কুমিল্লায় হাসপাতালে আগুন

আগের সংবাদ

দেশে ফিরেছেন মাশরাফিরা

পরের সংবাদ

ডাকসু নির্বাচন

স্বতন্ত্রভাবে লড়বেন কোটা আন্দোলনকারীরা

প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৯ , ১০:২৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৯, ১০:২৬ অপরাহ্ণ

Avatar

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল ছাত্র সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্রভাবেই লড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কোটা সংস্কারের দাবিতে গড়ে ওঠা সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ।

তবে ডাকসু নির্বাচন সামনে রেখে শিক্ষার্থীবান্ধব ও নৈতিক কোনো কর্মসূচিতে অন্যান্য ছাত্র সংগঠনের সঙ্গে যৌথ আন্দোলনে অংশ নেবে তারা।

শুক্রবার রাতে গণমাধ্যমকে এমন তথ্যই নিশ্চিত করেছেন ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুর। তিনি জানান, তাদের প্যানেল তৈরির কাজ প্রায় শেষ। আগামীকাল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হতে পারে।

কোটা সংস্কারের সফল আন্দোলন করে ইতোমধ্যেই সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে এ আন্দোলনের নেতৃত্বে থাকা নেতারা। সাধারণ শিক্ষার্থীদের চাহিদা ও শিক্ষার্থীদের অধিকার নিয়ে কাজ করতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কর্তৃক ডাকসু নির্বাচন করার ঘোষণার পর থেকেই নির্বাচনের লড়ার ইচ্ছের কথা জানিয়েছেন তারা। সে লক্ষ্যে গত কয়েকমাস ধরে কাজও করে যাচ্ছেন।

তফসিল ঘোষণার পর নির্বাচনকে সামনে রেখে ক্যাম্পাসে লিফলেট বিতরণসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে কোটা আন্দোলনকারীরা। লিফলেটে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ভোটকেন্দ্রে যেতে ও ভোট দিতে উদ্বুদ্ধ করছেন তারা। কোটা আন্দোলনের মতো শিক্ষার্থীদের ন্যায্য দাবিতে পাশে থাকার প্রতিশ্রুতিও দিচ্ছেন নেতারা। প্রতিদিনই ক্যাম্পাসের একাডেমিক ভবনসহ গুরুত্বপূর্ণ স্পটে প্রচারণা চালাচ্ছেন।

নির্বাচনের শুরুতে জোটে যাওয়ার ইচ্ছের কথা জানালেও শেষ পর্যন্ত স্বতন্ত্র নির্বাচন করার কথা জানিয়েছেন ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুর। তিনি বলেন, ‘আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা কোনো জোটে গিয়ে নির্বাচন করব না। আমরা স্বতন্ত্রভাবেই নির্বাচনে লড়ব। কারণ আমাদের প্রতি সাধারণ শিক্ষার্থীদের যথেষ্ট সমর্থন রয়েছে।’

তবে জোটবদ্ধ নির্বাচন না করলেও ন্যায্য দাবির আন্দোলনে জোটবদ্ধ হওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।

ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের কয়েকজন নেতা জানান, প্যানেল প্রায় চূড়ান্ত। প্যানেলে কোটা আন্দোলনের আহ্বায়ক কমিটি ছাড়াও প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়া ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার দাবির আন্দোলন ও সাত কলেজ বাতিল আন্দোলনে যুক্ত থাকা শিক্ষার্থীরাও প্যানেলে যুক্ত করা হবে। এ ছাড়াও ক্যাম্পাসে যারা সাধারণ শিক্ষার্থী বলে পরিচিত কিন্তু শিক্ষার্থীদের ন্যায্য দাবিতে বিভিন্ন সময় সমর্থন করেছেন এবং অংশ নিয়েছেন এমন ব্যক্তিকেও প্যানেলে যুক্ত করা হচ্ছে।