জয় উদযাপনে শামিল স্ত্রীরাও

আগের সংবাদ

গ্রাহক সেবায় কল সেন্টার করবে আইডিআরএ

পরের সংবাদ

বিশ্বকাপে আম্পায়ারদের যত ভুল

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ১৬, ২০১৯ , ২:০৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুলাই ১৬, ২০১৯, ২:০৯ অপরাহ্ণ

Avatar

নাটকীয়তায় ভরপুর ফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জিতেছে ইংল্যান্ড। এটিকে ফাইনাল অব দ্য সেঞ্চুরিও বলা যায়। তবে এবারের বিশ্বকাপের আম্পায়ারিং নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। অনেকেই মনে করছেন বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে আম্পায়ারদের আরো যত্নশীল হওয়া প্রয়োজন। আম্পায়ারের ছোট একটি ভুল সিদ্ধান্তও যে কত বড় হয়ে যেতে পারে তা পরশুর ফাইনালেই দেখা গেছে।
ইংল্যান্ডের ব্যাটিংয়ের শেষ ওভারের চতুর্থ বলে মার্টিন গাপটিলের থ্রো করা বল বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে বাউন্ডারিতে যায়। সেই থ্রো থেকে হওয়া চার ও দৌড়িয়ে এক রান নেয়ার ফলে আম্পায়ারের দেয়ার কথা ছিল ৫ রান, সেখানে তারা ইংল্যান্ডকে ৬ রান দেন। ওই ওভারথ্রোই নিউজিল্যান্ডকে ডুবিয়ে দেয়। ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার প্রথম সেমিফাইনাল ম্যাচেও আম্পায়ারদের সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠে। ধোনি যখন দলকে প্রায় জিতিয়ে দিচ্ছিলেন তখন মার্টিন গাপটিলের থ্রোতে তিনি রান আউটের শিকার হন।
তার আউটের সঙ্গে সঙ্গেই ভারতের হার নিশ্চিত হয়ে যায়। তখন ম্যাচের তৃতীয় পাওয়ার প্লে চলছিল। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী ওই সময় ত্রিশ গজের বাইরে সর্বোচ্চ ৫ জন খেলোয়াড় থাকতে পারবে। কিন্তু পরে দেখা যায় ওই সময় ৬ জন খেলোয়াড় ৩০ গজের বাইরে ছিলেন।
সে হিসেবে সেই বলটি নো বল বা ডেড বল হওয়ার কথা ছিল। দ্বিতীয় সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের উত্তেজনাকর ম্যাচে আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা জেসন রয়কে ক্যাচ আউট দিয়ে দেন। ওই সময় রয়ের রান ছিল ৮৫।
ভুল সিদ্ধান্তের কারণে তিনি সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হন। পরে রিপ্লেতে দেখা যায় বল তার ব্যাট স্পর্শই করেনি। ওই সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রতিবাদ করলে উল্টো জরিমানা গুনতে হয় রয়কে। গ্রুপ পর্বের অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচটিতে ধরতে গেলে আম্পায়ারদের ভুল সিদ্ধান্তেই সেই ম্যাচটি ক্রিস গেইলরা মাত্র ১৫ রানে হেরে যান। অস্ট্রেলিয়ার দেয়া ২৮৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করছিল উইন্ডিজ। ওপেনিংয়ে ব্যাট করতে আসা ক্রিস গেইলকে আম্পায়ার দুইবার আউট দিয়ে দেন।
পরে দুবারই রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান তিনি। কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই মিচেল স্টার্কের বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পরে আউট হয়ে যান তিনি। কিন্তু তিনি যেই বলে আউট হন তার আগের বলটি করার সময় মিচেল স্টার্ক দাগের বাইরে পা ফেলে বল করেছিলেন। কিন্তু আম্পায়ার সেটি খেয়াল করেননি।
সে হিসেবে ক্রিস গেইল যে বলে আউট হয়েছিলেন সেটি ফ্রি হিটের বল হওয়ার কথা ছিল। শেষমেষ আম্পায়ারদের ভুলের খেসারত দিতে হয়েছিল পুরো উইন্ডিজ দলকে।
এসব বড় ঘটনা ছাড়াও আরো অনেক ছোটখাট ভুল করেছেন আম্পায়াররা। তাই এবারের বিশ্বকাপের আম্পায়ারিং নিয়ে খুব একটা সন্তুষ্ট নয় ক্রিকেট ভক্তরা।