বাউফলে সিজারের সময় নবজাতক ও মায়ের মৃত্যু

আগের সংবাদ

দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা জোরদার করতে চাই : ভারতীয় হাইকমিশনার

পরের সংবাদ

বিশ্বকাপের তিন মাস্কট

প্রকাশিত: এপ্রিল ৩, ২০১৯ , ২:৪৯ অপরাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ৩, ২০১৯ , ২:৪৯ অপরাহ্ণ

ফুটবল বিশ্বকাপে ১৯৬৬ সাল থেকে চালু হয়েছে মাস্কটের প্রচলন। এখন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত ফিফা বিশ্বকাপের একুশ আসরের মধ্যে মাস্কট ব্যবহৃত হয়েছে চৌদ্দ আসরে। ক্রিকেটে এগারোটি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হলেও মাস্কট ব্যবহৃত হয়েছে মাত্র তিন আসরে। ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসে অনুষ্ঠিতব্য ১২তম বিশ্বকাপকে সামনে রেখে ভোরের কাগজের প্রতিদিনকার আয়োজনের আজকের লেখায় থাকছে ক্রিকেট বিশ্বকাপের মাস্কটের কথা।
আইসিসি বিশ্বকাপে সর্বপ্রথম মাস্কট প্রচলন হয় ২০০৩ সালের টুর্নামেন্টে। সেবার বিশ^কাপ বসেছিল আফ্রিকার তিন দেশ- দক্ষিণ আফ্রিকা, কেনিয়া এবং জিম্বাবুয়েতে। ওই আসরে মাস্কটের নাম ছিল ড্যাজল। ২০০২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে জেব্রা আকৃতির এ মাস্কট উন্মোচন করে দক্ষিণ আফ্রিকা। এরপর ২০০৭ সালের আসরেও মাস্কটের ব্যবহার হয়েছিল। সেবার বিশ্বকাপ আয়োজিত হয় টুর্নামেন্টটির প্রথম দুই আসরের শিরোপা ঘরে তোলা ওয়েস্ট ইন্ডিজে। ওই টুর্নামেন্টের মাস্কটের নাম ছিল মেলো। এটি ছিল কমলা রংয়ের কুকুর সদৃশ একটি প্রাণীর প্রতিচ্ছবি। সেবার শ্রীলঙ্কাকে ৫৩ রানে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া।
এ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার ২৮১ রানের জবাবে মাত্র ৩৬ ওভারেই গুটিয়ে যায় লঙ্কানদের ইনিংস। ২০১১ সালের বিশ্বকাপে টানা তৃতীয়বারের ক্রিকেটের বড় মঞ্চে মাস্কট ব্যবহৃত হয়। এ আসরটি বসেছিল ভারত, বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কায়। এ আসরের মাস্কটের নাম ছিল স্টাম্পি, যা ছিল একটি তরুণ হাতির প্রতিচ্ছবি। ২০১০ সালের ২ এপ্রিল শ্রীলঙ্কার কলম্বোয় এটি সর্বপ্রথম প্রদর্শন করা হয়। তবে তখনো এর নাম ঠিক করা হয়নি।
একই বছরের আগস্ট মাসে আইসিসির উদ্যোগে অনলাইন ভোটাভুটির মাধ্যমে এর নাম ঠিক করা হয়েছিল। এই মাস্কটের জন্য ধারণা নেয়া হয়েছিল মূলত ১৯৮২ সালে নয়াদিল্লিতে এশিয়ান গেমসের মাস্কট থেকে। ওই আসরের মাস্কট হিসেবে হাতির প্রতিচ্ছবি ব্যবহার করা হয়েছিল, যা দ্বারা বোঝানো হয়েছিল ক্রিকেটের উৎসাহ-উদ্দীপনাকে। এরপর যৌথভাবে অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডে বিশ্বকাপের ১১তম আসর বসলেও সেখানে মাস্কটের ব্যবহার ছিল না। মাস্কট নেই ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসে বসতে যাওয়া ক্রিকেট বিশ্বকাপেও।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়