ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে উইন্ডিজ দলে গেইল

আগের সংবাদ

কালো পাহাড়ের দাম হাঁকা হলো ১০ লাখ টাকা!

পরের সংবাদ

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উদযাপন

একুশের গ্রন্থমেলায় থাকবে বাংলা একাডেমির ১০০ বই

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২৭, ২০১৯ , ১:৪০ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুলাই ২৭, ২০১৯, ১:৪০ অপরাহ্ণ

Avatar

২০২০ সালে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ। আগামী বছরের ১৭ মার্চ সেই কাক্সিক্ষত দিন আসছে। স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মের শতবর্ষ পূর্ণ হবে। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ এ বাঙালির জন্মশতবর্ষ উদযাপনে নেয়া হয়েছে বছরব্যাপী বিশাল পরিকল্পনা। থাকবে বছরব্যাপী সেমিনার ও সিম্পোজিয়াম।
জন্মশতবর্ষকে সামনে রেখে নানা পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে জাতির মননের প্রতীক বাংলা একাডেমিও। ইতিমধ্যেই এর কাজ শুরু করেছে। তার অংশ হিসেবে হাতে নেয়া হয়েছে জাতির জনককে নিয়ে ১০০টি বই প্রকাশের বিশেষ কর্মসূচি। এর মধ্যে রয়েছে শামসুজ্জামান খানের ‘বঙ্গবন্ধুর রাষ্ট্রচিন্তা’, অধ্যাপক হারুন অর রশীদের ‘বঙ্গবন্ধু ও বাকশাল’, রতনলাল চক্রবর্তীর ‘বঙ্গবন্ধু ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’, অধ্যাপক খুরশীদা বেগমের ‘বঙ্গবন্ধু ও নেতৃত্ব, আব্দুল আলীমের ‘ভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধু’।
এ ছাড়া প্রকাশ হবে আসাদ চৌধুরী, ড. নূরুন নবী, শাহজাহান কিবরিয়াসহ খ্যাতিমান ও তরুণ লেখকদের লেখা বই। যার বেশিরভাগই মূলত গবেষণা ও ডকুমেন্টেশনধর্মী।
এ ছাড়া এর মধ্যে বাংলা একাডেমি থেকে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যে ১০-১৫টি বই প্রকাশ হয়েছে সেগুলোও স্থান পাবে ১০০ বইয়ের মধ্যে। এর মধ্যে সৈয়দ শামসুল হকের ‘বঙ্গবন্ধুর বীরগাথা’ বইয়ের ইংরেজি অনুবাদ ‘ব্লাড অব হিরো বঙ্গবন্ধু’ নামে প্রকাশ হবে।
ভোরের কাগজের কাছে এসব তথ্য জানালেন, বাংলা একডেমির মহাপরিচালক বিশিষ্ট কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী। তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে উৎসর্গিত হবে আগামী অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০২০। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষকে মূল থিম ধরেই সাজানো হবে পুরো বইমেলা এবং এর আয়োজন। অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০২০ বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করা নিয়ে ইতোমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে। মেলার সার্বিক আয়োজনও তার জন্মশতবর্ষকে মূল থিম ধরেই সাজানো হবে। এর সাজসজ্জা থেকে শুরু করে মূল মঞ্চের আয়োজন, আলোচনা, সেমিনার, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, গান, আবৃত্তি, নৃত্য সব কিছুই থাকবে বঙ্গবন্ধুকে ঘিরেই। গ্রন্থমেলার উদ্বোধনও হবে বঙ্গবন্ধুর নতুন বই ‘নয়াচীন ভ্রমণ’ গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচনের মধ্য দিয়ে। বইটি বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় প্রকাশ করা হবে।
এ ছাড়া ২০১৯ সালের চেয়ে আরো সম্প্রসারিত পরিসরে ২০২০ সালে গ্রন্থমেলার আয়োজন করা
হবে। বর্তমানে শাহবাগ থেকে হাইকোর্ট পর্যন্ত মেট্রোরেলের কাজ চলছে। এসব বিবেচনায় নিয়ে মেলায় যাতায়াত ব্যবস্থা নির্বিঘ্ন করতে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পূর্বদিকে প্রবেশ ও বহির্গমন পথ এবং গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা যায় কিনা, তা নিয়েও চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে জানালেন একাডেমির মহাপরিচালক।
মূলত বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ১০০ বই করা হবে নবীন-প্রবীণের সম্মিলনেই। এর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন বাংলা একাডেমির গবেষণা, সংকলন এবং অভিধান ও বিশ্বকোষ বিভাগের পরিচালক মোবারক হোসেন।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ভোরের কাগজকে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ১০০টি বইয়ের যে কর্মসূচি আমরা হাতে নিয়েছি তা নবীন-প্রবীণের সম্মিলনেই হচ্ছে। যেখানে বঙ্গবন্ধুর জীবনীর বিভিন্ন দিক নিয়েই মূল্যায়নধর্মী গবেষণা করা হচ্ছে। গত জুন মাস থেকেই আগামী গ্রন্থমেলার কাজ শুরু হয়েছে।