সড়কের নিম্নমানের কাজ করার প্রতিবাদে শ্রীনগরে মানববন্ধন

আগের সংবাদ

বইমেলায় চলচ্চিত্র বিষয়ক নতুন বই

পরের সংবাদ

নানা মতের নানা বই..

প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৯ , ৫:০২ অপরাহ্ণ | আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৯, ৫:০২ অপরাহ্ণ

Avatar

শীতকে বিদায় জানিয়ে এসে গেছে ঋতুরাজ বসন্ত। বাঙ্গালীর প্রাণের মেলা মহান একুশে বইমেলা পৌছে গেছে তার শেষভাগে। প্রতিদিনই মেলায় প্রকাশিত হচ্ছে কিছুনা কিছু নতুন বই। তার মধ্য থেকে ১২টি আলোচিত বই আর্টিকেলটি রইলো ভোরের কাগজের পাঠকদের জন্য..

রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও আসেননি

মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, বাংলাদেশী থ্রিলার সাহিত্য জগতে এক অবিসংবাদিত নাম। বিশ্বমানের অসংখ্য জনপ্রিয় থ্রিলার অনুবাদ করার পর লিখেছেন নেমেসিস, কন্ট্রাক্ট, নেক্সাস, কনফেশন, করাচি, জাল, ১৯৫২ ও রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেন নি এর মত পাঠকপ্রিয় বই। তারই ধারাবাহিকতায় এবারে প্রকাশিত হলো বই রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও আসেননি। বইটির আগের পর্বে (রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেন নি) রহস্যময়ী মুশকান জুবেরিকে খুঁজে পায়নি গোয়েন্দা নুরে ছফা। এবারের পর্বে নুরে ছফা একা নয়,  প্রবল ক্ষমতাবান আরেকজনও মরিয়া হয়ে উঠেছে রহস্যময়ী এই নারীকে খুঁজে পেতে। সেই ক্ষমতাবানের সাহায্য নিয়ে নতুন উদ্যমে নেমে পড়ে ছফা, দ্রুতই তারা আবিষ্কার করে মুশকান সম্পর্কে এতোদিন যা জানতো সবটাই মিথ্যে। এভাবে একে একে রহস্যের জট খুলতে থাকে এবারের বইমেলার অন্যতম আলোচিত এই উপন্যাসটিতে। বইটি পাওয়া যাচ্ছে বাতিঘর প্রকাশনী স্টল নং ১১৫-১১৬ এ।

 

মস্তিষ্কের ক্যানভাস

মোটিভেশনাল স্পিকার হিসেবে খ্যাত সোলায়মান সুখন এর প্রথম বই মস্তিস্কের ক্যানভাস। তার ভিডিওর মিলিয়ন’স ভিউয়ের মত এবারের বইমেলায় তার বইয়ের জনপ্রিয়তাও হু-হু করে বাড়ছে। লেখক মেলায় আসলেই প্যাভিলিয়নের সামনে লেগে যাচ্ছে ভক্ত-পাঠকের লাইন। তার বানানো ভিডিওগুলোর মত বইটির টপিকও মোটিভেশন। সবচেয়ে ব্যতিক্রমী বিষয় হচ্ছে বইয়ের কোনো পাতায় কোনো টপিকের ধারাবাহিকতা নেই। সামাজিক যোগাযোগে মাধ্যমে তার লেখা জীবনবোধগুলোকেই একত্র করে ঢেলে দেয়া হয়েছে বইটিতে। এরমধ্যে কোনোটা লেখকের নিজের অভিজ্ঞতা, কোনোটা একটা অণুগল্প, কোনোটা মনের কোণে জমে থাকা অনুযোগে, কোনোটা আবার বাংলাদেশকে প্রচণ্ড ভালোবাসা একেকজন নাগরিকের। আলোচনার তুঙ্গে থাকা বইটি পাওয়া যাচ্ছে অধ্যয়ন প্রকাশনীতে।

 

প্যারাময় লাইফের প্যারাসিটামল

যাপিত জীবনের যাতনাকে প্যারা সম্বোধন করে লেখক ঝংকার মাহবুব লিখেছেন তার নতুন বই প্যারাময় লাইফের প্যারাসিটামল। ভবিষ্যতে কী হবো সেটা বুঝতে না পারা, নিজের চাইতেও কম কোয়ালিটির লোক থেকে জীবনে পিছিয়ে পরা, অপরিচিতদের সাথে কথা বলতে না পারা, এমনকি আজীবন একাকী থেকে যাওয়া সহ নানাবিধ যাতনা বা প্যারার প্যারাসিটামল তিনি নিয়ে এসেছেন বইটিতে। পুঁচকা করলে অডিট, বাড়বে ক্রেডিট; না থাকলে ফোকাস, কপাল হবে ফাটা বাশ; পাশ দাও মা ভিক্ষা, তিন মাস পর পরীক্ষা.. এমন মজার সব শিরোনামের আর্টিকেলে ঠাসা বইটি সহজেই তরুনসমাজের মন কেড়ে নিয়েছে। প্রবাসে থাকা এই লেখকের বইটি পাওয়া যাচ্ছে আদর্শ প্রকাশনীতে (স্টল নং ৫৪৫, ৫৪৬, ৫৪৭)।

 

অঙ্ক ভাইয়া

ঝংকার মাহবুব এর মত অঙ্ক ভাইয়া বইটির লেখক চমক হাসানও প্রবাসী বাংলাদেশী, তবে খ্যাতির পাল্লায় তিনি বেশ উপরে। অনলাইনে অভিনব উপায়ে গণিত পড়ানো চমক হাসান ইতিমধ্যেই খ্যাত হয়েছেন অনলাইন এডুকেটর হিসেবে। বাংলাদেশের আয়তন নাকি ক্ষেত্রফল, পেঁয়াজকুচি পদ্ধতিতে গোলকের আয়তন, পিথাগোরাস দিয়ে আইনস্টাইন, ফাংশনের বৃত্তান্ত, পৃথিবীর সুন্দরতম সমীকরণ, ঋনাত্মক সংখ্যার লসাগু-গসাগু, গিটারের গণিত, হাতে কলমে ঘনমূল, সাইন কসের নামরহস্য, লগ এর ভিতরের কথা, অসমতার চিহ্ন – এমন চিন্তাগুলো যদি আপনার মনে কৌতূহল জাগায়, লেখকের মতে এই বইটি তবে আপনার জন্য! এই বইটিও পাওয়া যাচ্ছে মেলার আদর্শ প্রকাশনীর স্টলে।

 

নির্বাসন

হুমায়ুন আহমেদের পরবর্তী লেখক প্রজন্ম হিসেবে খুব কম লেখকই উপন্যাস লিখে খ্যাতি অর্জন করেছেন। কিন্তু এই ছোট দলটির শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী লেখক সাদাত হোসাইন মেলায় পাঠকদের জন্য নিয়ে এসেছেন তার নতুন উপন্যাস নির্বাসন যা প্রকাশ পেয়েছে অন্যধারা প্রকাশনী (১৯৭, ১৯৮) থেকে। সাদাত হোসাইন প্রতিবছর একটি করে বড় পরিসরের উপন্যাস লিখে আসছেন এবং প্রতিবছর পাঠকের ভালোবাসায় বিক্রয় শীর্ষে রয়েছেন। আশা রাখা যায় নির্বাসনও তার ব্যতিক্রম হবেনা। প্রায় ৪০০ পৃষ্ঠার একটি বৃহৎ আখ্যান নির্বাসন উপন্যাসটিতে লেখক মূলত কণা ও মনসুরের দারুন এক উপাখ্যান বর্ণনা করেছেন।

 

বাংলাদেশের অধিনায়ক

প্রথম আলোর ক্রীড়া সাংবাদিক রানা আব্বাস বাংলাদেশ ক্রিকেটের সকল অধিনায়কের গল্প, সাক্ষাৎকার, ঘটনা দিয়ে সাজিয়েছে একটি পূর্নাঙ্গ বই যার নাম বাংলাদেশের অধিনায়ক। শামিম কবির থেকে আজকের মাশরাফি-সাকিব কিংবা মাহমুদউল্লাহ, ক্রিকেট মাঠে গত চার দশকে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ২০ জন। সাবেকদের কজনই-বা নিজ থেকে সরে যেতে পেরেছেন? আবার অনেকের অধিনায়কত্বকে রূপকথার গল্প হিসেবেও চালিয়ে দেওয়া যায়। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়কদের সেই জানা-অজানা গল্পকে দুই মলাটে বাঁধা হয়েছে শব্দের পর শব্দ গেঁথে। সব অধিনায়কই আবার কিছু গল্প শুনিয়েছেন নিজের জবানিতে। লেখকের সঙ্গে একান্ত কথােপকথনে উঠে এসেছে ক্রিকেটের অন্দরমহলের কত খাস খবর। ‘বাংলাদেশের অধিনায়ক’কে চাইলে বাংলাদেশ ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ইতিহাসও বলা যায়। বইটি যৌথভাবে প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট সাপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিসিএসএ) ও সমগ্র প্রকাশন। বইটি পাওয়া যাচ্ছে  মেলার ঐতিহ্য প্রকাশনী প্যাভিলিয়ন ৬-এ।

 

বিবিয়ানা

এবারের মেলায় যতগুলো বইয়ের প্রচ্ছদ নজর কেড়েছে তার মধ্যে অন্যতম কিঙ্কর আহ্‌সান রচিত উপন্যাস বিবিয়ানা। প্রচ্ছদে কানে ফুল গোজা শাড়ি পড়া টিপটপ নারীটির আনমোনা চাহুনি যেন অনেক কিছু বলতে চায়। বিবিয়ানা পুড়ে যাওয়া জীবনের গল্প। আস্ত এক জীবনের খন্ড খন্ড গল্প। একটা বয়সের পর কোনো পুরুষকে আর নিজেদের জন্য কাঁদতে দেখা যায়না। তাদের কান্না হয় অন্যদের জন্য। এভাবেই পুরুষ প্রেমিক, স্বামী, বাবা, দাদা হবার পর একদিন খুব ক্লান্ত হয়ে বুড়িয়ে যাওয়া শরীরটা নিয়ে মৃত্যুবরন করে। কিন্তু নারীদের ক্ষেত্রেও কি এমনটা হয়? লেখক বিবিয়ানা বইটিতে এর উত্তর খুঁজতে চেষ্টা করেছেন। বইটি পাওয়া যাচ্ছে অন্বেষা প্রকাশন এর প্যাভিলিয়ন ১৮ তে।

 

মনোপাখি

পেশায় প্রকৌশলী হলেও শব্দ, গল্প নিয়ে খেলা তরুন লেখক রাফিউজ্জামান সিফাত এর একধরনের নেশা। প্রথম উপন্যাস সুয়া উড়িলো উড়িলো জীবেরও জীবন ও দ্বিতীয় উপন্যাস পদ্ম বলে, এসো এর পর পাঠকদের জন্য সিফাত নিয়ে এসেছেন তার তৃতীয় উপন্যাস মনোপাখি। উপন্যাসে বর্ণিত আছে বইয়ের প্রধান চরিত্র রুপু’র উপাখ্যান। বইটি পাওয়া যাচ্ছে আদী প্রকাশনীতে (স্টল ১০৯)।

আনলিশ ইউর ট্রু পটেনশিয়াল

এবারের বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে সার্টিফাইড কর্পোরেট ট্রেইনার গোলাম সামদানি ডনের লেখা দেশের একমাত্র দ্বিভাষী সেলফ হেল্প বই ‘আনলিশ ইউর ট্রু পটেনশিয়াল’। অধ্যয়ন প্রকাশনীর থেকে প্রকাশিত এই বইটিতে  থাকছে গেমস, অনুশীলন, বিভিন্ন ডন সামদানি ইভেন্টের ডিসকাউন্ট কুপন এবং সর্বোপরি আপনার জীবনকে গুছিয়ে নেবার একটি ম্যাপ। লেখক হিসেবে ডনের অভিষেক এইবারই প্রথম নয়। ২০১৬ সালে তার লেখা ৬ টি পকেট বই প্রকাশিত হয়েছিল। বইটি পাওয়া যাচ্ছে অধ্যয়ন প্রকাশনী, প্যাভিলিয়ন ১৪-এ।

শর্মিলা

ভারত লাগোয়া উত্তর জনপদের আড়ালে থেকে যাওয়া একটি সংস্কৃতি, যার কবলে পড়ে এক অভিমানী কিশোর ঘর ছাড়ে। ভারতে পাড়ি দেয়ার পরে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার ইচ্ছে তীব্র হয় তার। ওই ইচ্ছে বপন করেই দূর দেশে কিশোরের সঙ্গে পরিচয় হয় স্বদেশী বাম রাজনীতি করা এক বড় ভাইয়ের, যিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আর রাজনৈতিক কারণে পালিয়ে রয়েছেন ভিনদেশে। কিন্তু অভিমানী কিশোরের সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে হলে ফিরতে হবে দেশে, বসতে হবে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায়। কঠিন হয়ে যাওয়া হিসেবটা সহজেই নেমে যায়, কিন্তু তার আগে পাঠক হৃদয় নিশ্চয় তেড়েফুঁড়ে দেবে। সাংবাদিক ও উপন্যাসিক মাহতাব হোসেন রচিত শর্মিলা উপন্যাসে উঠে এসেছে, উত্তর জনপদের সীমান্তবর্তী এলাকার নব্বই দশকের শেষভাগের প্রচলিত রীতিনীতি ও সংস্কৃতি। বইটি প্রকাশ করেছে দেশ পাবলিকেশন্স (স্টল নং ৩৮৮, ৩৮৯)।

সিনেমামা

চলচ্চিত্র গ্রুপগুলোতে দারুন সব ফিল্ম রিভিউ দিয়ে জনপ্রিয় সৈয়দ নাজমুস সাকিব তার প্রথম বই সিনেম্যান এর পর এবারে পাঠকদের জন্য নিয়ে এসেছে সিনেমামা। বইটিতে বিশ্বের অনেকগুলো ইন্ডাস্ট্রির ফিল্ম মুভমেন্ট নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে, সঙ্গে আমাদের দেশেরও। রয়েছে সালমান শাহ, বাংলা সিনেমা ইতিহাসের ডায়নামিক ডিরেক্টর খ্যাত দেওয়ান নজরুল, ডেনজেল ওয়াশিংটনের কথা, জিম ক্যারি, শ্রীদেবীর গল্প থেকে শুরু করে চলচ্চিত্র নিয়ে নানাকিছু। বইটি প্রকাশ করেছে রোদেলা প্রকাশনী (স্টল নং ৩২৬-৩২৯)।

সম্ভাবনার স্বপ্নযাত্রা

এবারের বইমেলায় ক্যারিয়ার নিয়ে এসেছে নানা বই। তার মধ্যে অন্যতম আলোচিত বইয়ের নাম ‘সম্ভাবনার স্বপ্নযাত্রা’। বিশ্ববিদ্যালয় জীবন শেষ হলে অনেক শিক্ষার্থীই আফসোস করেন তার নিজের ভিতর প্রয়োজনীয় দক্ষতা ও অভিজ্ঞতার ঘাটতির রয়ে যাওয়ার জন্য, ভোগেন আত্মবিশ্বাসহীনতায়। এর মূল কারন বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের চারটি বছর তারা কাটিয়ে দেন নিতান্ত হেলাফেলায়। অথচ এই চার বছরে কয়েকটি বিষয়ে একটু ফোকাস করলেই নিজের দক্ষতা ও আত্মবিশ্বাস সবই বাড়াতে পারতেন, অন্যদের চেয়ে এগিয়ে থাকতে পারতেন। তাই, এমন আফসোস যেন না করতে হয়, সে জন্য বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার গঠনের একটি নির্দেশনামূলক বই ‘সম্ভাবনার স্বপ্নযাত্রা’। ছায়াবীথি প্রকাশনে (বইমেলা স্টল ২১৬-২১৮) পাওয়া যাচ্ছে কাজী হাসান রবিন লিখিত এই বইটি।