ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবির সঙ্গে এলাকাবাসীর সংঘর্ষে নিহত ৪

আগের সংবাদ

কালকিনিতে মাদকসেবন-বিক্রির দায়ে দুই মাদক ব্যবসায়ীর কারাদণ্ড

পরের সংবাদ

বাউফলে বহিস্কার আতংকে ভুগছে এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯ , ৪:৩১ অপরাহ্ণ | আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯, ৪:৩১ অপরাহ্ণ

Avatar

বাউফলে চলতি এসসিসি পরীক্ষার গণিত পরীক্ষা চলাকালিন বাউফল বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভেন্যুতে ক্যালকুলেটর নিয়ে কক্ষ পরিদর্শক ও পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ঘটে যাওয়া অনভিপ্রেত ঘটনায় পরীক্ষার্থীদের মধ্যে বহিস্কার আতংক দেখা দিয়েছে। এ আতংক ছড়িয়ে পরেছে অভিভাবকদের মধ্যেও। এ নিয়ে উপজেলার সর্বত্র চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

জানা গেছে, বাউফল সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মধ্যে পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে রেষারেষি চলে আসছিল। গত ৯ ফেব্রুয়ারি শনিবার গণিত পরীক্ষার দিন সৃজনশীল পরীক্ষা শুরু হলে কক্ষ পরিদর্শক বাউফল সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে ক্যালকুলেটার নিয়ে যান। পরীক্ষার্থীরা এর প্রতিবাদ করলে তাদরকে বহিস্কারের ভয় দেখানো হয়। ওই সময় পরীক্ষার্থীরা কান্নায় ভেঙ্গে পরে। বিষয়টি হল সুপার মো: সোহরাব হোসেনের নজরে পরীক্ষার্থীরা প্রোগ্রাম লেখা ক্যালকুলেটার ব্যতিত সকল ক্যালকুলেটার ব্যবহার করতে পারবে বলে তাদের ক্যালকুলেটর ফেরত দিতে নির্দেশ দেন। কিন্তু কক্ষ পরিদর্শক নজরুল ইসলাম টিপু ওই নির্দেশনা না মেনে ক্যালকুলেটর আটকে রাখেন। এমতাবস্থায় পরীক্ষা শেষ না হওয়ার আগেই পরীক্ষার্থীরা কক্ষ ত্যাগ করে বের হয়ে আসেন এবং অভিভাবকদের অবহিত করেন। এরপরই শুরু হয় নৈরাজ্য। পরীক্ষার্থীরা ক্ষিপ্ত হয়ে সহ সচিব জাহানারা বেগম ও পরিদর্শক নজুরুল ইসলাম টিপুর উপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরা কক্ষ পরিদর্শক ও সহ সচিবকে অবরুদ্ধ করে ভাংচুর চালায়। এঘটনা জানতে পেরে বাউফল উপজেলা নির্বাহী অফিসার পিজুস চন্দ্র দে, বাউফল সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার ফারুক হোসেন ও অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মাকসুদুর রহমান মুরাদসহ স্থানীয় রাজনৈতিক সংগঠনের নের্তৃবৃন্দ ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।

পরীক্ষার্থী শিফাতের মা অভিযোগ করেন কক্ষ পরিদর্শক নজরুল ইসলাম টিপু একজন নেশাগ্রস্থ শিক্ষক। একই অভিযোগ করেন পরীক্ষার্থী জাবিরের মা খাদিজা বেগম। হাচিব, ইমতিয়াজ ও রাসেলসহ একাধিক পরীক্ষার্থীর অভিভাবকদের অভিযোগ ৩০ মিনিট ক্যালকুলেটার আটকে রাখায় তাদেও সন্তানদেও চরম ক্ষতি হয়েছে। এদিকে ওই ঘটনার পর থেকে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে বহিস্কার আতংক ছড়িয়ে পরেছে। তারা মনে করছেন, যে কোন সময় যে কোন অজুহাতে পরিক্ষার হলে দায়িত্বরত কক্ষ পরিদর্শকরা তাদেরকে বহিস্কার করে দিতে পারেন। ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষায় একই বিদ্যালয়ে কক্ষ পরিদর্শকের দায়িত্ব পালন করতে এসে নজরুল ইসলাম টিপু পরীক্ষার্থীদের গায়ে কলম ছুঁড়ে মেরেছিলেন। বাউফল কেন্দ্রের সচিব নার্গিস আখতার জানান, অভিযুক্ত শিক্ষককে আর কক্ষ পরিদর্শকের দায়িত্ব দেয়া হবেনা মর্মে সিদ্ধান্ত হয়েছে। তাছাড়া যারা কক্ষ পরিদর্শকের প্রশিক্ষণ নিবেন তারাই শুধু মাত্র দায়িত্ব পালন করবেন।