খুলনায় এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা

আগের সংবাদ

মান্নাকে তিন মাসের জন্য পাসপোর্ট ফেরত দিতে আদালতের নির্দেশ

পরের সংবাদ

রাঙ্গামাটিতে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা

বৌদ্ধ মন্দিরসহ উপাসনালয়ে নিরাপত্তা জোরদার

প্রকাশিত হয়েছে: মে ১৩, ২০১৯ , ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: মে ১৩, ২০১৯, ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ

Avatar

আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠীর দেয়া হুমকির পরিপ্রেক্ষিতে রাঙ্গামাটি জেলার বৌদ্ধবিহার ও বিভিন্ন ধর্মীয় উপাসনালয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। আগামী ১৮ মে পাহাড়ে অনুষ্ঠিতব্য শুভ বৌদ্ধ পূর্ণিমা অনুষ্ঠানে আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস কর্তৃক সশস্ত্র হামলা চালানো হতে পারে এমন হুমকির বার্তা পাওয়ার পর নড়ে চড়ে বসেছে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসন। গতকাল রবিবার রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় রাঙ্গামাটির পুলিশ সুপার মো. আলমগীর কবির এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, পাহাড়ে বসবাসরত সব মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ইতোমধ্যেই রাঙ্গামাটির সব উপাসনালয়ে নজরদারি বৃদ্ধির পাশাপাশি রাঙ্গামাটি শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে ব্যাপক হারে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার কথা জানান রাঙ্গামাটির পুলিশ সুপার মো. আলমগীর কবীর। রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে পুলিশ সুপার আলমগীর কবীর, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. নজরুল ইসলাম, পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডা. নীহার রঞ্জন নন্দীসহ জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা ও প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধিসহ রাঙ্গামাটির সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
জেলা আইনশৃঙ্খলা-বিষয়ক সভায় পুলিশ সুপার জানান, দেশের স্বার্থে জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিতে দিন-রাত সার্বক্ষণিকভাবে চেকপোস্টের মাধ্যমে চেক করা হবে। কাউকেই সন্দেহের বাইরে রাখা হবে না জানিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে যা যা করণীয় তার সর্বোচ্চটুকু প্রয়োগ করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এ লক্ষ্যে রাঙ্গামাটির ৫ শতাধিকেরও অধিক বৌদ্ধধর্মীয় উপাসনালয়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। প্রয়োজন অনুসারে জেলার যে কোনো প্রান্তেই যে কোনো সময় অস্থায়ী চেকপোস্ট বসিয়ে পুলিশ নিরাপত্তা কার্যক্রম চালিয়ে যাবে। সর্বনিম্ন থেকে সর্বোচ্চ পর্যায়ের সব ধরনের লোকজনকে নিরাপত্তাবেষ্টনীর মধ্যে আনা হবে এবং চেক করা হবে জানিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, এ ক্ষেত্রে মুসলিম-বৌদ্ধ-হিন্দু-খ্রিষ্টান ধর্মীয় গুরুরাও বাদ
পড়বেন না। সভায় প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষও আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসর হামলার হুমকির কথা স্বীকার করে বলেন, প্রতিটি স্তরে আমাদের গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি করা হয়েছে। সন্দেহভাজন কাউকে দেখামাত্র আমরা আমাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। এ ছাড়া রাঙ্গামাটির প্রতিটি জনগণকে এই হুমকি সম্পর্কে সচেতন থাকতে হবে বলেও তিনি মত ব্যক্ত করেন।