ছুটিতে ধোনি

আগের সংবাদ

তিন উপায়ে সাইফের চিকিৎসা

পরের সংবাদ

২০ বছর পর তারা কোথায়?

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২১, ২০১৯ , ৩:১৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুলাই ২১, ২০১৯, ৩:১৮ অপরাহ্ণ

Avatar

১৯৯৯ সালে আলো ঝলমলে অভিষেক হয়েছিল এই নায়িকাদের। রূপে ও গুণে তারা মুগ্ধতা ছড়িয়েছিলেন সিনেমায়। ২০ বছর পর কোথায় আছেন তারা? সিনেমায় কেমন তাদের অবস্থান? জানাচ্ছেন স্বাক্ষর শওকত

সাথী ইয়াসমিন
বাংলাদেশ থেকে ১৯৯৪ সালে ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের মেয়ে আনিকা তাহের প্রথম অংশগ্রহণ করে। তবে সেটি লন্ডনে ‘মিস ব্যাঙ্গলি’ হিসেবে জয়লাভ করে তাকে ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে হয়েছিল। তবে পরের বছর বাংলাদেশ থেকেই ‘মিস বাংলাদেশ’ নির্বাচিত হয়ে মিস ওয়ার্ল্ডে অংশ নেন বিলকিস ইয়াসমিন সাথী। ১৯৯৫ সালে বাংলাদেশে ‘মিস বাংলাদেশ’ খেতাব জয়লাভ করেছিলেন সাথী। ‘মিস বাংলাদেশ’ হওয়ার পর তিনি সুযোগ পান অনেক নায়িকার আবিষ্কারক এহতেশাম পরিচালিত যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘পরদেশী বাবু’ ছবিতে অভিনয় করার। এতে তার বিপরীতে ছিলেন ভারতের সিদ্ধার্থ। ছবিটি ১৯৯৯ সালে মুক্তি পেয়েছিল। এরপর তিনি কাজী হায়াতের ‘আব্বাজান’, দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর ‘বীর সৈনিক’, হারুনুজ্জামানের ‘অন্যায়ের প্রতিশোধ’, পি এ কাজলের ‘বড় মালিক’ এবং এনামুল করিম নির্ঝরের ‘আহা’ ছবিতে অভিনয় করেন। ‘বীর সৈনিক’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সাথী জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভ‚ষিত হন। ‘আহা’ ছবির পর সাথীকে আর চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায়নি। গত বছর মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতা নিয়ে হৈচৈ হলে আলোচনায় উঠে এসেছিল সাথীর নাম। তিনি বর্তমানে ব্যবসায় জড়িত আছেন।
ইরিন জামান
সোহানুর রহমান সোহানের হাত ধরে মৌসুমীর অভিষেক ঘটেছিল ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবিতে। একই পরিচালকের হাত ধরে মৌসুমীর ছোট বোন ইরিন জামানও আসেন সিনেমায়। ১৯৯৯ সালে মুক্তি পায় ইরিনের প্রথম ছবি ‘অনন্ত ভালোবাসা’। আজকের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান ছিলেন এ ছবির নায়ক। শাকিব খান সেই সময় তরুণ নায়ক হিসেবে নজর কেড়েছিলেন। মিডিয়ার আশীর্বাদ পেয়েছিলেন ইরিনও। ২০ বছর পর শাকিব খান রাজত্ব করছেন ঢালিউডে, কিন্তু ইরিন নেই শোবিজের কোথাও। স্বামী-সংসার নিয়ে তিনি থিতু হয়েছেন বিদেশের মাটিতে। সর্বশেষ শিল্পী সমিতির নির্বাচনের সময় তার খোঁজ করেছিল শিল্পী সমিতি। তাদের কাছেও ছিল না তার ঠিকানা। কারণ সিনেমার সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্কই চুকিয়ে ফেলেছেন ইরিন। এর কারণ হিসেবে ইরিন বলেছিলেন, মিডিয়াতে বিশেষ করে চলচ্চিত্রে কিংবা টিভি অভিনয়ে থাকি এটা মা-বাবা কারোরই পছন্দ নয়। তাই গানে নাম লেখালাম। প্রথম ছবি মুক্তির আগে ‘মধুরাত’ নামের একটি একক অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছিল তার। ২০০৮ সালে প্রকাশিত হয় ইরিনের দ্বিতীয় একক অ্যালবাম ‘তোমায় দেখব ছুঁয়ে’। ২০১৪ সালে প্রকাশিত হয় তার তৃতীয় একক অ্যালবাম ‘চাইলে তুমি’। ছোটবেলা থেকেই মায়ের কাছে গানের হাতেখড়ি। কিন্তু বড় হতে হতে অভিনয়ের প্রতি আকৃষ্ট হন ইরিন। বড় বোন চিত্রনায়িকা মৌসুমীর অভিনয় তাকে চলচ্চিত্রে আগ্রহী করে তোলে। বর্তমানে ইরিন যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টায় বসবাস করছেন।
প্রিয়াঙ্কা ত্রিবেদী
মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা এই অভিনেত্রী ১৯৯৯ সালে যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত বাসু চ্যাটার্জির ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ ছবির মাধ্যমে বড়পর্দায় অভিষিক্ত হন। প্রথম ছবিতে বাংলাদেশের নায়ক ফেরদৌসের সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করেন তিনি। সেই ছবি তুমুল সাড়া ফেলে। বাংলাদেশের দর্শকদের পাশাপাশি কলকাতার দর্শকরা ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ ছবির পর থেকেই আপন করে নেন এ নায়িকাকে। ফেরদৌস-প্রিয়াঙ্কা জুটিকে নিয়ে এরপর তৈরি হয় ‘টক ঝাল মিষ্টি’, ‘চুপি চুপি’ ছবিগুলো। সেগুলো অবশ্য ‘হঠাৎ বৃষ্টি’র মতো সাড়া ফেলেনি। জহির রায়হানের ছেলে তপু রায়হানের বিপরীতে সুচন্দা পরিচালিত ‘সবুজ কোট কালো চশমা’ ছবিতেও তিনি অভিনয় করেন। কলকাতায় জিতের বিপরীতে বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করলেও ‘সাথী’ ছিল সবচেয়ে হিট। অনেকদিন হয় বাংলা ছবিতে দেখা নেই প্রিয়াঙ্কার। তবে তিনি প্রিয়াঙ্কা উপেন্দ্র নামে নিয়মিতই অভিনয় করছেন কন্নড় ভাষার ছবিতে। সেখানকার সুপারস্টার উপেন্দ্রকে বিয়ে করেই সিনেমা ছাড়েন প্রিয়াঙ্কা। হঠাৎ করেই ২০১১ সালে ইন্ডাস্ট্রি থেকে হারিয়ে যান প্রিয়াঙ্কা। বর্তমানে স্বামী ও দুসন্তানকে নিয়ে বেঙ্গালুরুতে বসবাস করছেন। চলতি মাসে কলিউডে মুক্তি পেয়েছে প্রিয়াঙ্কা অভিনীত ‘দেবাকী’। ছবিটি প্রশংসিত হয়েছে। এখানে প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে অভিনয় করতে দেখা যায় তার মেয়ে ঐশ্বরিয়াকেও। প্রিয়াঙ্কার জন্ম কলকাতায়। ছোটবেলায় সিঙ্গাপুরে অনেকটা সময় কাটালেও পড়াশোনা করেছেন ক্যালকাটা ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে। ১৯৯৬ সালের মিস ক্যালকাটা নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। ‘হঠাৎ বৃষ্টি’র পর একে একে বাংলা, হিন্দি, তামিল, তেলেগু, কন্নড় মিলিয়ে ডজনেরও বেশি ছবি করেন।

  • আরও পড়ুন
  • লেখকের অন্যান্য লেখা