ময়মনসিংহে নোঙড় ফেলল সেইলর, কেনাকাটায় মিলবে বিমান টিকিট

আগের সংবাদ

রিকন্ডিশন্ড গাড়ি কিনতে...

পরের সংবাদ

মেলায় নাটক ও থিয়েটার বিষয়ক বই

প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৯ , ৪:০০ অপরাহ্ণ | আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৯, ৪:০০ অপরাহ্ণ

Avatar

বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের তিন লাখ বর্গফুট আয়োজনজুড়ে চলছে ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০১৯’। মাসব্যাপী এই বইমেলায় এরই মধ্যে প্রকাশ হয়েছে দুই হাজারেরও বেশি নতুন বই। বাংলা একাডেমির জনসংযোগ উপবিভাগের তথ্য অনুযায়ী মেলার প্রথম ১৪ দিনে নাটকের বই প্রকাশ হয়েছে ১৬টি। যার মধ্যে রয়েছে নাটক বিষয়ক গবেষণাগ্রন্থ, রয়েছে নাটকের পাণ্ডুলিপি। এ ছাড়া বিগত বছরে প্রকাশ হওয়া নাটকের বইও বিক্রি হচ্ছে মেলায়। বইমেলা ঘুরে নাটক ও থিয়েটার বিষয়ক বইয়ের খোঁজ নিয়ে প্রতিবেদন সাজিয়েছেন হেমন্ত প্রাচ্য।

বইমেলায় ১৫তম দিন ছিল গতকাল শুক্রবার। তার আগের দিন পর্যন্ত মেলায় নাটকের বইয়ের সংখ্যা ১৬টি। তবে মেলার বিভিন্ন স্টলে ঘুরে দেখা গেছে সেই সংখ্যা আরো বেশি। বইমেলার তথ্যকেন্দ্রে জমা হওয়া বইয়ের হিসাবে ১৬টি হলেও মেলায় আরো কয়েকটি নাটক বিষয়ক বই প্রকাশ হয়েছে।

এবারের মেলায় প্রকাশ হয়েছে পাভেল রহমান সম্পাদিত থিয়েটার বিষয়ক পত্রিকা ‘ক্ষ্যাপা’-এর নতুন সংখ্যা। বাংলা একাডেমির লিটলম্যাগ চত্বরে ক্ষ্যাপার স্টলে সংখ্যাটি পাওয়া যাচ্ছে। প্রচ্ছদ এঁকেছেন শাহনাজ জাহান। সহকারী সম্পাদক অপু মেহেদী ও মাহবুব খান। ব্যবস্থাপনা সম্পাদক প্রসেনজিৎ রায়।

অন্যদিকে ২০১৮ সালের বইমেলায় বাতিঘর থেকে প্রকাশ হয়েছিল শুভাশীস সিনহার দুটি কাব্য ‘নয়নতারা’ ও ‘দহনদয়িতা’। এবারের বইমেলায়ও একই প্রকাশনী থেকে এসেছে ‘রুধিররঙ্গিণী’ ও ‘দ্বিখণ্ডিতা’ নামের আরো দুটি নাট্যকাব্য। বই দুটির প্রচ্ছদ এঁকেছেন সব্যসাচী হাজরা।

অন্যদিকে বাংলাপ্রকাশ থেকে সাধনা আহমেদের নাট্যগ্রন্থ ‘গাঙকুমারী’ এসেছে মেলায়। এ ছাড়া বেহুলাবাংলা প্রকাশ করেছে এই লেখকের ‘ব্রাত্য আমি মন্ত্রহীন ও অংশুপট উপাখ্যান’ নামের আরেকটি নাট্যগ্রন্থ। উৎস প্রকাশনী থেকে এসেছে অনন্ত হিরার লেখা দুটি নাট্যগ্রন্থ। এর মধ্যে একটি হলো ‘লোকনায়ক’। চারণ কবি মুকুন্দ দাসকে নিয়ে লেখা নাটক ‘লোকনায়ক’ ইতোমধ্যে নিয়মিত মঞ্চায়িত হচ্ছে। এবার এটি বই আকারে প্রকাশ হলো। অন্যটির নাম ‘কনডেমড সেল’। এটিও নিয়মিত মঞ্চায়িত হচ্ছে। এবার এল বই আকারে। প্রচ্ছদ এঁকেছেন মোস্তাফিজ কারিগর।

একই প্রকাশনী সংস্থা থেকে মেলায় এসেছে নূনা আফরোজের লেখা নাট্যগ্রন্থ ‘আমি ও রবীন্দ্রনাথ’। এই নাটকটিও নিয়মিত মঞ্চায়িত হচ্ছে। এবার এল বই আকারে। শ্রাবণ প্রকাশনী মেলার আগেই এনেছে আশিস গোস্বামীর লেখা গবেষণাগ্রন্থ ‘শব্দাবলী স্টুডিও থিয়েটার কথা’। এ ছাড়া গত বছর বেঙ্গল পাবলিকেশন্স এনেছে অংশুমান ভৌমিকের লেখা নাটকের বই ‘বঙ্গনাট্যের সন্ধানে’। বইটিও মেলায় নতুন বইয়ের সারিতে রয়েছে।

বাংলা একাডেমির জনসংযোগ উপবিভাগের তথ্য অনুযায়ী মেলায় প্রকাশিত বইয়ের মধ্যে- বিদ্যা প্রকাশ এনেছে প্রফেসর কর্নেল ডা. রণজিৎ সেনের নাটক ‘বিদ্রোহী কবি নজরুল’ ও ‘নৃত্যগীতি সমগ্র’ নামের দুটি নাট্যগ্রন্থ।

সময় প্রকাশন এনেছে মো. শফিকুল ইসলামের ‘নৈঃশব্দের ভালোবাসা’, অন্বয় প্রকাশ এনেছে নুরুল ইসলামের ‘বীরাঙ্গনা সখিনা’, সাম্প্রতিক প্রকাশনী এনেছে মির্জা সাখাওয়াৎ হোসেনের ‘মুক্তিযুদ্ধের নাটক’, জুয়েল বুকস এনেছে নুরুল ইসলামের ‘বাড়ি নং ৭১ রোড নং ৫২’, সময় প্রকাশনী এনেছে সৈয়দ শামসুল হকের ‘ফজল শেখের শেষ ম্যাজিক ও অন্যান্য’, বিভাস এনেছে শফিকুল ইসলাম খানের ‘তুষের আগুনে’, শিলা প্রকাশনী এনেছে অশোক কুমার বিশ্বাসের ‘নাটক সমগ্র- ২’, আগামী প্রকাশনী এনেছে সৈয়দ জাহিদ হাসানের ‘কৃষ্ণকুমারী’।