ইংল্যান্ডের জার্সি উন্মোচন

আগের সংবাদ

পশ্চিমবঙ্গে এগিয়ে চার তারকা

পরের সংবাদ

আত্মবিশ্বাসী মাশরাফি

প্রকাশিত হয়েছে: মে ২৩, ২০১৯ , ১:০০ অপরাহ্ণ | আপডেট: মে ২৩, ২০১৯, ৩:৪১ অপরাহ্ণ

Avatar

আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ জেতার পর তিন দিনের ছুটিতে দেশে ফিরেছিলেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। পরিবারকে সময় দিয়ে গতকাল সকালে বিশ্বকাপ খেলতে ফের দেশ ছেড়েছেন নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত এই ক্রিকেটার। দেশ ছাড়ার আগে সবার কাছে বাংলাদেশ দলের জন্য দোয়া চেয়েছেন তিনি।
ছুটিতে এসে মিডিয়ার সঙ্গে খুব একটা কথা বলেননি মাশরাফি। পুরো সময়টাই কাটিয়েছেন নড়াইলে। গতকাল বিমানে চড়ার আগে মাশরাফি বলেন, সবাই দোয়া করবেন। চেষ্টা করব ভালো করার।
আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ জেতায় তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলতে চান না মাশরাফি। তিনি বলেন, দুটি টুর্নামেন্টই আলাদা। তবে ত্রিদেশীয় সিরিজ জেতায় এখন সবাই বেশ আত্মবিশ্বাসী। ভালো শুরুটা গুরুত্বপূর্ণ। সেটা পারলে আশা করি ভালো কিছুই হবে।
বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম তিন ম্যাচে টাইগারদের প্রতিপক্ষ যথাক্রমে দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড। প্রতিপক্ষ হিসেবে তিনটি দলই বেশ শক্তিশালী। এ বিষয়টির প্রতি ইঙ্গিত করে ক্যাপ্টেন ম্যাশ বলেন, বিশ্বকাপে সাফল্য পেতে হলে ভালো একটা শুরু প্রয়োজন। কিন্তু আমাদের জন্য সেটা অনেক কঠিন হবে। কারণ প্রথম তিন ম্যাচে প্রতিপক্ষ খুবই শক্তিশালী। তাদের বিপক্ষে ইতিবাচক ফল (জয়) তুলে নেয়াটা মোটেই সহজ হবে না। মাশরাফি ঢাকা থেকে প্রথমে লন্ডনে যাবেন। সেখানে আজ দশ দলের অধিনায়কদের নিয়ে আইসিসির আয়োজনে একটি সংবাদ সম্মেলনে যোগ দেবেন। এরপর কার্ডিফে গিয়ে যোগ দেবেন দলের সঙ্গে। বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন শুরু হবে আগামী ২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে।
এদিকে ১৫ জনের স্কোয়াডে থাকা ১৩ জনই ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষে গত শনিবার আয়ারল্যান্ড থেকে লেস্টারে পৌঁছেন। সেখানে তিন দিনের অনুশীলন ক্যাম্প করে টাইগাররা। মাশরাফি ছুটি কাটাতে দেশে ফিরলেও তামিম ইকবাল পরিবারকে সময় দিতে ছুটে যান দুবাইয়ে। লেস্টারের অনুশীলনে দলের সঙ্গে নেই বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ। জরুরি প্রয়োজনে তিনি গেছেন জ্যামাইকায়। ছুটি কাটিয়ে তিনিও দলের সঙ্গে যোগ দেবেন কার্ডিফে। ইংল্যান্ডের লেস্টারে আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত নিজেদের খরচেই অবস্থান করবে টিম বাংলাদেশ। পরে ২৪ মে থেকে শুরু হবে আইসিসির সাপোর্টিং পিরিয়ড। তখন থেকে অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর সব দায়-দায়িত্ব নেবে বিশ্ব ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থাটি।