শনিবার থেকে  আন্দোলনে যাচ্ছে খাগড়াছড়ি শ্রমিক ইউনিয়ন

আগের সংবাদ

নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনের প্রচারনা তুঙ্গে,কদর বাড়ছে ভোটারদের

পরের সংবাদ

জিপির বিজ্ঞাপন প্রচারের নিষেধাজ্ঞা স্থগিতাদেশ হাইকোর্টের

প্রকাশিত হয়েছে: মার্চ ৪, ২০১৯ , ৫:০৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: মার্চ ৪, ২০১৯, ৫:০৪ অপরাহ্ণ

Avatar

এসএমপি অপারেটর গ্রামীণফোনের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপের পদ্ধতির বৈধতার বিষয়ে বিটিআরসিকে ব্যাখ্যা দিতে বলেছেন উচ্চ আদালত। একই সঙ্গে চার বিধিনিষেধের মধ্যে বিজ্ঞাপন প্রচারের নিষেধাজ্ঞা কার্যকরের ওপর স্থগিতাদেশ দেন হাইকোর্ট। এসব বিধিনিষেধ ১ মার্চ থেকে কার্যকর হওয়ার কথা। গ্রামীণফোনকে সিগনিফিকেন্ট মার্কেট প্লেয়ার (এসএমপি) ঘোষণার পর বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) ১৮ ফেব্রুয়ারি এসব বিধিনিষেধ আরোপ করে।

গ্রাহক বিচারে বৃহত্তম অপারেটর গ্রামীণফোন গত ২৫ ফেব্রুয়ারি দুটি বিষয় চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট আবেদন করে। ২৭ ফেব্রুয়ারি রিটের ওপর সংক্ষিপ্ত শুনানি শেষে আদালত উপরের দুই আদেশ দেন।

আদেশের সত্যায়িত অনুলিপি এখনও হাতে পাননি আইনজীবীরা। বিজ্ঞাপন প্রচারের ওপর বিধিনিষেধ আরোপকে অযৌক্তিক দাবি করে গ্রামীণফোনের আবেদন আমলে নিয়ে হাইকোর্ট এ বিষয়ে স্থগিতাদেশ দেন।

রিটের আরেক বিষয়ে এসএমপি নীতিমালার ৯ অনুচ্ছেদের উদ্ধৃতি দিয়ে গ্রামীণফোন বলেছে, নীতিমালা অনুসারে বিটিআরসি কোনো অপারেটরকে এসএমপি বা তাৎপর্যপূর্ণ অপারেটর হিসেবে ঘোষণা করলে কী ধরনের বিধিনিষেধ আরোপ করা হবে- সেটির একটি তালিকা অপারেটরটিকে দেবে। ১৫ দিনের মধ্যে অপারেটরটি এসব বিষয়ে ব্যাখ্যা দেবে।
অপারেটরটির ব্যাখ্যার পর এ বিষয়ে বিটিআরসি বিধিনিষেধগুলো আরোপ করতে পারে। কিন্তু তাদের ক্ষেত্রে নীতিমালার এ বিধান অনুসরণ করা হয়নি বলে রিটে উল্লেখ করে গ্রামীণফোন।

  • আরও পড়ুন
  • লেখকের অন্যান্য লেখা