মোহাম্মদপুরের বিহারীদের ৬ হাজার ফ্লাট দেওয়া হবে

আগের সংবাদ

তামিমকে সবার মনে রাখা উচিত: মাশরাফি

পরের সংবাদ

রংপুর মেট্রোপলিটন থানায় প্রথম মামলা করল র‌্যাব

প্রকাশিত হয়েছে: September 16, 2018 , 10:01 pm | আপডেট: September 16, 2018, 10:01 pm

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ইউনিটের যাত্রা শুরুর প্রথম দিনে প্রথম মামলা করেছে র‌্যাব। শনিবার রাতে নগরী থেকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করা হয় জেএমবির সক্রিয় এক সদস্যকে। তাকেই মেট্রোপলিটন থানায় প্রথম মামলার আসামি করা হয়েছে।

রোববার বিকেলে র‌্যাব অফিসে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এটি যে প্রথম মামলা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নবগঠিত তাজহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

র‌্যাব-১৩ এর অধিনায়কের পক্ষে সহকারী পরিচালক এএসপি গোলাম মুর্ত্তুজা জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে নগরীর মর্ডন মোড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বানিয়াপাড়া রসুলগঞ্জ এলাকার মৃত ওসমান গণির ছেলে জঙ্গি সংগঠন জেএমবি’র সক্রিয় সদস্য আবু সাদেক সাইদুজ্জামান বাবু ওরফে আমির হামজাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, দুই রাউন্ড তাজা গুলি, ৩২টি জেহাদি বই, ১২০টি জঙ্গিবাদী লিফলেট উদ্ধার করা হয়।

তিনি জানান, র‌্যাব সদস্যরা একই সময়ে পাটগ্রাম উপজেলার রসুলগঞ্জ সাহেবডাঙ্গা এলাকা থেকে মৃত মোবারক প্রধানের ছেলে জেএমবির সক্রিয় সদস্য তালিম প্রধানকে গ্রেপ্তার করে। তার কাছ থেকে ১৮টি জঙ্গীবাদী বই, ১০০টি জঙ্গীবাদী লিফলেট, একটি পুরাতন ব্যবহৃত সিপিইউ, দুটি মোবাইল ফোন এবং চারটি সিমকার্ড উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃত আবু সাদেক সাইদুজ্জামান বাবু লালমনিরহাট জেলা জেএমবির দাওয়াতে আমির হিসেবে কার্যক্রম চালাচ্ছিলেন। তিনি জঙ্গিবাদের আড়ালে ‘ওহির আলো’ নামে একটি কিন্ডার গার্ডেন স্কুল পরিচালনা করে আসছিলেন। তিনি পাটগ্রাম পৌরসভায় ইন্সপেক্টর হিসেবে কর্মরত। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের গ্রেপ্তারকৃতরা র‌্যাবকে জানিয়েছেন, তারা প্রায় দুই বছর গোপনে জেএমবি’র সাংগঠনিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন এবং বিভিন্ন নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডের পরিকল্পনা করছিলেন।

তাজহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ রোকনুজ্জামান জানান, রংপুর মেট্রোপলিটন এলাকার ছয়টি থানার মধ্যে এটাই প্রথম মামলা। জেএমবি সদস্য গ্রেপ্তারকৃত আবু সাদেক সাইদুজ্জামান বাবুর বিরুদ্ধে সন্ত্রাস আইনসহ বিভিন্ন আইনে মামলা করা হয়েছে।