বাংলাদেশও ঝুঁকির মধ্যে আছে : ইশফাক ইলাহি চৌধুরী

আগের সংবাদ

আহমেদ শরীফের অনুদান গ্রহণ নিয়ে বিতর্ক

পরের সংবাদ

টাইগারদের প্রস্তুতি শুরু

প্রকাশিত হয়েছে: এপ্রিল ২৩, ২০১৯ , ৩:১৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: এপ্রিল ২৩, ২০১৯, ৩:২৪ অপরাহ্ণ

Avatar

এবার জমজমাট ওয়ানডে বিশ্বকাপের আসর বসছে ইংল্যান্ড-ওয়েলসে। আসরটির পর্দা উঠতে আর বাকি ৩৭ দিন। এবার আসন্ন বিশ্বকাপের আসরে ভালো খেলতে মুখিয়ে আছে বাংলাদেশ। সেই লক্ষ্যে ১৬ এপ্রিল বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের এবং আয়ারল্যান্ডের ত্রিদেশীয় সিরিজের জন্য বাড়তি ২ জনসহ মোট ১৭ জনের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। গতকাল মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টাইগারদের প্রস্তুতি ক্যাম্প শুরু হয়েছে। তবে ক্যাম্পের প্রথম দিনে অংশ নিয়েছেন মাত্র ৫ জন ক্রিকেটার। এই ৫ ক্রিকেটার হলেন- তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, রুবেল হোসেন ও মুস্তাফিজুর রহমান। এ ছাড়াও অনুশীলনে উপস্থিত ছিলেন প্রধান কোচ স্টিভ রোডস, পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ, ব্যাটিং পরামর্শক নিল ম্যাকেঞ্জিসহ কোচিং স্টাফের সদস্যরা।
অবশ্য প্রস্তুতি ক্যাম্পের স্কোয়াডে কেন সিংহভাগ ক্রিকেটাররা নেই তা হয়তো সবাই জানেন। চলছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সেরা ছয়ের লড়াই। আজ হবে শিরোপার নিষ্পত্তি লড়াই। যে কারণে গতকাল শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি সেরে নিচ্ছে দলগুলো। তাই বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা কিছু খেলোয়াড়রা ডিপিএলে যোগ দিয়েছেন নিজ নিজ দলের অনুশীলনে।
গতকাল সকাল সাড়ে ৮টায় প্রধান কোচ স্টিভ রোডসের কাছে রিপোর্টিং শেষে ৯টা থেকে অনুশীলন শুরু করেন তামিম-মুশফিকরা। যদিও ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের জন্য আটকে থাকা ক্রিকেটাররা রিপোর্টিং শেষেই চলে যান। প্রিমিয়ার ক্রিকেটে ব্যস্ত থাকায় প্রথম দিনের অনুশীলনে পাওয়া যাবে না সব ক্রিকেটারদের। তা আগেই জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক। গত পরশু তিনি বলেছেন, এটা এই মুহূর্তে বলা মুশকিল। প্রিমিয়ার লিগ কিন্তু শেষ হবে ২৩ তারিখ। সেই হিসেবে কোচেরও প্ল্যান একটু চেঞ্জ করেছে। ২৮-২৯ তারিখে পুরো দল এক সঙ্গে প্র্যাকটিস করবে। প্রিমিয়ার লিগ শেষ করার পর এক-দুই দিনের রেস্টের ব্যাপার আছে। কোচ সেভাবে প্ল্যান করছে। ২২ এপ্রিল রেস্ট অব দ্য প্লেয়ার যারা খেলেনি ওরা প্র্যাকটিস করবে। ২৩ তারিখেও ওরা প্র্যাকটিস করবে। প্ল্যানটা কোচের, আমার পক্ষে আসলে বলা মুশকিল।
জাতীয় দলের ক্যাম্পে যে কয়জন যোগ দিয়েছেন তারা শুরুতেই মাঠে বোলিং, ব্যাটিংয়ের অনুশীলনে নেমেছিলেন। অথচ কথা ছিল প্রথমদিনে সবার আগে ফিটনেস নিয়ে কাজ করা হবে।
পেস বোলিং কোচ ওয়ালশের কণ্ঠে ঝরল লম্বা সময়ের সফরে ভালো করতে হলে ফিট থাকার বিকল্প নেই। টাইগার পেসারদের চোট তার কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে। তবে বিশ্বকাপের আগেই সবাইকে ফিট পাবেন বলে আশা করছেন ওয়ালশ। তিনি বলেন, এবারের বিশ্বকাপ অনেক লম্বা। ৯টা করে ম্যাচ খেলতে হবে সবাইকে। এই অবস্থায় ক্রিকেটারদের ফিট থাকাটায় বড় একটা চ্যালেঞ্জ। স্কোয়াডে থাকা সব পেসাররাই ছোটখাটো চোটে ভুগছে। এটা আমার জন্য দুশ্চিন্তার কারণ। আশা করি, সফরে যাওয়ার আগেই সবাই সুস্থ হয়ে উঠবে।
সাধারণত ইংল্যান্ডের উইকেট বোলিং সহায়ক হলেও বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের জন্যই বেশি কিছু থাকবে পিচে বলে মনে করেন এই ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি পেসার। তার মতে বুদ্ধিদীপ্ত ও কৌশলী হয়ে খেললে বিশ্বকাপে সাফল্য পাওয়া খুব কঠিন হবে না।