রাজউকের নতুন চেয়ারম্যান সুলতান আহমেদ

আগের সংবাদ

সময়ের আগে সেতু নির্মাণ, অতিরিক্ত অর্থ ফেরত দিল জাপান

পরের সংবাদ

এবারও দুদকে হাজির হননি রুহুল আমিন

প্রকাশিত হয়েছে: মে ২০, ২০১৯ , ৭:৩৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: মে ২০, ২০১৯, ৭:৩৪ অপরাহ্ণ

Avatar

ওমরাহ করতে সৌদি যাবেন রুহুল আমিন হাওলাদার। তাই দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) তৃতীয় নোটিশেও উপস্থিত থাকতে পারবেন না। হতে পারবেন না জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি। ঈদের পর পর্যন্ত সময় চেয়েছেন। এবার নিয়ে মোট তিনটি তলব নোটিশ এড়িয়ে গেলেন জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব।

এর আগে শতশত কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধান ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গত মঙ্গলবার (১৪ মে) দুদকের উপ-পরিচালক সৈয়দ আহমেদের সই করা নোটিশে সোমবার (২০ মে) দুদক প্রধান কার্যালয়ে রুহুল আমিন হাওলাদারকে হাজির হতে বলা হয়েছিল।

এর আগেও দুইবার জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদারকে তলব করেছিল দুদক।

তিনি সেই তলবের বিরুদ্ধে আদালতে গিয়ে স্থগিতাদেশ নিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত উচ্চ আদালতে তিনি হেরে যান। এরপর তৃতীয়বারের মতো তাকে সশরীরে দুদক কার্যালয়ে হাজির হতে বলে।

দুদকের উপ পরিচালক প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য বলেন, অভিযোগটি আইনি প্রক্রিয়ায় নিষ্পত্তির জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে দুদকের তলবে আসা উচিত।

তিনি বলেন, সোমবার তিনি দুদকে হাজির না হয়ে চিঠি পাঠিয়ে ঈদের পরে হাজির হবেন বলে জানিয়েছেন। ওমরাহ পালন করতে সৌদি আরব যাবেন বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

সরকারি সম্পদ আত্মসাতের মাধ্যমে শত কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ তদন্তের জন্য গতবছরের ১৩ সেপ্টেম্বর রুহুল আমিন হাওলাদারকে প্রথম তলব করে দুদক।

কিন্তু সে সময় নির্বাচনের প্রস্তুতির কারণ দেখিয়ে দুদকে হাজির না হয়ে তিনি হাজিরা থেকে অব্যাহতির আবেদন করেন।

এরপর তাকে ফের চিঠি পাঠান দুদকের উপ পরিচালক সৈয়দ আহমদ। ২৮ মার্চ হাওলাদারকে সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয় সে নোটিশে

ওই নোটিশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাওলাদার রিট আবেদন করলে আদালত প্রাথমিক শুনানি নিয়ে চার সপ্তাহের জন্য স্থগিত করে দিয়েছিলেন।

এরপর সে স্থগিতাদেশটি গত ২৮ এপ্রিল স্থগিত করেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। এর ফলে হাওলাদারকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদে আর কোনো আইনি বাধা থাকে না।