এবার কার প্রেমে পড়লেন স্বস্তিকা

আগের সংবাদ

ভেন্যু পরিবর্তন

পরের সংবাদ

শিল্পকলায় তিন আবৃত্তি শিল্পীর মেলবন্ধনে ‘জয় জয়ন্তী’

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ১৯, ২০১৮ , ২:১১ অপরাহ্ণ | আপডেট: নভেম্বর ১৯, ২০১৮, ২:১১ অপরাহ্ণ

Avatar

বাংলাদেশে এসেছেন ভারতের নন্দিত আবৃত্তি শিল্পী জয়িতা ভট্টাচার্য, সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন বাংলাদেশের দুই নন্দিত শিল্পী শিমুল মুস্তাফা ও আহকাম উল্লাহ।
গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নৃত্যকলা ও সঙ্গীত মিলনায়তনে তিন আবৃত্তি শিল্পীর মেলবন্ধন ঘটল ‘জয় জয়ন্তী’ শিরোনামে আবৃত্তি পরিবেশনার মধ্য দিয়ে। এ অনুষ্ঠানটি আয়োজন করেছে বাংলাদেশের স্বনামধন্য আবৃত্তি সংগঠন ‘হরবোলা’। প্রতিষ্ঠার ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সংগঠনটি এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
হরবোলার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে প্রতিষ্ঠার ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বছরব্যাপী নানা আয়োজন সাজিয়েছে হরবোলা। এক কুড়ির আয়োজনে বছরব্যাপী আবৃত্তি অনুষ্ঠানমালার অংশ হিসেবে এটি বিশেষ অনুষ্ঠান।
শিল্পকলায় ‘টুয়েলভ অ্যাংরি ম্যান’ মঞ্চস্থ : ‘টুয়েলভ অ্যাংরি ম্যান’ রেজিনাল্ড রোজ রচিত ১৯৫৭ সালে নির্মিত বিশ্বব্যাপী সমাদৃত মার্কিন চলচ্চিত্রের ছায়া অবলম্বনেই বিন্যস্ত হয়েছে নাটকের কাহিনী।
সত্যের পথে অবিচল থাকার অনন্য শিক্ষাকে কেন্দ্র করে নাটকের দল ওপেন স্পেস থিয়েটার মঞ্চায়ন করে নাটকটি। গতকাল সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে নাটকটি মঞ্চায়ন হয়।
একটি খুনের বিচারের চ‚ড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তার জন্য এক টেবিলে বসেছেন ১২ জন জুরি।
একজন অপরাধী সত্যিই নিজ বাবার খুনের অপরাধ করেছে কিনা তা যুক্তিসঙ্গত সন্দেহের মাধ্যমে ১২ জন জুরির বিশ্লেষণ চলে নাটকজুড়ে। কারো পকেটে সন্ধ্যার সার্কাস শোর টিকেট, কারো অন্য কাজের তাড়া, কারো বা আজন্ম ঘৃণা বস্তির মানুষের প্রতি। নানা পেশার, নানা বয়সের এমন বিচিত্র চরিত্রের ১২ জন মানুষ বিচার করতে বসেছেন বস্তিতে বেড়ে ওঠা এক উনিশ বছরের যুবকের। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, সে তার বাবাকে ছুরিকাঘাতে খুন করেছে। প্রাথমিকভাবে সবাই একবাক্যে ছেলেটিকে দোষী সাব্যস্ত করে চ‚ড়ান্ত রায় দিতে প্রস্তুত। কিন্তু এতে বাদ সাধলেন একজন জুরি। ওই জুরি জানান যুক্তিসঙ্গত সন্দেহের অবকাশ হয়তো আছে, তাই তিনি আলোচনার আহ্বান জানান। আলোচনা চলতে থাকে যুক্তির নিরিখে। যুক্তির খেলায় টলে যান কেউ কেউ। মতানৈক্য বাড়ে, বিভেদ তীব্রতর হয়, বাকবিতণ্ডা চরম রূপ লাভ করে। একে একে প্রত্যেক জুরি অবস্থান বদলান, বাদ থাকেন একজন বয়োবৃদ্ধ জুরি। এক সময় তিনিও হার মানেন। মতৈক্য আসে ছেলেটিকে নির্দোষ ঘোষণার। যুক্তিতর্কের মাধ্যমে সমাজের অনেক চিত্রকে নাটকে তুলে ধরা হয়। এভাবেই এগিয়ে যায় নাটকটির কাহিনী।
এম আরিফুর রহমানের নির্দেশনায় নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন কাজী আরিফুর রহমান, মেহেদী হাসান, এস এম মুসাব্বীর তানিম, সৈয়দ এজাজ আহমেদ, রায়হান, আহমেদ দীপ, আবু হাসান মাহি, ওয়ালিদ আদনান, এম আরিফুর রহমান, সীমান্ত হক, শরিফ এম তারিক, মো. নাজমুল হোসেন, ফাইরুজ আলম, আনিসুর রহমান রাব্বী প্রমুখ।
অন্যদিকে একই সময়ে জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে মঞ্চায়ন হয় গণনাট্য কেন্দ্রের নাটক ‘হালখাতা’ ও স্টুডিও থিয়েটার হলে মঞ্চায়ন হয় স্টেজ ওয়ান ঢাকা প্রযোজিত নাটক ‘দ্য জু স্টোরি’।