দ্বিতীয় ম্যাচেও ফিফটি সৌম্যর

আগের সংবাদ

দুর্নীতিবাজ যেই হোক তাকে শাস্তি পেতে হবে: রাষ্ট্রপতি

পরের সংবাদ

উত্তরবঙ্গবাসীর সুখে-দুঃখে পাশে থাকবে জাপা: জিএম কাদের

প্রকাশিত হয়েছে: মে ১৩, ২০১৯ , ৯:৫২ অপরাহ্ণ | আপডেট: মে ১৩, ২০১৯, ৯:৫৮ অপরাহ্ণ

Avatar

জাতীয় পার্টিকে (জাপা) উত্তরবঙ্গবাসী নিজেদের মঞ্চ মনে করেন বলে মন্তব্য করেছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিএম কাদের। আজ সোমবার (১৩ মে) শহরের টাউন হল মিলনায়তনে রংপুর জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টি আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

জিএম কাদের বলেন, জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠার পর থেকে উত্তরবঙ্গবাসীর সুখে-দুঃখে পাশে আছে। প্রতিষ্ঠার পর ক্ষমতায় থাকার সাড়ে নয় বছরে দেশে অর্থনৈতিক উন্নয়ন, আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করেছিল। উত্তরের যত উন্নয়ন হয়েছে তা জাপার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের প্রচেষ্টায় হয়েছে। আগামীতেও জাতীয় পার্টি এগিয়ে গেলে উত্তরের উন্নয়ন হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘উত্তরবঙ্গের মানুষ আজ বঞ্চিত, অবহেলিত। কারণ তাদের রাজনৈতিক মঞ্চ শক্তিশালী নয়। প্রভাবশালী কোনো নেতা না থাকায় উত্তরবঙ্গের এ শোচনীয় অবস্থা বলে তিনি মন্তব্য করেন।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ ও রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, রংপুরের উন্নয়নে জাতীয় পার্টি সদা প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আপনারা সবাই দোয়া করবেন আমাদের প্রিয় নেতা এরশাদের জন্য। রোগমুক্তির মাধ্যমে তিনি যেন আবার আমাদের মাঝে ফিরে আসতে পারেন।

মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াছির ও জেলা জেলা জাপার সাধারণ সম্পাদক ফখর-উজ-জামান জাহাঙ্গীরের সঞ্চালনায় এবং রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফার সভাপতিত্বে ইফতার ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন জেলা যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাক, সদর উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব মাসুদার রহমান মিলন, মহানগর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন, রংপুর জাতীয় পার্টির সহ-সভাপতি ও সাবেক ভিপি আলাউদ্দিন মিয়া, পীরগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান মাহবুবার রহমান, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজলী বেগম, মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির আহ্বায়ক শামীম সিদ্দিকী, জেলা যুবসংহতির সাধারণ সম্পাদক হাসানুর নাজিম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক পার্টির আহ্বায়ক নুর ইসলাম, মহানগর ছাত্রসমাজের সভাপতি ইয়াছির আরাফাত আসিফসহ আট উপজেলা সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকরা।