অভিষেক হলো যাদের

আগের সংবাদ

নাসিরনগরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ২

পরের সংবাদ

হলিউডের সেরা ছবি

প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮ , ৫:০১ অপরাহ্ণ | আপডেট: ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮, ৫:০১ অপরাহ্ণ

Avatar

হলিউডে এ বছর কয়েকটি ছবি নিয়ে দর্শকের আগ্রহ ছিল আকাশচুম্বী। প্রত্যাশা এবং প্রাপ্তির হিসাবে কিছু ছবি পেরিয়ে গেছে, কিছু হয়েছে ব্যর্থ। বছরব্যাপী এত ছবির ভিড়ে আলোচিত পাঁচটি হলিউডের ছবি নিয়ে এ আয়োজন

অ্যাভেঞ্জারস ইনফিনিটি ওয়ার
এ বছরের সবচেয়ে বেশি প্রত্যাশিত সিনেমা ছিল এটি। তাই পরিচালকদের ওপর চাপ নেহাত কম ছিল না। এত সব সুপারহিরোকে মাত্র আড়াই ঘণ্টায় ঠিকঠাক হাজির করাতে পারবেন তো তারা, দর্শক মনে এ নিয়ে প্রশ্নের কমতি ছিল না। তবে শেষ পর্যন্ত নির্মাতারা সফল এবং দর্শকরাও দুর্দান্তভাবে উপভোগ করেছেন ছবিটি। মার্ভেলের প্রত্যেক সুপারহিরোরা এসে যেন এক হয়েছেন এ উৎসবে। সব সুপারহিরোই যেন সংঘবদ্ধ হয়েছে শত্রু নির্মূলে। ছবিটি সব মিলে আয় করেছে দুই দশমিক আট বিলিয়ন ডলার।

ব্ল্যাক প্যান্থার
সাদাদের ভিড়ে কৃষ্ণবর্ণের সুপারহিরো ব্ল্যাক প্যান্থার। তবে বিচিত্র কারণে ছবিটি এ বছর অলোচিত ছিল। কারণ রক্ষণশীল সৌদি আরবের সিনেমা প্রদর্শন শুরু হয় এই সিনেমাটি দিয়ে। এর আগে সিনেমা প্রদর্শন সেখানে নিষিদ্ধ ছিল। ছবিটি শুরু হয় ওয়াকান্ডার অতীত ইতিহাস দিয়ে। তারপরের গল্পটা রাজপুত্র টি’চালা-এর রাজা টি’চালা হয়ে ওঠা নিয়ে। শেষে নিজেদের খোলস ছেড়ে বিশ্বের কাছে বেরিয়ে আসার অসাধারণ গল্পে সিনেমাটি জয় করেছে সবার মন। ছবিটি আয় করেছে এক দশমিক ৩৪ বিলিয়ন ডলার।

বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি
ব্রিটিশ রক ব্যান্ডদল কুইনের ‘বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি’ শিরোনামের গানটি প্রথম মুক্তি পায় ১৯৭৫ সালের ৩১ অক্টোবর। মুক্তির পর তৎকালীন বিশ্বে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করলেও গানটি স্থান করে নেয় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ গানের তালিকায়। একক গান হিসেবে ব্যান্ডদলের মূল গায়ক ফ্রেডি মার্কারির নিজের লেখা ও গাওয়া এটি। মাত্র ৪৫ বছর বয়সে ১৯৯১ সালের ৫ সেপ্টেম্বর মারা যান ফ্রেডি। এ বছর তাকে নিয়ে গানটির একই শিরোনামে আত্মজৈবনিক চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন পরিচালক ব্রায়ান সিঙ্গার। ছবিটিতে শিরোনাম করা হয়েছে তারই গাওয়া আত্মজৈবনিক গান ‘বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি’। ছবিটি মুক্তির প্রথম সপ্তাহান্তে এটি প্রথম স্থান দখল করে নেয় এবং বিশ্বব্যাপী ৫৩৯ মিলিয়ন ডলার আয় করেছে।

ইনক্রেডিবলস টু
হলিউডে সুপারহিরোদের ভিড়েও অ্যানিমেশনে খুনসুটি আর ফ্যামিলি ড্রামার আবেদন হারিয়ে যায়নি সেটাই ইনক্রেডিবলস টু প্রমাণ করল। প্রথম সিনেমা ইনক্রেডিবলস যেখানে শেষ হয়েছিল, সেখানেই শুরু দ্বিতীয়টির। ২০০ মিলিয়ন ডলার খরচ করে ছবিটি তুলে নিয়েছে এক দশমিক দুই বিলিয়ন ডলার।

অ্যা স্টার ইজ বর্ন
মার্কিন গায়িকা লেডি গাগা এতদিন গান দিয়ে যেভাবে মঞ্চ কাঁপিয়েছেন, এবার সিনেমার পর্দায়ও সেভাবেই ঝড় তুললেন ‘অ্যা স্টার ইজ বর্ন’ চলচ্চিত্র দিয়ে। ছবি মুক্তির পর থেকেই ছবিটি ঘিরে ভক্তদের মাঝে আলোচনার কমতি ছিল না। চলতি বছর গোল্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ডে সেরা পাঁচ চলচ্চিত্রের তালিকায়ও ঠাঁই করে নিয়েছে ছবিটি। ১৯৩৭ সালে মুক্তি পাওয়া ‘অ্যা স্টার ইজ বর্ন’ ছবির রিমেক এটি।