‘দলছুট’ এক গায়ক সঞ্জীব চৌধুরী

আগের সংবাদ

পল্টনে আজাদ প্রোডাক্টসের শোরুমে অগ্নিকাণ্ড

পরের সংবাদ

কেমন হওয়া উচিত সহকর্মীর সঙ্গে আচরণবিধি

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৫, ২০১৭ , ২:৩০ অপরাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ২৫, ২০১৭ , ২:৩০ অপরাহ্ণ

আমাদের প্রতিটি দিনের একটি বড় সময় অফিসে কাটে। ধীরে ধীরে আমাদের সহকর্মীরা পরিবারের সদস্যদের মতোই হয়ে যান। কিন্তু চাইলেই কি তাদের সঙ্গে খুব আপন ও সাধারণ ব্যবহার করা যায়? অবশ্যই নয়। তাদের সঙ্গে ব্যবহারেও মেনে চলতে হয় কিছু আদবকেতা। আসুন এ ব্যাপারে জেনে নেই।

পেশাদারী ব্যবহার
সহকর্মীদের সঙ্গে সবসময় প্রফেশনাল ব্যবহার করার চেষ্টা করুন। তারা যতই আপনার আপন হোন না কেন, মন খুলে সবকিছু তাদের সঙ্গে ভাগাভাগি করার প্রয়োজন নেই। পারিবারিক, রাজনৈতিক, সামাজিক যেকোন নিগূঢ় আলোচনা করা থেকে বিরত থাকুন।

অন্যের কথা শুনুন
মুখ বন্ধ রাখুন এবং শুনুন অন্য সহকর্মী কি বলতে চান। তার মতভেদ যদি আপনার থেকে একেবারে ভিন্ন হয় তবুও শুনুন। সহকর্মীর কথা শুনলে আপনি তার ব্যাপারে এবং কোনো বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা পাবেন। এতে আপনার অভিজ্ঞতা বাড়বে।

তথ্য জমা করুন
আপনি যে সংস্কৃতিরই হোন না কেন, অন্য দেশের সমাজ ও সংস্কৃতি সম্পর্কে ধারণা রাখতে হবে। আশেপাশে যে দেশগুলো আছে, সেখানকার নিয়ম-কানুন, রীতিনীতি জেনে নিজেকে পরিপূর্ণ করুন। আপনার সহকর্মীরা তাহলে আপনাকে অন্য নজরে দেখবেন।

খামোখা আড্ডাবাজি করবেন না
কোনো কারণ ছাড়া কর্মক্ষেত্রে আড্ডা দেবেন না কিংবা কারও অনুপস্থিতিতে তার ব্যাপারে বদনাম করবেন না। এতে আপনি নিজেই কিন্তু অন্যের কাছে ছোট হচ্ছেন। এমন ব্যবহার করুন, যেমন ব্যবহার আপনি পেতে চান। তবেই আপনি নিজের মূল্য বুঝতে পারবেন।

উচ্চস্বরে কথা বলবেন না
কর্মক্ষেত্রে চিৎকার করা কিংবা খুব উচ্চস্বরে কথা বলার প্রয়োজন নেই। সেখানে ধীরে এবং স্পষ্টভাবে কথা বলুন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়