এপ্রিলেই উৎক্ষেপণ করা হচ্ছে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট 'বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১'

আগের সংবাদ

ঢাকা ভিয়েতনামের প্রেসিডেন্ট আসছেন বিকেলে

পরের সংবাদ

সিএমএইচে চিকিৎসাধীন জাফর ইকবাল

প্রকাশিত: মার্চ ৪, ২০১৮ , ১০:৪৩ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মার্চ ৪, ২০১৮ , ১০:৫০ পূর্বাহ্ণ

ছুরিকাঘাতে আহত শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি শঙ্কামুক্ত আছেন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

শনিবার দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে জাফর ইকবালকে সিএমএইচে ভর্তি করা হয়। সাংবাদিকদের বিষয়টি জানিয়েছেন আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ রাশিদুল হাসান। এছাড়া সিএমএইচ এক চিকিৎসক জানিয়েছেন, জাফর ইকবাল শঙ্কামুক্ত। তারপরও অধিকতর নিশ্চিতে সিটিস্ক্যানসহ প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হচ্ছে।

এর আগে রাতে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. মুরশেদ আহমেদ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, অধ্যাপক জাফর ইকবাল শঙ্কামুক্ত। এছাড়া ওই হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এ কে মাহবুবুল হক জানিয়েছিলেন, অধ্যাপক জাফর ইকবালের মাথার উপরিভাগের বাম দিকে, বাম হাত ও পিঠে আঘাত করা হয়েছে। মাথার আঘাত গুরুতর। তবে আশঙ্কার কিছু নেই।

শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রিপল-ই বিভাগের একটি অনুষ্ঠানে জাফর ইকবালকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি ছুরিকাঘাত করে।

উপস্থিত শিক্ষার্থীরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে ট্রিপল-ই বিভাগের একটি অনুষ্ঠান চলছিল। অধ্যাপক ড. জাফর ইকবাল ওই অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে এসেছিলেন। মঞ্চে বসা অবস্থায় ভিড়ের মধ্যে একজন তাকে ছুরিকাঘাত করে।

ঘটনার পর আহত অবস্থায় জাফর ইকবালকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে অস্ত্রোপচার করা হয় তার। এরপর সেখানে দেখতে যান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে জাফর ইকবালের অস্ত্রোপচার শেষ করা হলে তাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সযোগে ঢাকায় পাঠানো হয়।

প্রাথমিকভাবে জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারীর পরিচয় পাওয়া না গেলেও রাতে পুলিশ জানিয়েছে, দুর্বৃত্ত ওই তরুণের নাম ফয়জুর রহমান ফজলু। তার বাড়ি সুনামগঞ্জ জেলায়। তার বাবা হাফিজ আতিকুর রহমান সিলেটের টুকেরবাজার একটি মাদ্রাসার শিক্ষক।

ফয়জুর রহমান বর্তমানে র‌্যাব-৯ এর হেফাজতে আছে। রোববার ঢাকা থেকে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের একটি দল সিলেটে গিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের কথা রয়েছে।

দেশব্যাপী নিন্দা
এদিকে জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনায় দেশব্যাপী নিন্দার ঝড় বইছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। প্রতিনিয়ত তিনি তার চিকিৎসার খোঁজ নিচ্ছেন।

দেশের বড় দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। আওয়ামী লীগ এ ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তির শাস্তি দাবি করেছে। অপরদিকে বিএনপি এ হামলাকে সরকারের সূক্ষ্ম ষড়যন্ত্র বলে মনে করছে।

বিক্ষোভ
এছাড়া শনিবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বিক্ষোভ করেছে ছাত্রলীগসহ বাম রাজনৈতিক দলগুলো। রোববার বিকেলে শাহবাগে হামলার প্রতিবাদে সমাবেশ ডেকেছে গণজাগরণ মঞ্চ।

সংবাদ সম্মেলন
জাফর ইকবালের শারীরিক অবস্থা ও চিকিৎসার বিষয়ে অবহিত করতে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে আইএসপিআর। শনিবার রাতে এক ক্ষুদে বার্তায় জানানো হয়েছে, এ বিষয়ে রোববার সকাল ১১টায় আইএসপিআর-এ সংবাদ সম্মেলন বিস্তারিত জানানো হবে।

মানবাধিকার কমিশনের উদ্বেগ
ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র নিন্দা জানিয়েছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। শনিবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনা কোনোভাবেই কাম্য নয়। উগ্র ও প্রতিক্রিয়াশীলদের বিরুদ্ধে সোচ্চার ও প্রতিবাদী একজন প্রখ্যাত বুদ্ধিজীবী শিক্ষকের ওপর হামলাকারীদের শাস্তি নিশ্চিত করার জন্য এবং তার যথাযথ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।’

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়