ফেসবুক ও টুইটার অ্যাকাউন্টের তথ্য

আগের সংবাদ

আর নয় জল খরচে দৃশ্যধারণ

পরের সংবাদ

নৃত্য-ছন্দে অনন্য তাথৈ

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ৭, ২০১৯ , ৪:২২ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুলাই ৭, ২০১৯, ৪:৫০ অপরাহ্ণ

Avatar

নাচের হাতেখড়ি শৈশবে মায়ের কাছে। মা শর্মিলা বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের বরেণ্য নৃত্য শিক্ষক। আর বাবা ভাস্বর বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের প্রখ্যাত বাচিক শিল্পী। তাই ছোটবেলা থেকেই বেড়ে উঠেছেন সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডলে। বলছি সুদেষ্ণা স্বয়ংপ্রভা তাথৈর কথা। সম্প্রতি রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মণিপুরি নৃত্যকলায় সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন, ভালো ফলাফলের স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্বর্ণপদক। বাংলাদেশের মেধাবী তরুণ নৃত্যশিল্পী, কোরিওগ্রাফার ও নৃত্য-শিক্ষক তাথৈ শুনিয়েছেন নাচ নিয়ে তার স্বপ্নের কথা।
এই গুণী নৃত্যশিল্পী বলেন, আমার স্বপ্ন তো নাচ নিয়েই। আরো শিখতে চাই, শেখাতে চাই। এখন ছায়ানটে শিক্ষকতা করছি। পাশাপাশি নৃত্যনন্দনে নাচের শিক্ষক হিসেবে যুক্ত আছি। নিজের নাচ শেখাটাও চালিয়ে যাচ্ছি। রবীন্দ্রভারতীতে মাস্টার্স করার সময় কলকাতায় নাচ শিখেছি নৃত্যগুরু কলাবতী দেবীর মেয়ে বিম্বাবতী দেবীর কাছে। এখনো ঢাকা থেকে মাঝে মাঝেই কলকাতায় গিয়ে তার কাছে নাচ শিখছি।
ছোটবেলায় মায়ের কাছে নাচের শুরু। পরবর্তী সময় ছায়ানটে বেলায়েত হোসেন খান ও তামান্না রহমানের কাছে নাচ শিখেছেন তাথৈ। এ ছাড়া ভারতীয় দূতাবাসের আয়োজনে কলাবতী দেবীর কাছে মণিপুরি নৃত্য এবং প্রফেসর সি ভি চন্দ্রশেখরের কাছে ভরতনাট্যমের প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। এ ছাড়া ওড়িশি নৃত্য শিখেছেন বেনজির সালামের কাছে। মাত্র ছয় বছর বয়সে উদয়শংকর ইন্ডিয়ান কালচারাল সেন্টারে উপমহাদেশের প্রখ্যাত নৃত্যগুরু অমলাশংকরের কাছে নাচ শেখাকে জীবনের বড় প্রাপ্তি বলে মনে করেন তিনি। এই মেধাবী শিল্পী বলেন, গত সপ্তাহে অমলাশংকরের জন্মশতবর্ষ উদযাপিত হয়েছে। উপমহাদেশের প্রখ্যাত নৃত্যগুরু অমলাশংকরের কাছে নাচ শিখতে পারাটা আমার জন্য পরম পাওয়া।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর করেছেন নৃ-বিজ্ঞানে। পরবর্তী সময় ভারত সরকারের আইসিসিআর বৃত্তি নিয়ে রবীন্দ্রভারতী থেকে মণিপুরি নৃত্যে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন। এখন স্বপ্ন দেখছেন নৃতকলা বিষয়ে উচ্চতর পড়ালেখা করার। তাথৈ বলেন, রবীন্দ্রভারতী থেকে স্বর্ণপদক পাওয়া আমার জন্য অনেক বড় অনুপ্রেরণা। এখন ইচ্ছা আছে নৃত্যকলা বিষয় নিয়েই পিএইডি করার। নাচ নিয়ে আরো গবেষণা করতে চাই। আরো জানতে চাই। নিজে শিখতে চাই, অন্যদের শেখাতে চাই।
এ প্রজন্মের তরুণদের মাঝে নাচের ব্যাপারে আগ্রহ বেড়েছে উল্লেখ করে তাথৈ বলেন, এখন অনেকেই নাচের মাধ্যমে ক্যারিয়ার গড়ার স্বপ্ন দেখছেন। তরুণরা নাচ শেখার ব্যাপারে অনেক বেশি আগ্রহী। তবে আমাদের তরুণদের মাঝে মাঝেই অস্থিরতা বেশি। অল্প সময়ে তারকা হতে চাই। তারকা হবার মোহ শিল্পী সত্তাকে ধ্বংস করছে।
মেয়ে হিসেবে নাচ করতে গিয়ে নিজে কোনো সমস্যার মুখোমুখি না হলেও বাংলাদেশের বাস্তবতায় অনেক মেয়েকেই সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় উল্লেখ করে তাথৈ বলেন, আমি পরিবার থেকে ভীষণভাবে সহযোগিতা পেয়েছি। মায়ের কাছে নাচ শিখেছি, বাবার কাছে আবৃত্তি শিখেছি। কিন্তু অনেক মেয়েকেই দেখেছি পরিবার বা সমাজ থেকে সহযোগিতা পান না। ফলে অনেকেই নাচ ছেড়ে দিতে বাধ্য হন। আমি বলব, নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস থাকতে হবে। কাজের প্রতি সৎ থাকতে হবে। কারো কটু কথা শুনে নিজের কাজটা ছেড়ে দিলে চলবে না। সমস্যাকে জয় করে নিয়েই এগিয়ে যেতে হবে।
নাচের পাশাপাশি অভিনয়েও নজর কেড়েছেন তাথৈ। ভারতের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা গৌতম ঘোষ পরিচালিত ‘মনের মানুষ’ সিনেমায় অভিনয় করে অসংখ্য মানুষের ভালোবাসা পেয়েছেন। সামনেও অভিনয় করতে চান, তবে নাচই মূল জায়গা বলে মনে করেন তিনি। এ প্রসঙ্গে তাথৈ বলেন, সামনে এরকম ভালো গল্পে অভিনয়ের সুযোগ থাকলে অভিনয় করব। কিন্তু নাচ নিয়েই ব্যস্ত থাকতে চাই। আমার মূল জায়গা হলো নাচ। আমার স্বপ্ন নাচ নিয়েই। এর পাশাপাশি সুযোগ হলে অভিনয় করব।