সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনে ব্যাপক রদবদল

আগের সংবাদ

মিতালি রাজকে চিনেন না আমীর খান

পরের সংবাদ

হাজীগঞ্জে ‘ভুয়া’ নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞ আটক

প্রকাশিত: অক্টোবর ১৫, ২০১৭ , ৬:২৫ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১৫, ২০১৭ , ৬:২৫ অপরাহ্ণ

হাজীগঞ্জে নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞ পরিচয়দানকারী এক ভুয়া চিকিৎসককে আটক করেছে পুলিশ। তার নাম আক্তারুজ্জামান (৩৪)।

রবিবার হাজীগঞ্জ পূর্ব বাজার সেন্ট্রাল হসপিটাল অ্যান্ড ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে তাকে আটক করা হয়।

এ বিষয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাবেদুল ইসলাম।

আকতরুজ্জামানের সাথে থাকা দুটি জাতীয় পরিচয়পত্রের সূত্রে জানা যায়, তিনি রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার ব্রাহ্মণভাঙ্গা গ্রামের মো. আমিনুল ইসলামের ছেলে। আরেকটি পরিচয়পত্রে তার নাম মো. আখতার হোসেন সরকার, পিতা, মো. চাঁদ আলী সরকার, গ্রাম রহিমাবাদ, সিরাজগঞ্জ সদর, রাজশাহী উল্লেখ রয়েছে।

সেন্ট্রাল হসপিটাল এন্ড ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি আক্তারুজ্জামান নিজেকে নাক-কান-গলা বিশেষঞ্জ পরিচয় দিয়ে এই হাসপাতালে চেম্বার করার জন্য কর্তৃপক্ষের সাথে চুক্তিতে আবদ্ধ হন। প্রথম দিন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার চিকিৎসা সনদসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র হাসপাতালে জমা দেওয়ার জন্য বলেন। তখন এই চিকিৎসক কাগজপত্র জমা দেওয়ার জন্য সময় নেন। সেই সময় শেষ হবার পর ফের আক্তারুজ্জামান কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ হয়। আবার আক্তারুজ্জামানের ব্যাগে থাকা কিছু ভিজিটিং কার্ড পাওয়া যায় যাতে তিনি চিকিৎসক পরিচয়ে কার্ডে পদবী ব্যবহার করেছে। এরপরেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে পুলিশে সোপর্দ করে।

থানার উপ-পরিদর্শক সামছুজ্জামান বলেন, সংবাদ পেয়ে আকতারুজ্জামানকে আটক করেছি। এ সময় তার কাছে দুটি জাতীয় পরিচয়পত্র উদ্ধার করা হয়েছে। চিকিৎসা সেবায় সঠিক কোন সনদপত্র পাওয়া যায়নি।

অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ জাবেদুল ইসলাম বলেন, আটককৃত আকতারুজ্জামান চিকিৎসা সংক্রাক্ত কোনো বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। এ বিষয়ে আরো খোঁজ-খবর নেয়া হচ্ছে। আটককৃত ব্যক্তির নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়