সৈয়দ আশরাফের মৃত্যুতে ডিইউজের শোক

আগের সংবাদ

সেই নারীর দায়িত্ব নিলেন এমপি একরামুল

পরের সংবাদ

মন্দিরকে জাতীয় ঐতিহ্য ঘোষণা করল পাকিস্তান

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ৪, ২০১৯ , ১০:২০ অপরাহ্ণ | আপডেট: জানুয়ারি ৪, ২০১৯, ১০:২০ অপরাহ্ণ

Avatar

এক হাজার বছরের পুরনো একটি মন্দিরকে জাতীয় ঐতিহ্যের স্বীকৃতি দিয়েছে পাকিস্তান। হিন্দু ধর্মালম্বীদের প্রাচীনতম এই মন্দিরটি পাকিস্তারে খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের রাজধানী পেশোয়ারে অবস্থিত। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

খাইবার পাখতুনখাওয়ার প্রাদেশিক প্রত্নতত্ত্ব ও জাদুঘর বিভাগ শুক্রবার হিন্দু ধর্মালম্বীদের প্রাচীনতম পঞ্জ তিরাত নামের এই মন্দিরটিকে জাতীয় ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। ১৭৪৭ সালে আফগান শাসক দুররানির আমলে মন্দিরটি ধ্বংস করা হয়। পরে ১৮৩৪ সালে শিখ শাসনামলে স্থানীয় হিন্দুরা মন্দিরটির সংস্কার করেন।

পঞ্জ তিরাত নামের এই মন্দিরটি এক হাজার বছরেরও বেশি পুরনো একটি স্থাপত্য। এর অবস্থান পেশোয়ারের হাসনাগিরি এলকায়। পঞ্জ তিরাত নামটি এসেছে মন্দিরে থাকা পাঁচটি পুকুর থেকে। এখানে মন্দিরের পাশাপাশি রয়েছে পাম গাছের একটি বাগান। এখন এই পাঁচটি পুকুর চাচা ইউনুস পার্ক ও প্রাদেশিক চেম্বার অব কমার্স ইন্ড্রাস্ট্রির নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

ধারণা করা হয়, মহাভারতে উল্লেখিত রাজা পান্ডু এই এলাকার ছিলেন। হিন্দুরা এই পুকুরগুলোতে স্নান করতে আসতেন কার্তিক মাসে এবং গাছের নিচে দুই দিন উপাসনা করতেন। স্থানীয় হিন্দুরা মন্দিরটি রক্ষায় ব্যর্থতার জন্য সরকারকে দায়ী করে আসছেন। আর তারই প্রেক্ষিতে প্রাদেশিক সরকার এমন ঘোষণা দিল।

পাকিস্তানের জাতীয় ঐতিহ্য সংক্রান্ত নিয়মাবলী অনুসারে, এখন থেকে কেউ যদি এটি ধ্বংস করার চেষ্টা করে তাহলে তাকে ২০ লাখ রুপি জরিমানা ও পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে।