রামগড়ে নৌকার প্রার্থীর গণসংযোগ ও পথসভা

আগের সংবাদ

লোহাগড়ায় মাশরাফির ব্যাপক গন সংযোগ

পরের সংবাদ

বাউফলে আ’লীগের উঠান বৈঠক

প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ২৪, ২০১৮ , ৪:৫৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: ডিসেম্বর ২৪, ২০১৮, ৪:৫৮ অপরাহ্ণ

Avatar

অনলাইন ডেস্ক

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে পটুয়াখালী-২ বাউফল আসনে আওয়ামী লীগের উঠান বৈঠকে গণজোয়ারের সৃষ্টি হচ্ছে। হাজার হাজার নারী-পুরুষের উপস্থিতিতে ৩০ ডিসেম্বর নৌকায় ভোট দেয়ার জন্য স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত হচ্ছে প্রতিটি উঠান বৈঠকে।
আওয়মী লীগ দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বাউফলের ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় দৈনিক ৩০টি করে উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উঠান বৈঠকগুলোতে নৌকার প্রার্থী জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ.স.ম. ফিরোজ, স্থানীয় নেতৃবৃন্দ এবং জেলা পর্যায়ের নেতারা অংশ নিচ্ছেন। এক্ষেত্রে বসে নেই মহিলারাও। উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ প্রতিটি ইউনিয়নের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে দিনরাত বৈঠক করে নারী ভোটারদের কাছে শেখ হাসিনার উন্নয়নের কথা প্রচার করে যাচ্ছেন। নারীদের জন্য শেখ হাসিনার গৃহীত কর্মসূচীগুলো মাইকে এবং মোবাইলে সম্প্রচার করা হচ্ছে। সরেজমিন কয়েকটি উঠান বৈঠকে উপস্থিত হয়ে দেখা গেছে, উঠান বৈঠকগুলোতে আওয়ামী লীগ সরকারের বিগত ১০ বছরের উন্নয়ন কর্মকান্ডের ফিরিস্তি তুলে ধরা হচ্ছে এবং কেন নৌকায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে আবারো সরকার গঠনে সহায়তা করতে হবে সেগুলো বুঝানো হচ্ছে। ভিজিডি, ভিজিএফ, বয়স্ক ভাতা, স্বামী পরিত্যাক্তা ভাতা, অস্বচ্ছল নারীদের ভাতা, মাতৃত্বকালিন ভাতা, জেলেদের আপদকালিন ভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, সন্তানদের বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক প্রদান, উপবৃত্তি প্রদান সহ নানাবিধ কর্মসূচীর কারণে পরিবারগুলো যে সুফল পাচ্ছে সেগুলো বোঝানো হচ্ছে।
এছাড়া উঠান বৈঠকে অবহেলিত দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নে শেখ হাসিনা কি কি কর্মসূচী বাস্তবায়ন করেছেন ও করে যাচ্ছেন এবং এরফলে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের আর্থ-সামাজিক কি পরিবর্তন হচ্ছে সেগুলোও আলোচনা হচ্ছে। বিশেষ করে পায়রা সমুদ্র বন্দর, ২০ হাজার মেগাওয়াটের তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ, শেখ হাসিনা ক্যান্টনমেন্ট, লেবুখালী, বগা ও লোহালিয়া সেতু, জাহাজ ভাঙ্গা শিল্প, ইত্যাদি মেগা প্রকল্পের বাস্তবায়ন এবং এরফলে কর্মসংস্থানের সৃষ্টির কথাও উঠে আসছে উঠান বৈঠকগুলোতে।
আ.স.ম. ফিরোজের সহধর্মিনী দেলোয়ারা সুলতানা নারীদের নিয়ে করা উঠান বৈঠক সম্পর্কে জানান, বাউফল একটি শিক্ষিত-নন্দিত জনপদ। এখানে শিক্ষায়-দীক্ষায় নারীরা পিছিয়ে নেই। এখানকার নারীরা বেশ সচেতন। আওয়ামী লীগের শাসনামলে নারীরা নিরাপদে থাকতে পারছেন। বাউফলের গ্রামীণ জনপদসহ সকল পর্যায়ের নারীরা আওয়ামী লীগ সরকারের অনেক সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন। তারা স্বামী-সংসার নিয়ে সুখে আছেন। নিরাপদে আছেন। কোথাও কোন চাঁদাবাজি, চুরি,ডাকাতি নাই। এমন পরিবেশ এবং উন্নয়নের গতিধারাকে বজায় রাখতে বাউফলের নারী ভোটাররা শেখ হাসিনাকেই পছন্দ করছেন। আশা করছি, ৩০ ডিসেম্বর নারীদের শতকরা ৮০ ভাগ ভোট নৌকায় পাবে। উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রেহেনা মোতালেব জানান, বাউফল আওয়ামী লীগের দুর্গ। প্রতিটি উঠান বৈঠকে হাজার হাজার নারীদের উপস্থিতি নৌকারই জয়ধ্বণি। আশা করছি ৩০ ডিসেম্বর নারীরা নৌকায় ভোট দিয়ে শেক হাসিনাকে সরকার গঠনে সহায়তা করবেন।