শুক্রবার জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ

আগের সংবাদ

সুস্থ হচ্ছেন এরশাদ

পরের সংবাদ

দেশের দ্রুততম মানব ইসমাইল, মানবী শিরিন

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ২৪, ২০১৯ , ৬:৫০ অপরাহ্ণ | আপডেট: জানুয়ারি ২৪, ২০১৯, ১০:১০ অপরাহ্ণ

Avatar

প্রথমে ৭ বারের দ্রুততম মানব মেজবাহ আহমেদ ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে তার নিজের প্রিয় ইভেন্ট ১০০ মিটার স্প্রিন্টে লড়বেন না। নিজের সংস্থা নৌ-বাহিনী থেকে ৪২তম জাতীয় অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে লড়াই করার জন্য মনোনীত হলেও নতুনদের উঠে আসার সুযোগ করে দিতেই ১০০ মিটার স্প্রিন্টে লড়াই না করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

মেজবাহ আহমেদের সেই চাওয়াই পূরণ হয়েছে এবারের জাতীয় অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে। তারই সংস্থার আরেক অ্যাথলেট মো. ইসমাইল হোসেন জিতেছেন বাংলাদেশের দ্রুততম মানবের মুকুট। ১০.২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে ১০০ মিটার স্প্রিন্টের দৌড় শেষ করেন ইসমাইল।

গত বছর রেকর্ড গড়ার জন্য অ্যাথলেটিক ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে ১০০ মিটার লড়াই করার জন্য নেমেছিলেন মেজবাহ। তাহলেই তিনি পেছনে ফেলে দিতেন ৩৬ বছর আগে রেকর্ড গড়া মোশাররফ হোসেন শামীমকে। সত্তরের দশকে সর্বোচ্চ ৭বার দ্রুততম মানব হওয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছিলেন শামীম।

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে এসে সেই মোশাররফ হোসেন শামীমের গড়া রেকর্ডে ভাগ বসিয়ে দেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর দৌড়বিদ মেজবাহ আহমেদ। ২০১৮ সালে তার সামনে সুযোগ ছিল মোশাররফ হোসেন শামীমের রেকর্ডকে পেছনে ফেলার। কিন্তু ৮ম বারে এসে মেজবাহ নিজেই পেছনে পড়ে গেলেন। কুমিল্লার যুবক হাসান আলি ১০.৮০ সেকেন্ড সময় নিয়ে জিতে নেন দ্রুততম মানবের মুকুট।

এবার মেজবাহ নিজেকে সরিয়ে নেয়ার কারণে ফেবারিটের তালিকায় উঠে আসেন ইসমাইল হোসেন। এবং শেষ পর্যন্ত ফেবারিটের মর্যাদা রক্ষা করলেন তিনি। হারিয়েছেন বিকেএসপির স্প্রিন্টার হাসান মিয়াকে। তিনি সময় নিয়েছিলেন ১০.৮০ সেকেন্ড। তৃতীয় হয়ে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছেন নৌবাহিনীরই আরেক দৌড়বিদ রকিবুল হাসান। তিনি সময় নেন ১০.৪০ সেকেন্ড।

আজ একই দিনে অনুষ্ঠিত হয়েছে মেয়েদের ১০০ মিটার স্প্রিন্টের লড়াইও। এবারও মুকুট ধরে রেখেছেন নৌবাহীনির অ্যাথলেট শিরিন আক্তার। ১১.৮০ সেকেন্ড সময় নিয়ে দ্রুততম মানবীর খেতাব জয় করলেন এই নারী স্প্রিন্টার। তিনি হারিয়েছেন তারই সংস্থা নৌবাহিনীর আরেক স্প্রিন্টার সোহাগী আক্তারকে। গত বছরও সোহাগী আক্তার হয়েছিলেন রানারআপ। তিনি সময় নিয়েছেন ১১.৯০ সেকেন্ড। তৃতীয় হয়ে ব্রোঞ্জ জিতেছেন সেনাবাহিনীর অ্যাথলেট শরিফা খাতুন। তিনি সময় নেন ১২.৩০ সেকেন্ড।