভাগ বনভূমি দরকার ভারসাম্য রক্ষার জন্য। এখন দেশের প্রায় ১৯ ভাগ বনভূমি। জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় বিশ্বস্ত হাতিয়ার বনায়ন। বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিভাগীয় কর্মকর্তা ড. মাহবুবুর রহমান বলেন, সবুুজ মেলার উদ্দেশ্য সাধারণ মানুষের মধ্য বৃক্ষরোপণে উদ্বুদ্ধ করা। তিনি পাহাড়ধস রোধে বায়ো ইঞ্জিনিয়ারিং প্রয়োজন বলে মত দেন।
মেলার আহ্বায়ক কাউন্সিলর সাইফুদ্দিন খালেদের সভাপতিত্বে সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন চসিকের প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ এ কে এম রেজাউল করিম। অনুষ্ঠানের শুরুতে কবিগান পরিবেশন করেন কবিয়াল কল্পতরু ভট্টাচার্য। আলোচনা সভা শেষে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন মেলার বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন। সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সবার জন্য এ মেলা উন্মুক্ত থাকবে। এতে ১০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৩ লাখ টাকার ফলদ, বনজ, ঔষধি, ফুল ও পাতাবাহারের চারা ও বনসাই পাওয়া যাচ্ছে।