চামড়া শিল্পের দুঃসময়

আগের সংবাদ

শিবগঞ্জে মামীকে হত্যার পর ভাগ্নের আত্মহত্যা

পরের সংবাদ

চামড়া শিল্পকে রক্ষায় দরকার বিশেষ যত্ন : শাহীন আহমেদ

প্রকাশিত হয়েছে: মে ১৪, ২০১৯ , ১:৩৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: মে ১৪, ২০১৯, ১:৩৩ অপরাহ্ণ

Avatar

চামড়া শিল্প ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। এ সময় গুরুত্বপূর্ণ এ শিল্প খাতের প্রতি সরকারের বিশেষ যত্ন দরকার বলে মনে করেন বাংলাদেশ ট্যানার্স এসোসিয়েশনের (বিটিএ) সভাপতি শাহীন আহমেদ। একই সঙ্গে এ খাতের ব্যবসায়ীদের আরো কর সুবিধা এবং রপ্তানিতে প্রণোদনার হার বাড়ানোর কথাও বলেছেন তিনি। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে একান্ত আলাপকালে গতকাল সোমবার এসব কথা বলেন তিনি।
বিশ^ব্যাপী চামড়া শিল্প খারাপ সময় পার করছে জানিয়ে শাহীন আহমেদ বলেন, নানা কারণে আমাদের এ শিল্প সংকটময় সময় পার করছে। বিশেষ করে হাজারীবাগ থেকে সাভারের ট্যানারি স্থানন্তরের পর থেকেই সংকট আরো বেড়েছে। যে কারণে আমরা আগামী বাজেটে কর ছাড়সহ কিছু সুবিধা দাবি করছি। তিনি বলেন, চামড়া শিল্পের সংকট আরো প্রকট হচ্ছে। সাভারে কারখানা স্থনান্তর, ব্যাংক ঋণ না পাওয়া, রপ্তানি অর্ডার চলে যাওয়া এসবের সঙ্গে এখানে রয়েছে দক্ষ শ্রমিকের সংকট। এসব সংকট কাটিয়ে না উঠতে পারলে এ শিল্প একদিন পাট শিল্পের মতো আমাদের হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে।
শাহীন আহমেদ বলেন, সাভারে চামড়া শিল্প নগরী স্থাপনের আগে উদ্যোক্তাদের বলা হয়েছিল, কর অবকাশ সুবিধা দেয়া হবে। এখনো সেটা করা হয়নি। স্থাপনা নির্মাণের ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট দিতে হচ্ছে। এতে উদ্যোক্তাদের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে। একটি কাঁচা চামড়া প্রক্রিয়াজাত করতে ৩১ ধরনের কেমিক্যাল লাগে। ১৫৫টি ট্যানারির মধ্যে এসব কেমিক্যাল বন্ডের আওতায় আছে মাত্র ৩০টি প্রতিষ্ঠান। বাকিগুলোকে শুল্ক-কর দিয়ে আনতে হয়। শুধু এ কারণে অনেক ট্যানারি বন্ধের পথে। এ সমস্যা সমাধানে সাভারের চামড়া শিল্প নগরীকে বন্ডেড ওয়্যারহাউজ ঘোষণা করা যেতে পারে।
বিটিএ সভাপতি বলেন, সারা বিশ্বে বাংলাদেশের চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এ চাহিদা অনুযায়ী যদি আমরা চামড়াজাত পণ্য রপ্তানি করতে পারি তাহলে অর্থনীতি আরো এগিয়ে যাবে। এ জন্য এখাতকে বাঁচাতে হলে সরকারকে নগদ প্রণোদনা দিতে হবে।
বিটিএ সভাপতি আরো বলেন, সাভারে পরিকল্পিত ট্যানারি শিল্প গড়ে না উঠার দায় বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশনের (বিসিক)। ভুল তথ্য দিয়ে ট্যানারি মালিকদের সেখানে স্থানান্তর করা হয়েছিল। বারবার সময় বাড়িয়েও এ পরিকল্পিত শিল্প নগরীর কাজ শেষ না হওয়ার দায় বিসিকের।
তবে এই সংকট কাটাতে সরকার নানা উদ্যোগ নিয়েছে জানিয়ে শাহীন আহমেদ বলেন, সরকারের ইতিবাচক এসব উদ্যোগ বাস্তবায়ন হলে প্রতিকূল সময় পার করতে পারবে চামড়া শিল্প।