পূর্বাচলে ক্রীড়া কমপ্লেক্স!

আগের সংবাদ

শারাপোভার ইনজুরি পিছু ছাড়ছে না

পরের সংবাদ

বিপিএলের সপ্তম রাউন্ড শুরু আজ

খেলা প্রতিবেদক :

প্রকাশিত হয়েছে: February 17, 2019 , 2:40 pm

দুদিন বিরতির পর আজ থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ফুটবলের ৭ম রাউন্ডের খেলা। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম ম্যাচে দুপুর সাড়ে ৩টায় শেখ জামালের মুখোমুখি হবে শেখ রাসেল। অন্যদিকে দ্বিতীয় ম্যাচে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ঢাকা আবাহনীর প্রতিপক্ষ ব্রাদার্স ইউনিয়ন। জয়ের জন্য আশাবাদী দুই দলই।
বিপিএলের ষষ্ঠ রাউন্ড শেষে শেখ জামালের অবস্থান পয়েন্ট টেবিলের পঞ্চম স্থানে। ৬ ম্যাচ খেলে ৩ জয়, ১ ড্র ও ২ পরাজয়ে জোসেফ আফুসির শিষ্যদের সংগ্রহ ১০ পয়েন্ট। এ ছাড়া ৫ ম্যাচ খেলে ৪ জয়, ১ ড্রয়ে ১৩ পয়েন্ট শেখ রাসেলের। পয়েন্ট টেবিলের তৃতীয় স্থানে থাকা সাইফুল বারী টিটুর শিষ্যদের এখন পর্যন্ত কেউ হারাতে পারেনি। আরামবাগকে ১-০, মোহামেডানকে ৩-০, চিটাগং আবাহনীকে ১-০ এবং ব্রাদার্স ইউনিয়নকে ৩-২ গোলে হারের স্বাদ দিয়েছে আশরাফুল ইসলাম রানার অধিনায়কত্বে শেখ রাসেল। শুধুমাত্র ১-১ গোলে তারা ড্র করেছে সাইফ স্পোর্টিংয়ের সঙ্গে। অন্যদিকে শেখ জামালও নিজেদের প্রথম চার ম্যাচে অপরাজিত থেকে সর্বশেষ বসুন্ধরার কাছে ০-১ গোলে প্রথম হারের স্বাদ পেয়েছে। যেখানে রহমতগঞ্জের বিপক্ষে ২-২ গোলে ড্র করার পর বিজেএমসি এবং আরামবাগ দুই দলকেই ২-০ গোলে হারিয়েছিল ধানমন্ডির এই ক্লাবটি। আজ দুদলেরই লক্ষ্য থাকবে জয়, একজনের জয় অব্যাহত রাখা অপর জনের জয়ের ধারায় ফেরা।
দিনের দ্বিতীয় ম্যাচটিতে টানা পাঁচ ম্যাচে জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে আবাহনী আজ ব্রাদার্স ইউনিয়নের মোকাবেলা করবে। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা নবাগত বসুন্ধরা কিংসের সমান ১৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে এক ম্যাচ বেশি খেলা ঢাকা আবাহনী। এর আগে আরামবাগকে ২-১, নোফেলকে ২-১, বিজেএমসিকে ১-০, রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস এন্ড সোসাইটিকে ৫-১ এবং মুক্তিযোদ্ধা সংসদকে ২-০ গোলে হারিয়েছে মারিও লেমসের শিষ্যরা। নবাগত বসুন্ধরার বিপক্ষে শেষ ম্যাচে ৩-০ গোলে হেরেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। অন্যদিকে ব্রাদার্স এবারের মৌসুমে পাঁচ ম্যাচের মধ্যে ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে একটিতে জিতেছে। পাঁচ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে ব্রাদার্স ইউনিয়নের অবস্থান ৯ নম্বরে। তিন হারের বিপরীতে ড্র করেছে একটি ম্যাচে কমলা জার্সিধারীরা। এবারের আসরে ৫টি করে গোল নিয়ে আবাহনীর নাবীব নেওয়াজ জীবন এবং মুক্তিযোদ্ধার ফরোয়ার্ড বালো ফামুসা এখন যৌথভাবে লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা। ৪ গোল করেছেন রহমতগঞ্জের বিদেশি রিক্রুট সিও জুনাপিও আর ৩টি করে গোল করেছেন ৯ জন।