নিজের বায়োপিকের পরিচালক নিজেই!

আগের সংবাদ

দেশ এগুচ্ছে, সমাজ কি এগুচ্ছে?

পরের সংবাদ

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে নাট্যোৎসব

প্রকাশিত হয়েছে: মে ৪, ২০১৯ , ৮:৩২ অপরাহ্ণ | আপডেট: মে ৪, ২০১৯, ৮:৩৩ অপরাহ্ণ

Avatar

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) নাট্যকলা বিভাগ আয়োজন করেছে পাঁচ দিনব্যাপী নাট্যোৎসব। এতে বিভাগের শিক্ষার্থীরা দুটি নাটকের ৬টি প্রদর্শনী মঞ্চস্থ করছে। গত বৃহস্পতিবার এ নাট্যোৎসব শুরু হয়েছে, চলবে ৬ মে পর্যন্ত। এ উৎসবে বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হচ্ছে টমাস কিড রচিত ‘দ্যা স্প্যানিশ ট্র্যাজেডি’ ও বের্টোল্ট ব্রেখট রচিত ‘জননী সাহসিকা’। এরই মধ্যে উৎসবের প্রথম দুই দিন মঞ্চস্থ হয়েছে কৃপাকনা তালুকদারের নির্দেশনায় ‘দ্যা স্পেনিশ ট্র্যাজেডি’ নাটকটি। এতে অভিনয় করছেন নাট্যকলা বিভাগের চতুর্থ আবর্তনের শিক্ষার্থীরা। এই নাটকের প্রথম ও দ্বিতীয় প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয় ২ ও ৩ মে। অন্যদিকে ‘জননী সাহসিকা’ নাটকের প্রথম প্রদর্শনী হবে ৪ মে, দ্বিতীয় প্রদর্শনী ৫ মে, তৃতীয় ও চতুর্থ প্রদর্শনী ৬ মে অনুষ্ঠিত হবে। এতে অভিনয় করছেন নাট্যকলা বিভাগের দ্বিতীয় আবর্তনের শিক্ষার্থীরা। নাটকটি নির্দেশনা দিচ্ছেন সঞ্জিব কুমার দে। এটি লিখেছেন বার্টোল্ট ব্রেখট। জানা গেছে, নাট্যকলা বিভাগের পরীক্ষা প্রযোজনা হিসেবে মঞ্চস্থ হচ্ছে এই দুটি নাটক। জবি নাট্যকলা বিভাগের সভাপতি কামাল উদ্দিন কবির বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগ নাট্যোৎসব আয়োজনের প্রস্তুতি নিয়ে নানামুখী সংকটের মুখোমুখি হয়েছে। ভালো থিয়েটার করার জন্য যে ধরনের মঞ্চ প্রয়োজন বিশ্ববিদ্যালয়ে তার কিছুই নাই। কিন্তু আমাদের ইচ্ছে আছে প্রবল। আমরা এর মধ্যেই নাট্যোৎসব করছি এবং এ ধারা অব্যাহত রাখব। পুরান ঢাকায় জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয় কেন্দ্রিক সাংস্কৃতিক যে বলয় তৈরির প্রত্যয় নিয়েছি তা নাট্যোৎসবের মাধ্যমে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। ক্যাম্পাসের যে কোনো স্থানে একটি উন্মুক্ত মঞ্চ এখন সময়ের দাবি। বিশ্ববিদ্যালয়ের একমাত্র অডিটোরিয়ামটির ওপর অনেক চাপ কমাতে পারে একটি মুক্তমঞ্চ। কারণ এই বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিটি অনুষ্ঠানের জন্য আমরা অডিটোরিয়ামের ওপর নির্ভরশীল হয়ে থাকতে হয়। একটি মঞ্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে সঙ্গে নাট্যকলা বিভাগের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

ছবি তুলেছেন : কামাল উদ্দিন কবির