চাঁদরাত অবধি শুটিং

আগের সংবাদ

ফরিদপুরে বাস-ট্রাক মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২

পরের সংবাদ

ঈদের ওয়েব সিরিজ

প্রকাশিত হয়েছে: জুন ১, ২০১৯ , ৩:৩৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুন ১, ২০১৯, ৩:৩৭ অপরাহ্ণ

Avatar

ইউটিউবের মতো আলাদা ভিডিও স্ট্রিমিং সাইটের জন্য নির্মিত বিভিন্ন ধারাবাহিক ‘ওয়েব সিরিজ’ হিসেবে পরিচিত। মূলত ৯০-এর দশকে আমেরিকায় যাত্রা শুরু করে ওয়েব সিরিজ। বিশ শতকের শেষ থেকে এর জনপ্রিয়তার শুরু। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেও এই ওয়েব সিরিজের যাত্রা শুরু হয়েছে অনেক আগে। বাংলাদেশে এর যাত্রা শুরু হয়েছে কয়েক বছর হলো। ওয়েব সিরিজকে সারা বিশ্বে জনপ্রিয় করার পেছনে নেটফ্লিক্সের বেশ অবদান। শুধু বাংলাদেশে নেটফ্লিক্সের সাবস্ক্রাইবার ৫০ লাখেরও ওপরে বলে জানা যায়।
প্রতিবেশী দেশ ভারতের ওয়েব সিরিজের জনপ্রিয়তাকে মাথায় রেখে সম্প্রতি বাংলাদেশেও লেগেছে ওয়েব সিরিজ নির্মাণের ধুম। নতুন ট্রেন্ডে অভ্যস্ত হয়ে উঠেছেন বাংলাদেশি নির্মাতারাও। আস্তে আস্তে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সঙ্গেও পরিচিত হচ্ছে এ দেশের দর্শকরা। এবারের ঈদে নির্মাতারা হলের জন্য সিনেমা ও টিভির জন্য নাটক-টেলিফিল্ম নির্মাণের সঙ্গে সঙ্গে নির্মাণ করেছেন ওয়েব সিরিজও। ঈদকে কেন্দ্র করে অনেক নাটক ও টেলিছবি নির্মাণ হচ্ছে ইউটিউবের জন্য। ঈদকে ঘিরে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের জন্য অনেক ওয়েব সিরিজ নির্মাণ হচ্ছে। বায়োস্কোপ, হইচই বাংলাদেশ, বঙ্গবিডি, সিনেস্পট, সিনেমাটিক ইত্যাদি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ঈদে ওয়েব সিরিজ নিয়ে আসছে।
ঈদ উপলক্ষে প্রথমবারের মতো ‘হইচই বাংলাদেশ’ ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে প্রকাশিত হবে মানি হানি নামের ১২ পর্বের একটি ওয়েব সিরিজ। এটি যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন তানিম নূর ও কৃষ্ণেন্দু চট্টোপাধ্যায়। ঈদের দিন ওয়েব সিরিজটি উঠবে। বাংলাদেশের একটি ব্যাংক ডাকাতির সত্য ঘটনা অবলম্বনে এর গল্প। এতে অভিনয় করেছেন শ্যামল মওলা, মোস্তাফিজুর রহমান, লুৎফর রহমান জর্জ, সুমন আনোয়ার, নিশাত প্রিয়ম।
ঈদের আগের দিন থেকে পর্যায়ক্রমে সিনেস্পট ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে ১২ পর্বের ওয়েব সিরিজ উঠবে। ইনোভেটিভ সলিউশনের প্ল্যাটফর্ম এটি। সৈকত নাসির পরিচালিত সিরিজটির নাম ‘ট্র্যাপড’। এতে অভিনয় করেছেন আইরিন, রিও, এ কে আজাদসহ ইন্দোনেশিয়ার কয়েকজন অভিনয়শিল্পী। ‘ট্র্যাপড’-এর কাহিনী ও চিত্রনাট্য করেছেন আসাদ জামান। ঈদের আগের দিন রাত থেকে ‘ট্র্যাপড’ উন্মুক্ত হবে। সিরিজটির প্রতি পর্বের দৈর্ঘ্য ১৫ মিনিট করে।
ঈদ উপলক্ষে অনন্য মামুন পরিচালিত ‘ধোঁকা’ নামে ১২ পর্বের ওয়েব সিরিজ উঠবে প্রকাশ পাবে আরেকটি প্ল্যাটফর্ম সিনেমাটিকে। ওয়েব সিরিজটির শুটিং হয়েছে ইন্দোনেশিয়ার বালিতে। এর অন্যতম অভিনেতা এ বি এম সুমন বলেন, ওয়েব সিরিজে কাজ করতে আমি সবসময় উপভোগ করি। কারণ এতে অভিনয় করার সুযোগ অনেক বেশি থাকে। ‘ধোঁকা’তে আমি এক বহিষ্কৃত আর্মি গোয়েন্দার চরিত্রে অভিনয় করেছি। যে কিনা শত্রু পক্ষের ধোঁকায় পড়ে চাকরি হারান। এরপর লড়াই করেন তাদেরই বিরুদ্ধে।
বঙ্গবিডির প্রযোজনায় নির্মিত ৭ পর্বের ওয়েব সিরিজ ‘গন কেস’ উঠবে বায়োস্কোপে। অনম বিশ্বাস পরিচালিত এ সিরিজে অভিনয় করেছেন ইয়াশ রোহান ও সাফা কবির। এবারই প্রথম বঙ্গবিডির আয়োজনে ঈদের উৎসবে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে ওয়েব সিরিজ প্রকাশ করা হচ্ছে। ওয়েব সিরিজটির গল্প লিখেছেন কায়ানাত আহমেদ, আদনান আদিব খান এবং পরিচালক। এ প্রসঙ্গে অনম বিশ্বাস বলেন, এখন ওয়েব যুগ। প্রথম সিনেমা নির্মাণের পরপরই প্রথম ওয়েব সিরিজ নির্মাণ করে ফেললাম। আমি আমার জায়গা থেকে চেষ্টার ত্রুটি করিনি। মানুষ যেভাবে গল্প দেখে অভ্যস্ত, তার বাইরে গিয়ে অন্যভাবে গল্প বলার চেষ্টা করেছি। ওয়েব সিরিজটির গল্প চেনা মনে হলেও, এটির ভেতর ভিন্ন এক গল্পের অবতারণা আছে। সাফা কবির ও ইয়াশ রোহান ছাড়াও আরো অভিনয় করেছেন নূরে আলম নয়ন, ইকবাল, আদনান অদীব খান, সাইফ ইমাম, ওহি, কৃতিকা, তাপু, অন্ত আজাদ, বাবলু।
ঈদের জন্য ‘পাফ ড্যাডি’ নামে ১০ পর্বের আরেকটি ওয়েব সিরিজের হচ্ছে বঙ্গবিডির প্রযোজনায়। মাসুদ হাসান উজ্জ্বল পরিচালিত ১০ পর্বের এই ধারাবাহিকের নাম ভ‚মিকায় অভিনয় করবেন আজাদ আবুল কালাম। আর পরীমনিকে দেখা যাবে ‘টিনা’ নামের এক চিত্রনায়িকার চরিত্রে। ‘পাফ ড্যাডি’ ওয়েব সিরিজে আরো অভিনয় করেছেন ইন্তেখাব দিনার, বিজরী বরকতউল্লাহ, সজল, মৌটুসী বিশ্বাস, পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমুখ। উজ্জ্বল বলেন, এই প্রথম আমি আমার সুর রিয়ালিস্টিক ধারা থেকে বেরিয়ে থ্রিলার নিয়ে কাজ করছি। ওয়েব সিরিজগুলোয় তো দর্শকদের ধরে রাখার জন্য সব সময় এক ধরনের কৌত‚হলের মধ্যে রাখতে হয়। আমি চেষ্টা করব আমার নিজের ধারাকে বজায় রেখে গতিশীল একটি প্রযোজনা তৈরির। ‘পাফ ড্যাডি’র গল্প ক্ষমতার পালাবদলের গল্প। রাস্তার ভাসমান এক ব্যক্তির ক্ষমতাবান হয়ে ওঠার গল্প। প্রায় ছয় মাস সময় নিয়ে এই ওয়েব সিরিজের শুটিং প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এসব ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে ভিডিও স্ট্রিমিং করে ওয়েব সিরিজ দেখতে হলে সাবস্ক্রাইব করে তা দেখতে হবে। এতে গ্রাহককে পয়সা গুনতে হবে। এ ছাড়া মোবাইল ফোন বা ট্যাবে সহজেই অ্যাপ ডাউনলোড করে ওয়েব সিরিজগুলো দেখা যাবে।