পুনর্নির্বাচনের দাবিতে চলা কর্মসূচি স্থগিত ঘোষণা

আগের সংবাদ

নিউজিল্যান্ড ভ্রমণে বাংলাদেশিদের সতর্ক থাকার নির্দেশ

পরের সংবাদ

ইথিওপিয়ান ও লায়ন এয়ারের বিমান বিধ্বস্তে ‘সাদৃশ্য’ রয়েছে

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত হয়েছে: মার্চ ১৮, ২০১৯ , ৬:২৬ অপরাহ্ণ

গত সপ্তাহে ইথিওপিয়ান এয়ারের প্লেন ও পাঁচ মাস আগে গত বছরের অক্টোবরে লায়ন এয়ারের বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় ‘সাদৃশ্য’ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে ইথিওপিয়ান পরিবহন মন্ত্রণালয়।

ইথিওপিয়ান এয়ারের বিধ্বস্ত বিমান ‘বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮’র ব্ল্যাক বক্স তদন্ত করে প্রাথমিক এ তথ্য জানা গেছে। এরইমধ্যে ‘ইটি৩০২’ ফ্লাইটের ব্ল্যাক বক্স ও সংশ্লিষ্ট সব তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দাগমাতি মোগেস নামে মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা।

তবে দু’টি বিমানের বিধ্বস্তের ঘটনায় কি ‘সাদৃশ্য’ পাওয়া গেছে তা খোলাসা করে বলেলনি ওই কর্মকর্তা। ‘পরবর্তী তদন্তের জন্য’ বিষয়গুলো গুরুত্বপূর্ণ বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত ১০ মার্চ ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি বোয়িং উড্ডয়নের ৬ মিনিটের মধ্যে বিধ্বস্ত হয়ে এর ১৫৭ আরোহী সবার মৃত্যু হয়। একই মডেলের আরেকটি বিমান বিধ্বস্ত হয়ে গত বছরের অক্টোবরে মৃত্যু হয় ১৮৯ আরোহীর। অপারেটর লায়ন এয়ারের বিমানটি উড্ডয়নের মাত্র ১৩ মিনিটের মাথায় জাভা সাগরে বিধ্বস্ত হয়।

তবে উড্ডয়নের পরপরই ইথিওপিয়ান এয়ারের পাইলট ‘যান্ত্রিক ক্রুটি’র কথা বলে ফেরত আসার অনুমতি চাইলে তা এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল রুম থেকে দেওয়া হয়।

এদিকে ছয় মাসের কম সময়ের ব্যবধানে একই মডেলের দু’টি প্লেন বিধ্বস্তের ঘটনায় একে একে বিশ্বের যেসব দেশ এ মডেলের বিমানে ফ্লাইট পরিচালনা করতো সেগুলো সব গ্রাউন্ডেড করে দেয়। আর দুর্ঘটনা দু’টির তদন্তে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেয় মার্কিন এয়ারক্রাফট নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং।