চাঁপাইনবাবগঞ্জে ধর্ষণের পর হত্যারদায়ে পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড

আগের সংবাদ

যেকোন মূহুর্তে গ্রেপ্তার হচ্ছেন রুহুল আমিন

পরের সংবাদ

এনবিআর চেয়ারম্যান

উৎপাদন ও সংযোজন শিল্পের কর কাঠামোয় পার্থক্য থাকবে

কাগজ প্রতিবেদক :

প্রকাশিত হয়েছে: এপ্রিল ১৮, ২০১৯ , ৩:১৬ অপরাহ্ণ

উৎপাদনশীল শিল্পকে গুরুত্ব দিয়ে আগামী বাজেটে উৎপাদক ও সংযোজন শিল্পের জন্য কর কাঠামোয় পার্থক্য থাকবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। গতকাল বুধবার এনবিআর সম্মেলন কক্ষে ইলেকট্রনিক্স এবং ইলেকট্রিক্যাল পণ্য উৎপাদক ও আমদানিকারকদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত প্রাক-বাজেট আলোচনায় সভাপতির বক্তব্যে চেয়ারম্যান এ কথা বলেন।
মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, আমরা দেশীয় শিল্প প্রসারের উদ্দেশ্যে তাদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছি। তবে সম্প্রতি আমাদের নজরে এসেছে অনেক বড় বড় ব্রান্ড সংযোজন কারখানা স্থাপন করে উৎপাদকের যেসব সুবিধা রয়েছে সেগুলো নিচ্ছে। এতে উৎপাদনমুখী শিল্প বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে। এই সমস্যা মোকাবেলাই আমরা আগামী বাজেটে সংযোজন শিল্পকে আলাদা করে তাদের জন্য নতুন কর কাঠামো চালু করব। অনেক বড় বড় ব্রান্ড রয়েছে যারা বাংলাদেশে সংযোজন কারখানা স্থাপন করেছে। আমি তাদের ম্যানুফেকচারিং কারখানা স্থাপনের আহবান জানাচ্ছি।
তিনি বলেন, সরকারের নানা সুবিধা দেয়ার জন্য ইতোমধ্যে বিভিন্ন শিল্পের ব্যাপক উন্নয়ন ঘটেছে। বিশেষ করে হালকা প্রকৌশল শিল্পে অভাবনীয় সাফল্য এসেছে। আমরা রপ্তানি পণ্যের বহুমুখীকরণে জোর দিচ্ছি। তৈরি পোশাক শিল্পের ওপর পুরোপুরি নির্ভরশীল থাকা যাবে না। এ খাতে কোনো প্রতিযোগী এলে বা এ শিল্পের কোনো সমস্যা দেখা দিলে আমাদের রপ্তানি বাণিজ্যে ধস নামবে। ফলে আমরা চাচ্ছি রপ্তানি পণ্যের ঝুড়িতে আরো নতুন নতুন পণ্য যুক্ত করতে চাচ্ছি। এ ক্ষেত্রে ইলেকট্রনিক্স এবং ইলেকট্রিক্যাল পণ্য গুরুত্ব পেতে পারে। টিভি, ফ্রিজ, মোবাইলের ব্যাপক চাহিদা রয়েছ। যারা এসব পণ্য রপ্তানি করতে চাই তাদের জন্য আমরা বন্ড সুবিধা, কর ছাড়সহ সব ধরনের সুবিধার জন্য সরকারের কাছে সুপারিশ করব।
তিনি বলেন, এনবিআর শুধু রাজস্ব সংগ্রহের কাজ করে না, শিল্পায়নের জন্যও কাজ করছে। এর আগে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন দাবি উপস্থাপন করা হয়।