'গাঙচিল' উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

আগের সংবাদ

ফাইনালের পথে আবাহনী

পরের সংবাদ

টেকনাফে বিজিবির সাথে বন্দুকযুদ্ধে দুই রোহিঙ্গা মাদক ব্যবসায়ী নিহত

শাহীন শাহ, টেকনাফ থেকে :

প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ২২, ২০১৯ , ১২:১৭ অপরাহ্ণ

ককসবাজার জেলার সীমান্তবর্তী টেকনাফের নাফ নদীর তীরে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবির সাথে মাদকের চালান বহনকারিদের বন্ধুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বুধ বার দিবাগত রাত একটার দিকে সংঘটিত বন্ধুকযুদ্ধের ঘটনায় দুই মাদক ব্যবসায়ী রোহিঙ্গা যুবক নিহত হয়েছে। ইয়াবা ব্যবসায়ীদের হামলায় আহত হয়েছে দুই বিজিবি সদস্য। উদ্ধার করা হয়েছে ৫০হাজার ইয়াবা বড়ি, একটি দেশিয় তৈরি একটি লম্বা বন্দুক, দুইটি লম্বা কিরিচ ও চার রাউন্ড তাজা কার্তুজ।

টেকনাফস্হ বিজিবি -২ব্যাটালিয়ানের উপ-অধিনায়ক মেজর শরীফুল ইসলাম জোমাদ্দার উল্লেখিত তথ্যগুলো জানিয়ে বলেন, আজ বৃহস্পতিবার প্রথম প্রহরে রাত একটার দিকে টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং বিজিবি বিওপির একটি টহল দল নাফ নদীর কাটাখালী পয়েন্টে নিয়মিত টহলে ছিলো। এ সময় বিজিবির টহল দল দেখতে পায় একটি হস্তচালিত কাঠের নৌকা নাফ নদী পার হয়ে বাংলাদেশের অংশে প্রবেশ করে। নৌকার আরোহীরা নৌকা থেকে নেমে কাঁদা মাড়িয়ে আসতে থাকলে টহল দল তাদের থামতে সংকেত দেয়। এ সময় ইয়াবা বহনকারীরা লম্বা কিরিচ নিয়ে বিজিবি সদস্যদের উপর হামলা চালায়। এতে বিজিবির সিপাহী মতিউর রহমান (২৪) ও উজ্জল হোসেন(২৬) আঘাতপ্রাপ্ত হন। ইয়াবা বহনকারিরা এক পর্যায়ে বিজিবি সদস্যেদের লক্ষ করে গুলিবর্ষন ও করে। বিজিবি ও আত্মরক্ষার জন্য পাল্টা গুলিবর্ষন করে। এক পর্যায়ে গোলাগুলি বন্ধ হলে বিজিবি ঘটনাস্হলে তল্লাশি চালায়। এ সময় দুই ইয়াবা বহনকারি যুবককে গুলিবিদ্ধ অবস্হায় উদ্ধার করে দ্রুত চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কর্তব্যরত চিকিৎসকের পরামর্শে তাদের দুইজনকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্হায় আজ সকালে দুইজনের মৃত্যু হয়। আহত দুই বিজিবি সদস্যকে টেকনাফ স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ঘটনাস্হল থেকে ৫০হাজার ইয়াবা ও অস্ত্র-কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, বিজিবির নিকট হতে বার্তা পেয়ে মরদেহ দুইটি পুলিশের হেফাজতে নিয়ে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত দুই ইয়াবা কারবারিরা হলো উখিয়ার কুতুপালং রোহিংগা শিবিরে বসবাসকারি রোহিংগা যুবক মোঃ শাকের(২২) ও টেকনাফের নয়াপাড়া মোচনী শিবিরে বসবাসকারি রোহিংগা যুবক নুর আলম(৩০)। এ ঘটনায় বিজিবি বাদী হয়ে মাদক ও অস্ত্র আইনে দুইটি মামলা দায়ের করেছে টেকনাফ থানায়।