সৌদির রাজপ্রাসাদে হামলা, কয়েকজন নিহত

আগের সংবাদ

নিবন্ধন সফল হওয়া জরুরি

পরের সংবাদ

পিকে-শাকিরা বিচ্ছেদ !

প্রকাশিত: অক্টোবর ৭, ২০১৭ , ৭:৫৪ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ৭, ২০১৭ , ৭:৫৪ অপরাহ্ণ

সম্পর্কটা আর টিয়ে রাখা গেল না। পিকে-শাকিরা দুই ভুবনের দুই বাসিন্দার সংসারটা কী কারণে ভেঙে গেল, তা কেউ পরিষ্কার করে বলেননি। ফুটবলার জিরার্ড পিকে এবং কলোম্বিয়ার বিখ্যাত পপ গায়িকা শাকিরার মধ্যে বিচ্ছেদের ঘটনার গুঞ্জন কয়েক মাস ধরেই শোনা যাচ্ছিল। শাকিরা তার দীর্ঘদিনের সঙ্গী বার্সেলোনার ফুটবলার জিরার্ড পিকের সঙ্গে বিচ্ছেদ করেছেন বলে জানা গেছে। আর এদিকে বার্সেলোনার দুর্দান্ত ডিফেন্ডার জিরার্ড পিকে স্পেন থেকে কাতালুনিয়ার স্বাধীনতার প্রশ্নে বেশ দুর্যোগপূর্ণ সময় কাটাচ্ছেন। ফলে শাকিরার সঙ্গে বিচ্ছেদের এই ঘটনা বার্সেলোনার ডিফেন্ডার পিকের জন্য চলমান সমস্যাকে আরো দুঃসহ করে তুলেছে।

২০১০ সালে পিকে-শাকিরার রোমান্স শুরু হয়েছিল

পিকের চেয়ে ১০ বছরের বড় শাকিরা। ২০১০ সালে পিকে শাকিরার রোমান্স শুরু। ৩০ বছর বয়সী পিকের সঙ্গে ৪০ বছর বয়সী শাকিরার দীর্ঘ ৬ বছরের বেশি একসঙ্গে কাটিয়েছেন। তারা বিয়ে না করেই একই ছাদের নিচে কাটিয়ে দুই সন্তানের বাবা-মা হয়েছেন। তাদের দুটি ছেলেও আছে। বড় ছেলে মিলানের বয়স ৪, ছোট ছেলে শাশার বয়স ২।
ঠিক কী কারণে সম্পর্কটা চুকিয়ে ফেললেন, তাদের ঘর আলো করে আসা ছেলে দুটির ভবিষ্যৎই বা কী হবে, মিলান-শাশা কার কাছে থাকবেন, এ সম্পর্কে কোনো কিছুই জানানো হয়নি।

পিকের কোলে দুই ছেলে মিলান-শাশা

পপ তারকা শাকিরা স্প্যানিশ এক ওয়েবসাইটে তাদের মধ্যে বিচ্ছেদের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন। এ ছাড়া শাকিরা বার্সেলোনা থেকে নিজের বাড়িতে চলে আসবেন বলেও জানিয়েছেন। স্প্যানিশ এই ওয়েবসাইটের ভাষ্য অনুযায়ী, অবশেষে শাকিরা খুব চিন্তাভাবনা করেই বার্সেলোনার ফুটবলার পিকের সঙ্গে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তটি নিয়েছেন।

পিকে-শাকিরার এ রোমান্স আর চোখে পড়বে না

তবে ওয়েবসাইটের এই ভাষ্য যদি সত্য হয় তাহলে খুব শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে দুজনের মধ্যে বিচ্ছেদের ঘোষণা আসতে পারে বলেও জানা যায়। জিরার্ড পিকে এবং শাকিরাকে গত জুনে রোকুজ্জো এবং লিওনেল মেসির বিয়েতে একত্রে দেখা যায়। এই বিয়ে অনুষ্ঠানের পর এই দম্পতিকে আর কখনো একত্রে দেখা যায়নি। আর এমন সময়ই পপ জগতের তারকা শাকিরা তাদের বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তটি জানিয়েছেন। সম্প্রতি স্প্যানিশ জাতীয় দলে পিকে অপমানিত হওয়ার পর তিনি বলেছেন, আমি মনে করি এটি একটি পরিবার আর আমি স্প্যানিশ জাতীয় দলের সদস্য হতে পেরে গর্ববোধ করি।

 

 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়