সারাদেশে বজ্রপাতে ১০ জনের মৃত্যু

আগের সংবাদ

গ্রেনেড হামলা নিয়ে উপহাসকারী রিজভীদেরও বিচার হওয়া উচিত: তথ্যমন্ত্রী

পরের সংবাদ

১ সপ্তাহে মিয়ানমারে সংঘর্ষে নিহত ১৯, বাস্তুচ্যুত ২০০০

প্রকাশিত হয়েছে: August 22, 2019 , 7:32 pm | আপডেট: August 22, 2019, 7:32 pm

মিয়ানমারে সামরিক বাহিনীর ‘জাতিগত নিধন’ থামছেই না। এবার দেশটির সেনাবাহিনী এবং জাতিগত সংখ্যালঘু বিদ্রোহীদের মধ্যে সংঘর্ষে গত এক সপ্তাহে দুই হাজারেরও বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। একইসঙ্গে নিহত হয়েছেন অন্তত ১৯ জন।

মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে এ ঘটনা ঘটে বলে বুধবার (২১ আগস্ট) দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা জানান।

সংবাদমাধ্যম বলছে, মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলের পরিস্থিতি দিনদিন খারাপ হয়ে উঠছে। এই সংঘর্ষে শেষ পর্যন্ত দুই হাজারের বেশি মানুষ বাড়ি-ঘর ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছেন। আর এই সহিংসতা মোকাবিলায় মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চিকে এক রকম যুদ্ধ করতে হচ্ছে। বলা হচ্ছে, দেশটি গণতন্ত্রে ফিরলেও সেনাবাহিনীর কার্যক্রমে নিয়ন্ত্রণ আনতে পারছে না অং সান সু চি সরকার।

সহায়তা কর্মীরা জানিয়েছেন, এক সপ্তাহ ধরে চলা সংঘর্ষে অনেকেই নিহত হয়েছেন। এছাড়া প্রাণে বাঁচতে অনেকে বাড়ি-ঘর ছেড়ে পালিয়েছেন। তারা দেশটির উত্তরাঞ্চলের রাজ্য শান স্টেটের লাসিও শহরের বিভিন্ন মাঠে শিবির করে আশ্রয় নিয়েছেন। এছাড়া তারা বিভিন্ন দাতা সংস্থা এবং সরকারের দেওয়া ত্রাণের মাধ্যমে ঠিকে আছেন।

শান স্টেটের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের পরিচালক সোয়ে নাইং বলেছেন, আমরা শিবিরের বাস্তুচ্যুত মানুষ, আহতরা এবং যারা মারা গিয়েছেন, তাদের পরিবারের সদস্যদের জন্য প্রাথমিক ত্রাণ সামগ্রী এবং নগদ অর্থের ব্যবস্থা করেছি। ইতোমধ্যে তা সরবরাহও করছি।

যতক্ষণ তাদের এই শিবিরে থাকতে হয়, ততক্ষণই তাদের সহায়তা দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।