শেরপুরে বন্যায় নয়দিনে ১৬ জনের মৃত্যু

আগের সংবাদ

খেলাপি ঋণ বাড়েনি: অর্থমন্ত্রী

পরের সংবাদ

ক্রিকেটে আমরা সবাই একটি পরিবারের মতো: তামিম

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২২, ২০১৯ , ৯:৩৫ অপরাহ্ণ

মঙ্গলবার এবারের শ্রীলঙ্কা সফরে প্রথমবারের মতো ব্যাট-বল হাতে মাঠের লড়াইয়ে নামবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তবে কোনো প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে নয়। মূল সিরিজ শুরুর আগে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে নামবে তামিম ইকবালের দল।

কলম্বোর পি সারা ওভালে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ১০টায় হতে যাওয়া সে ম্যাচে টাইগারদের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কান বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশ।

আজ সোমবার মাঠের লড়াই শুরুর আগে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার টিম ম্যানেজম্যান্টকে নিয়ে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড।

যেখানে টাইগার অধিনায়ক তামিম ইকবাল ও লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুনারাত্নের সঙ্গে ছিলেন দুই দলের কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন এবং চন্ডিকা হাথুরুসিংহেও। এ সংবাদ সম্মেলনে শ্রীলঙ্কার বর্তমান নিরাপত্তা ব্যবস্থা সম্পর্কে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক তামিম।

নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় বাংলাদেশ দলকে ঢেকে রাখায় লঙ্কান বোর্ডকে ধন্যবাদ জানিয়ে তামিম বলেন, ‘শুরুতেই আমি শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডকে ধন্যবাদ দিতে চাই। বিশেষ করে এখনও পর্যন্ত তারা আমাদের যেভাবে দেখাশোনা করছে, আমাদের যা নিরাপত্তা দিয়েছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়। গত কয়েক মাস আগে যে অবস্থার (কলম্বোয় হামলা) মধ্য গিয়েছে শ্রীলঙ্কা…সত্যিই দারুণ এখনের অবস্থা।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যখন জানতে পারলাম যে, শ্রীলঙ্কা সফরে যাবো তখন থেকেই আমাদের ক্রিকেট বোর্ড, খেলোয়াড়, সমর্থক- সবাই অপেক্ষায় ছিলো এটির জন্য। কারণ, খুব বেশি সময় হয়নি যে আমরাও প্রায় একই অবস্থায় পড়েছিলাম। তখন শ্রীলঙ্কা আমাদের সাহায্যে এগিয়ে এসেছিল।’

এসময় সকল ক্রিকেট খেলুড়ে দেশগুলোকে একটি পরিবারের সঙ্গে তুলনা দিয়ে তামিম বলেন, ‘আমি মনে করি ক্রিকেটে আমরা সবাই একটা পরিবারের মতো। তাই আমাদের উচিৎ একে অপরকে সাহায্য করা, যখন এমন কোনো পরিস্থিতি সামনে আসে। আমরা এখানে বেশ স্বাচ্ছ্যন্দবোধ করছি। এখানে চিন্তার কিছু দেখছি না। ক্রিকেটের বাইরে কিছু ভাবছিও না আমরা। ছেলেরাও নিজেদের উপভোগ করছে। আমি আবারও শ্রীলঙ্কান বোর্ডকে ধন্যবাদ জানাতে চাই, এমন ব্যবস্থা করায়।’

উল্লেখ্য, চলতি বছরের এপ্রিলে শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় সিরিজ বোমা হামলায় প্রায় আড়াইশ জন নিরীহ মানুষ নিহত হন। যার ফলে অনিশ্চয়তার মুখে পড়ে গিয়েছিল দেশটিতে হতে যাওয়া পরবর্তী সিরিজগুলো। তবে বিশ্বকাপ চলাকালীন দুই দেশের বোর্ডের সমঝোতায় ঠিক হয় তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি। যার প্রথম ম্যাচ মাঠে গড়াবে আগামী ২৬ জুলাই।