ফরিদপুরে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

আগের সংবাদ

ধর্মীয় ফ্যাসিবাদের বাড়-বাড়ন্ত

পরের সংবাদ

ভোগান্তির নাম প্রি-পেইড মিটার

ভুতুড়ে বিল রোধ ও কার্ড রিচার্জ সহজলভ্য করা উচিত

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২০, ২০১৯ , ৯:৫৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুলাই ২০, ২০১৯, ৯:৫৩ অপরাহ্ণ

অনলাইন প্রতিবেদক

ভুয়া বিলের হয়রানি থেকে মুক্তি পেতে প্রি-পেইড এসেও মিলেনি গ্রাহকের মুক্তি। বিদ্যুৎ খাতে প্রি-পেইড মিটার চালুর উদ্দেশ্য হলো বিদ্যুৎ চুরি ও সিস্টেম লস কমানো এবং এই খাতের বিশৃঙ্খলা দূর করা। এতে ভুতুড়ে বিল রোধ, সহজে টাকা রিচার্জ করার সুবিধা ও জামানতবিহীন সংযোগের সুযোগ থাকায় প্রি-পেইড মিটার নিয়ে জনগণের মধ্যে আগ্রহ তৈরি হয়। কিন্তু সমস্যা সমাধানের বদলে গ্রাহকদের ভোগান্তিই বাড়ছে।

বিষয়টি টেকনিক্যাল। তাই এর সমাধানে দক্ষ ও অভিজ্ঞদের এগিয়ে আসতে হবে। দেশে বর্তমানে বিদ্যুতের গ্রাহক সংখ্যা ২ কোটি ৭০ লাখের কাছাকাছি। এর মধ্যে ১৭ লাখের বেশি বিদ্যুৎ গ্রাহককে পোস্টপেইড থেকে প্রি-পেইড মিটারের আওতায় আনা হয়েছে। ২০২১ সালের মধ্যে বিদ্যমান ও নতুন মিলিয়ে সব গ্রাহককে প্রি-পেইড মিটারের আওতায় আনার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের।

বিদ্যুৎ চুরি ও বিল খেলাপ রোধে সবচেয়ে উপযুক্ত উপায় হিসেবে বাস্তবায়ন করতে চায় সরকার। কিন্তু গ্রাহক সংখ্যা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে গ্রাহকদের ভোগান্তির মাত্রাও বাড়ছে। দিন যত যাচ্ছে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় প্রি-পেইড মিটারে বেশি টাকা কেটে নেয়া এবং রিচার্জের ভোগান্তিতে গ্রাহকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। শুধু রাজধানীতেই নয় এর বাইরের বিভিন্ন জেলাতেও প্রি-পেইড মিটারে গ্রাহকদের ভোগান্তির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গ্রাহকদের অভিযোগ, ডিমান্ড চার্জ, মিটার ভাড়া, সার্ভিস চার্জ মাসে একবারই কাটার কথা এবং ডিমান্ড চার্জ ও মিটার ভাড়া এক সময় পরিশোধ হয়ে গেলে টাকা আর কাটার কথা নয়। নিয়ম অনুযায়ী ব্যবহৃত বিদ্যুতের ওপর ভ্যাট প্রদেয়। কিন্তু ডিমান্ড চার্জ, মিটার ভাড়া, সার্ভিস চার্জ ও অন্যান্য খরচের ওপরও ভ্যাট নেয়া হচ্ছে। আর প্রতি মাসে মিটার ভাড়া ও ডিমান্ড চার্জ পরিশোধ করতে হচ্ছে ভাড়াটিয়াকে।

এসব দেখবে কে? আমাদের দেশে অতীতে বিদ্যুৎ খাতে অনিয়ম, হয়রানি ও ভোগান্তির বিরুদ্ধে গণআন্দোলনেরও নজির রয়েছে। প্রি-পেইড মিটারের ব্যবহার নিয়ে সাধারণ গ্রহকদের মাঝে যে অসন্তোষ সৃষ্টি হচ্ছে তা সত্ত্বেও সমাধানের পথ বের করতে হবে। না হয় এ খাত নিয়ে চরম নৈরাজ্য দেখা দিতে পারে। বিদ্যুৎ আজ আধুনিক জীবনযাপনের অন্যতম প্রধান অনুষঙ্গ। বিদ্যুৎ উন্নয়নেরও চালিকাশক্তি।

সুতরাং বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যাপকভাবে বৃদ্ধির পর এই খাতে কোনো প্রকার জনভোগান্তি একেবারেই অপ্রত্যাশিত। মোবাইল ফোন রিচার্জের মতো বিদ্যুতের প্রি-পেইড কার্ডের রিচার্জও সহজলভ্য করা উচিত। তাহলে গ্রাহকরা যে কোনো সময় মোবাইলের মাধ্যমেই বিল পরিশোধ করতে পারবেন। সরকারকে এসব ব্যাপারে দ্রুত উদ্যোগ নিতে হবে।

বিদ্যুৎ খাতের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে সরকারকে কঠোর হতেই হবে। গ্রাহক ভোগান্তি কমানোর জন্য নেয়া উদ্যোগ যেন ভেস্তে না যায়, সেদিকে কর্তৃপক্ষ সজাগ দৃষ্টি রাখবে বলে আমাদের প্রত্যাশা।

  • আরও পড়ুন
  • লেখকের অন্যান্য লেখা