মাত্রাতিরিক্ত ইনজেকশনে শিশুর মৃত্যু

আগের সংবাদ

ফরিদপুরে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

পরের সংবাদ

স্লোগান দিতে দিতে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ওয়াসি

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২০, ২০১৯ , ৯:৪৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুলাই ২০, ২০১৯, ৯:৪৪ অপরাহ্ণ

Avatar

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলনে স্ট্রোক করে সুলতান মো. ওয়াসি নামে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি জবির ইংরেজি বিভাগের ১১তম ব্যাচের ২০১৫-১৬ সেশনের শিক্ষার্থী।

আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে জবির সহকারী প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, ওই শিক্ষার্থী হঠাৎ শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে দ্রুত ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে ইসিজি করে কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন, আমরা তার কোনো পালস পাচ্ছি না। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে থাকা জবির আরেক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা অনেক চেষ্টা করেও তাকে বাঁচাতে পারলাম না।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জবির সম্মেলন শুরু থেকে ক্যাম্পাসে সুস্থ স্বাভাবিকভাবে ওয়াসিকে চলাচল করতে দেখা গেছে। হঠাৎ করেই সম্মেলন স্থলের মূল মঞ্চের সামনে স্লোগান দিতে দিতে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে সে। সঙ্গে সঙ্গে তার সহপাঠীরা জবি ক্যাম্পাসের পাশেই একটি বেসরকারি মেডিকেলে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থার অবনতি দেখে তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেয়ার পরামর্শ দেন। সেখান নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওই শিক্ষার্থীর সহপাঠীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সম্মেলন শুরু হওয়ার কথা বেলা ১১টায়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল যথাসময়ে অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছান। অথচ নির্ধারিত সময়ের আড়াই ঘণ্টা পর সম্মেলন স্থলে আসেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

তারা বলেন, ১১টার সম্মেলন শুরু হয় বিকেল ৩টায়। প্রচণ্ড গরমে অন্তত সাড়ে চার ঘণ্টা স্লোগান দেয় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। গরম সহ্য করতে না পেরে ওয়াসি মৃত্যুবরণ করেছে বলে দাবি করেন তার সহকর্মীরা।

এদিকে প্রচণ্ড গরমে জবির ১৩ ব্যাচের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী রাফিত অসুস্থ হয়ে পুরান ঢাকার ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বলে জানা গেছে।