ভিডিও গেমে সৃজনশীলতা বাড়ে

আগের সংবাদ

ডেমু ট্রেন বাংলাদেশের উপযোগী নয়: প্রধানমন্ত্রী

পরের সংবাদ

দেওয়ানগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ১৬, ২০১৯ , ৪:৫৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুলাই ১৬, ২০১৯, ৫:২৪ অপরাহ্ণ

Avatar

দেওয়ানগঞ্জ বন্যা পরিস্থিতি অবনতি হয়েছে। যমুনা নদীসহ জেলার ব্রহ্মপুত্র, জিঞ্জিরাম নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ বন্যা পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। বাহাদুরাবাদ পয়েন্টে যমুনা নদীর পানি ২৪ ঘন্টায় ১৮ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ১৪০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার পরিস্থিতি সবচেয়ে বেশি অবনতি হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের হিসেব মতে এ উপজেলায় ১ লাখ ৩৩ হাজার ২২১ জন মানুষ বন্যায় আক্রান্ত হয়েছে।
সরজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বন্যা কবলিত দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় মঙ্গলবার ভোর থেকে উপজেলা পৌরশহর ও ৮টি ইউনিয়নে বন্যার পানিতে সয়লাব হয়ে গেছে। দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা প্রসাশন ভবন, উপজেলা পরিষদ ভবন, দেওয়ানগঞ্জ বাজার, সোনালী ব্যাংক, কৃষি ব্যাংক হাটুপানিতে তলিয়ে গেছে। ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জগামী রেল যোগাযোগ, সানন্দবাড়ী-রৌমারী সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। বন্যা প্লাবিত হওয়ায় উপজেলার ১৯১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছেন। ঐহিত্যবাহি খোলাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয়, মসজিদ যমুনার গর্ভে বিলীন হয়েছে। উপজেলার বানভাসি মানুষ ৮টি আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় গ্রহন করেছে। বানভাসি মানুষের মাঝে স্থানীয় প্রশাসনের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত রেখেছেন। তবে বেসরকারি কোন প্রতিষ্ঠান ত্রাণ বিতরণের খবর পাওয়া যায়নি।