নতুন সরকারের যাত্রা শুভ হোক

আগের সংবাদ

ফের শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যাত্রা শুরু

পরের সংবাদ

নতুন মন্ত্রিসভার কেমন কার্যক্রম চায় তরুণ সমাজ

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ৭, ২০১৯ , ৮:৪৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: জানুয়ারি ৭, ২০১৯, ৮:৪৮ অপরাহ্ণ

মুবিন হাসান খান অয়ন

শিক্ষার্থী, জেডএইচ সিকদার ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি

শিক্ষা মন্ত্রণালয়, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়- এই চারটি বিভাগ ও মন্ত্রণালয় তরুণদের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। তরুণদের প্রথম চাহিদা শিক্ষা তারপর প্রয়োজন কর্মসংস্থান। আর বর্তমানে শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের সঙ্গে জড়িত রয়েছে আইসিটি বিভাগ।

একজন তরুণ যখন তার কর্মক্ষেত্রে আবেদন করতে চায় তখন সহায়তা নিতে হয় প্রযুক্তির। বর্তমান বাংলাদেশে আইসিটির ব্যবহার যথোপযোগী যা প্রশংসনীয়। তরুণদের জন্য এক হিসেবে আইসিটি আশীর্বাদস্বরূপ। বিগত মন্ত্রণালয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন জুনাইদ আহম্মেদ পলক যিনি নতুন মন্ত্রিসভাতেও একই বিভাগে দায়িত্বরত রয়েছেন।

তিনি তার দায়িত্বরত বিভাগে ইতোমধ্যে কিছু কার্যকরী ভূমিকা রেখেছেন তরুণদের জন্য। এ ছাড়াও তরুণ রাজনীতিবিদ হিসেবেও তিনি তরুণদের পছন্দের হতে পেরেছেন। তাই তরুণদের আইসিটি বিভাগে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা প্রদানের পাশাপাশি সুযোগ-সুবিধাও প্রদান করবে বলে আমরা আশাবাদী।

অপরদিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে বিগত ১০ বছর ধরে মন্ত্রী হিসেবে ছিলেন নুরুল ইসলাম নাহিদ। তার এই মন্ত্রণালয়ে যথেষ্ট বিতর্ক থাকলেও বিনামূল্যে বই বিতরণ একটি কার্যকরী পদক্ষেপ ছিল। বর্তমানে এই মন্ত্রণালয়ের নতুন মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ডা. দীপু মনি ও প্রতিমন্ত্রী হিসেবে আছেন মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। শিক্ষার সর্বোচ্চ পরিসর নিশ্চিত করতে তারা ভূমিকা রাখবেন বলে আশা করছি।

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের লক্ষ্য হচ্ছে শ্রমিক ও নিয়োগকর্তাদের মধ্যে ভালো শিল্প সম্পর্ক ও সম্পর্ক উন্নয়ন বজায় রাখার দ্বারা উৎপাদনশীল কর্মসংস্থান ও মানবসম্পদ উন্নয়নের মাধ্যমে বেকারত্ব ও দারিদ্র্য কমানো। বর্তমানে দারিদ্র্যের হার কমলেও কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে রয়েছে দ্বিমত। প্রবৃদ্ধি হলেও সেই তুলনায় দেশে বাড়ছে না কর্মসংস্থান। ফলে বেকারের সংখ্যা বাড়ছে।

গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরের হিসাব অনুযায়ী দেশে ১৫ বছরের বেশি বয়সী কর্মক্ষম মানুষের সংখ্যা ১০ কোটি ৯১ লাখ। এর মধ্যে বেকারের সংখ্যা ২৬ লাখ ৮০ হাজার। আর ২০১৫-১৬ অর্থবছরে এই সংখ্যা ছিল ২৬ লাখ।

এ ক্ষেত্রে এক বছরে বেকার বেড়েছে ৮০ হাজার। উচ্চ শিক্ষিতদের মধ্যে বেকারত্বের হার বেশি। এই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মন্ত্রীর কাছে আহ্বান তিনি যাতে তরুণ সমাজের প্রতি বিশেষ নজরারোপ করেন এবং কর্মসংস্থানে মেধাভিত্তিক এবং মেধাবীদের প্রাধান্য দেন এবং একই সঙ্গে কর্মক্ষেত্র যাতে দুর্নীতিমুক্ত হয় সেই ব্যাপারেও নজরারোপ করার আহ্বান রইল।

তরুণদের একটি পছন্দের এবং প্রয়োজনীয় মন্ত্রণালয় হিসেবে রয়েছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। এই মন্ত্রণালয়ের নতুন মন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। তরুণ সমাজের একটা বড় আকাক্সক্ষা হচ্ছে মাদক। মাদকের গ্রাসে নষ্ট হয়েছে অনেক তরুণ। তাই মাদকের থেকে বিরত রাখতে প্রয়োজন খেলাধুলার।

তাই যুবকদের সার্বিক বিবেচনায় রাখতে হবে এবং একই সঙ্গে ক্রীড়া বিভাগকেও সুন্দরভাবে সজ্জিত করবেন বলে ধারণা নবনির্বাচিত যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী। এ ছাড়া আওয়ামী লীগ সরকারের একাদশ নির্বাচনী ইশতেহারের মধ্যে ছিল ‘তারুণ্যের শক্তি, বাংলাদেশের সমৃদ্ধি’ যেখানে লক্ষ্য ও পরিকল্পনা হিসেবে রয়েছে ‘শিক্ষা, দক্ষতা ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধি’ ও ‘আত্মকর্মসংস্থান ও তরুণ উদ্যোক্তা তৈরি’ যা বাস্তবায়নে প্রয়োজন ওই মন্ত্রণালয়ের কার্যকরী ভূমিকা।

মুবিন হাসান খান অয়ন : শিক্ষার্থী, জেডএইচ সিকদার ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি।

  • আরও পড়ুন
  • লেখকের অন্যান্য লেখা