মা ও মেয়ের যুগলবন্দি

আগের সংবাদ

রাজধানীতে পাসপোর্টসহ ২৬ রোহিঙ্গা আটক

পরের সংবাদ

সিনেমায় মা-ছেলের রসায়ন

প্রকাশিত হয়েছে: মে ১১, ২০১৯ , ৩:৪৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: মে ১১, ২০১৯, ৩:৪৪ অপরাহ্ণ

Avatar

মে মাসের দ্বিতীয় রবিবার মা দিবস। সিনেমায় নায়ক ও মায়ের রসায়ন সবসময়ই দর্শকদের আগ্রহের বিষয়বস্তু। বিশেষ কিছু ছবিতে এই রসায়ন ছুঁয়েছে চূড়ান্ত মাত্রা। নায়ক লড়াই করেছে মায়ের জন্য। গরম সংলাপে কাঁপিয়েছে পর্দা। আবেগে ভিজেছে ড্রেস সার্কেল থেকে প্রথম শ্রেণি। এমনই কিছু ছবির কথা এই আয়োজনে জানাচ্ছেন স্বাক্ষর শওকত

শবনম-মান্না, আম্মাজান
ভক্তদের অনেকেই মনে করেন, প্রয়াত নায়ক মান্নার সেরা অভিনয়ে সমৃদ্ধ কাজী হায়াত পরিচালিত ‘আম্মাজান’। এ ছবিতে দীর্ঘদিন পর রুপালি পর্দায় ফেরেন শবনম। ধারণাও করা যায়নি, তাকে মান্নার মা হিসেবে দর্শকরা এত পছন্দ করবেন। মায়ের হুকুমকে পাক-পবিত্র মনে করে মান্না। সম্ভ্রম হারানো মায়ের দুঃখ মুছে দিতে লাঞ্ছিতা মেয়েদের পাশে দাঁড়ায় সে। সন্তানের রক্তপাত পছন্দ করেন না শবনম। আড়াই ঘণ্টা ধরে মা-ছেলের এক করুণ পরিণতির দিকে ক্রমশ এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গে একাত্ম হয়ে যান দর্শকরা। সুপারহিট ছবির হিট গানগুলোর মধ্যে ‘আম্মাজান’ গানটি গত কয়েক দশকের মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় গান।

ফেরদৌসী মজুমদার-রুবেল, দমকা
নব্বই দশকের মাঝামাঝিতে মুক্তি পায় আব্দুল্লাহ আল মামুন পরিচালিত ‘দমকা’। তার পছন্দের অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদার এ ছবিতে মায়ের চরিত্রে। তার সন্তানের চরিত্রে রুবেল। এক ইস্পাতকঠিন মায়ের চরিত্রে ফেরদৌসীর অভিনয় প্রাণবন্ত। তার একান্ত অনুগত ছেলের চরিত্রে অন্যান্য ছবির ছেয়ে আলাদা রুবেল। মা-ছেলের প্রেম-প্রতিশোধ-মিলন-টানাপড়েনের ফর্মুলায় অন্য রকম ছবি ‘দমকা’।

আনোয়ারা-ডিপজল, মায়ের হাতে বেহেস্তের চাবি
মায়ের মমতার সঙ্গে তুলনীয় নয় জগতের কোনো কিছুই। আর এই মমতা ধাবিত হতে পারে গর্ভজাত সন্তানের বাইরেও। এমনই মমতার সন্ধান পান ডিপজল। আনোয়ারার মমতাধন্য ডিপজল মায়ের জন্য সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার। বিপদে আশ্রয়দাত্রীর পাশে দাঁড়ান, যখন মায়ের পেটের সন্তানরা তার পাশ থেকে সরে যান। এফ আই মানিক পরিচালিত ‘মায়ের হাতে বেহেস্তের চাবি’তে শাকিব-অপু জুটি থাকলেও ছবিটি আনোয়ারা ও ডিপজলের আবেগমথিত অভিনয়ের জন্যই আলাদা।

ফালগুনী হামিদ-সালমান শাহ, বুকের ভেতর আগুন
মায়ের অধিকারের জন্য অনেক ছবিতেই প্রতিবাদী হয়েছেন অমর নায়ক সালমান শাহ। কিন্তু ‘বুকের ভেতর আগুন’ ছবির মতো মায়ের জন্য এত উৎসর্গী মনোভাব তার অভিনীত আর কোনো চরিত্রেই ছিল না। ফালগুনী হামিদ কালেভদ্রে সিনেমায় অভিনয় করেন। ছটকু আহমেদের পরিচালনায় তিনি পেয়েছিলেন মনের মতো একটি চরিত্র। মায়ের অধিকার ফিরিয়ে দিতে সালমান শাহ গল্পের প্রথমাংশে এবং শেষাংশে ফেরদৌস যুদ্ধ করেন। মা-ছেলের গল্পের পাশাপাশি ছিল একটি মিষ্টি প্রেমের গল্পও।

ববিতা-শাকিব খান, মা আমার স্বর্গ
জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘মা আমার স্বর্গ’-এ ববিতার দ্বৈত চরিত্র। শাকিব খানের মা মারা গেলে সে বিপথে চলে যায়। সুপথে ফিরে আসে ‘হারানো মা’ ফিরে এলে। ববিতার সঙ্গে শাকিবের রসায়ন দর্শকদের মনে ধরে। গতানুগতিক ছবি থেকে কিছুটা হলেও আলাদা ‘মা আমার স্বর্গ’। মায়ের জন্য মারামারি-হাতাহাতি কিছুই করে না ছেলে। এ ছবির গল্প, এক মা-হারা ছেলের বুকের বেদনা থেকে উৎসারিত।

ডলি জহুর-মারুফ, মা আমার জান
অনেকগুলো ছবিতে ডলি জহুরের ছেলের চরিত্রে অভিনয় করেছেন কাজী মারুফ। এই ছবিগুলোর প্রতিটিতেই মারুফ মায়ের চোখের জল মুছে দিতে উদ্যত হয়েছেন। অস্ত্র হাতে নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন শত্রুদের ওপর। আহমেদ নাসির পরিচালিত ‘মা আমার জান’ ছবিতেও মারুফ মায়ের জন্য চিৎকার করেছেন। হাতিয়ার হাতে লড়াই করেছেন।

নাসিমা খান-রিয়াজ, সুন্দরীবধূ
মায়ের চরিত্রে এত বৈচিত্র্য খুব কম পাওয়া যায়। নেতিবাচক একটি চরিত্র অনেক ঘাত-প্রতিঘাতের পর ইতিবাচক চরিত্রে রূপ নেয়। মন্দ মা হলেও নাসিমা খানের কথা অক্ষরে অক্ষরে পালন করে রিয়াজ। মা-ভক্ত এক সরল যুবকের চরিত্রে তার অভিনয়ও ছিল ব্যতিক্রমী। মা-ছেলের অদ্ভুত রসায়ন দর্শকদের ভালো লাগে। ভালো লাগে মা-ছেলের দ্বন্দ্বে পুত্রবধূর ভূমিকায় শাবনূরের অভিনয়ও। ‘সুন্দরীবধূ’ পরিচালনা করেছেন আমজাদ হোসেন।

  • আরও পড়ুন
  • লেখকের অন্যান্য লেখা