বিশ্বের নতুন বাজারে পোশাক রপ্তানি বেড়েছে ২২ শতাংশ

আগের সংবাদ

তিন ফরম্যাটেই নেতৃত্বে কোহলি

পরের সংবাদ

পাইকারি বাজারে বাড়তির দিকে ভোজ্যতেলের দাম

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২১, ২০১৯ , ২:৫৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুলাই ২১, ২০১৯, ২:৫৮ অপরাহ্ণ

Avatar

২০১৯-২০ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট ঘোষণার পর আমদানিতে শুল্ক আরোপের ফলে দেশের বাজারে ভোজ্যতেলের দাম বাড়তে শুরু করে। তবে এ সময় পাইকারি পর্যায়ে পাম অয়েলের দাম বাড়লেও সয়াবিন তেলের বাজার ছিল স্থিতিশীল। স¤প্রতি বাড়তে শুরু করেছে বোতলজাত সয়াবিন তেলের দামও।
বাজারসংশ্লিষ্টরা বলছেন, আগেই আমদানি করা সয়াবিন তেল বেশি দামে বিক্রি করে বাড়তি মুনাফা তুলে নেয়ার প্রবণতা পণ্যটির দাম বাড়াতে প্রভাবক হিসেবে কাজ করছে। একই সঙ্গে আসন্ন কুরবানি ঈদের আগে বাড়তি চাহিদার বিষয়টিও সয়াবিন তেলের মূল্য বাড়ার পেছনে ভ‚মিকা রাখছে। বাজারসংশ্লিষ্টরা জানান, ২০১৯-২০ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট ঘোষণার পর এক দফায় প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের দাম ২-৩ টাকা বাড়িয়ে দিয়েছিল কোম্পানিগুলো। সম্প্রতি নতুন করে বোতলজাত সয়াবিনের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে তারা। এরই মধ্যে মাঠপর্যায়ে খুচরা ও পাইকারি ব্যবসায়ীদের সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর ঘোষণার পাশাপাশি কিছু এলাকায় বাড়তি মূল্যে সয়াবিন তেলের বিক্রয় আদেশ দিয়েছেন কোম্পানি মনোনীত ডিলাররা। এদিকে দেশে ভোগ্যপণ্যের সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জের বিভিন্ন ট্রেডিং প্রতিষ্ঠানে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এক মাসের ব্যবধানে পাম অয়েলের দাম মণপ্রতি (৩৭ দশমিক ৩২ কেজি) ১২০ টাকা বেড়েছে।
বর্তমানে প্রতি মণ পাম অয়েল বেচাকেনা হচ্ছে ১ হাজার ৯৭০ টাকায়। তবে বাজেটের পর আমদানিতে বাড়তি ভ্যাট আরোপ হলেও সয়াবিন তেলের দাম বাড়েনি। কয়েক মাস ধরেই প্রতি মণ সয়াবিন তেল বেচাকেনা হয়েছে মানভেদে ২ হাজার ৮০০ থেকে ২ হাজার ৮২০ টাকায়। তবে কোরবানি ঈদ সামনে রেখে এরই মধ্যে বোতলজাত সয়াবিন তেলে দাম বাড়াতে শুরু করেছে কোম্পানিগুলো। এ ব্যাপারে ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, ৭ জুলাই পাইকারি বাজারে প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম ছিল ৯৩ টাকা। আর পলিব্যাগে মোড়কজাত এক লিটার সয়াবিন তেল বিক্রি হয়েছে ৯০ টাকায়। বর্তমানে পণ্যটির দাম লিটারপ্রতি আরো ২ টাকা বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে কোম্পানিগুলো। ফলে প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম দাঁড়িয়েছে ৯৫ টাকায়। আর পলিব্যাগে মোড়কজাত পণ্যটি বিক্রি হচ্ছে লিটারপ্রতি ৯২ টাকায়। বাজারসংশ্লিষ্টদের মতে, কোম্পানিগুলো পাম অয়েলের বাড়তি দামের পরিপ্রেক্ষিতে সয়াবিন তেলের দামও বাড়িয়ে দিয়েছে।
একই সঙ্গে আসন্ন কুরবানি ঈদের আগে বাড়তি চাহিদার বিষয়টিও ভোজ্যতেলের বাজারে প্রভাব ফেলেছে। এর জের ধরে ঈদের আগে পাম অয়েল ও সয়াবিন তেলের দাম বর্তমানের তুলনায় আরো বেড়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বাজারসংশ্লিষ্টরা।
খুচরা ব্যবসায়ীদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, রূপচাঁদা ব্র্যান্ডের প্রতি পাঁচ লিটার সয়াবিন তেলের একেকটি বোতল ৫০৪ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দুই লিটারের একেকটি বোতলের দাম ১৯৮ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২০৪ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। সিটি গ্রুপের তীরসহ অন্যান্য কোম্পানিও খুচরা পর্যায়ে সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছে।