হারে শুরু বার্সার

আগের সংবাদ

৫০ হাজার কোটি টাকার সঞ্চয়পত্র বিক্রি

পরের সংবাদ

কন্ডিশনিং ক্যাম্প কাল শুরু

প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ১৮, ২০১৯ , ৩:৪৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: আগস্ট ১৮, ২০১৯, ৩:৪৪ অপরাহ্ণ

Avatar

আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট এবং জিম্বাবুয়ে ও আফগানিস্তানের সঙ্গে তিন জাতি টি-টোয়েন্টি সিরিজকে সামনে রেখে ৩৫ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণা করা হয়েছে। আর অনুশীলনের জন্য আগামীকাল থেকে কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরু হচ্ছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সূত্রে জানা গেছে, ১৯ আগস্ট সকাল সাড়ে ৮টায় মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের ইনডোর জিমে জাতীয় দলের ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়ণের নিকট ফিটনেস পরীক্ষার জন্য রিপোর্ট করতে বলা হয়েছে।
কন্ডিশনিং ক্যাম্প মানেই ফিজিক্যাল ট্রেনিং। ‘এ’ এবং ‘বি’ দুটো গ্রুপে ভাগ হয়ে জিম সেশন চলবে। সেখানে ২০ আগস্ট সকাল সাড়ে ৮টা থেকে সাড়ে ৯টা পর্যন্ত এ গ্রুপের এবং বি গ্রুপের জন্য সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত জিম সেশন পরিচালিত হবে। ২১ আগস্ট রানিং সেশন সকাল ৮টা থেকে ৯টা পর্যন্ত। ২২ আগস্ট আবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে সাড়ে ৯টা পর্যন্ত এ গ্রুপের এবং সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত বি গ্রæপের জিম সেশন চলবে। ২৩ আগস্ট রেস্ট ডে।
১৯ আগস্ট কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরুর পর আফগানদের বিপক্ষে টেস্টের আগে সর্বোচ্চ দুই সপ্তাহ অনুশীলন করার সুযোগ পাবেন জাতীয় ক্রিকেটাররা। ৫ সেপ্টেম্বর থেকে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে হবে একমাত্র টেস্ট। ১৯ আগস্ট থেকে ৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় ১৭ দিন। খুব স্বাভাবিকভাবেই এর মধ্যে অন্তত দিন তিনেক প্র্যাকটিস বন্ধ থাকবে। তাই সব মিলে অন্তত দুই সপ্তাহ পুরো প্র্যাকটিস করার সুযোগ পাবেন টাইগাররা।
আসন্ন টুর্নামেন্ট থেকে ছুটি চেয়ে বিশ্রামে রয়েছেন তামিম ইকবাল খান। ২০০৭ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যাত্রা শুরু দেশসেরা ওপেনারের। এরপর থেকে গত এক যুগে বেশ কয়েকবার ইনজুরির কারণে জাতীয় দলের বাইরে থেকেছেন। কিন্তু সুস্থ অবস্থায় জাতীয় দলের বাইরে থাকার অভিজ্ঞতা কখনো হয়নি। মানসিক অবসাদের কথা উল্লেখ করে ছুটি চেয়েছিলেন জাতীয় দলের এই ওপেনার। তার চাওয়াকে সম্মান দেখিয়ে বিসিবি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট দল থেকে বিশ্রাম দেয়া হবে তাকে। আর তামিম ইকবালের এই অনুপস্থিতিকে তরুণদের জন্য নিজেদের প্রমাণের ভালো একটা সুযোগ হিসেবে দেখছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।
ক্যাম্পে ডাক পাওয়াদের মধ্যে রয়েছেন- ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, লিটন কুমার দাস, সাদমান ইসলাম, জহিরুল ইসলাম, মুশফিকুর রহিম, মমিনুল হক সৌরভ, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ মিঠুন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, সাব্বির রহমান রুম্মন, আফিফ হোসেন ধ্রুব, মাশরাফি বিন মুর্তজা, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, তাসকিন আহমেদ, এবাদত হোসেন চৌধুরী, শফিউল ইসলাম, ফরহাদ রেজা, আবু জায়েদ চৌধুরী রাহী, আবু হায়দার রনি, তাইজুল ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ, আরিফুল হক, ইয়াসির আলী চৌধুরী, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাইফ হাসান, নাঈম শেখ, নাঈম হাসান, শহিদুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম, ইয়াসিন আরাফাত মিশু, মেহেদি হাসান এবং আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।
তামিমকে ছাড়া সিরিজ খেলার অভিজ্ঞতা বাংলাদেশের কিছুদিন আগেই হয়েছে। গত বছর অক্টোবর-নভেম্বরে জিম্বাবুয়ে সিরিজ ও ডিসেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে চোটের কারণে তামিম ছিলেন না। তার বদলে দুই সিরিজে সুযোগ পেয়েছিলেন ফজলে হোসেন রাব্বি ও সাদমান ইসলাম। রাব্বি নিজেকে প্রমাণ করতে না পারলেও সাদমান টেস্টে একরকম নিজেকে স্থায়ী করে ফেলেছেন। তামিমের বদলে টেস্টে সাদমানের ও টি-টোয়েন্টিতে লিটন দাস বা সৌম্য সরকারের সঙ্গে নতুন কোনো ওপেনারকে দেখা যেতে পারে। তবে নান্নু বলেছেন, তারা প্রাথমিক দলের ক্যাম্প দেখে তবেই সিদ্ধান্ত নেবেন।