প্রার্থনার ঘরগুলো, গ্রন্থগুলো : সাইফুল্লাহ মাহমুদ দুলাল

একটি স্নিগ্ধ ভোর কাঁদছে- কাঁপছে মসজিদ! তপ্ত দুপুর পুড়ছে- জ্বলছে বিস্ফোরিত চার্চ! অপরাহ্ন তিরতির থরথর করছে- প্যাগোডা জ্বরাক্রান্ত! সুন্দর বিকেল ভেঙ্গে পড়ছে- ধসে যাচ্ছে গির্জার চূড়ো! এবং মায়াবী সন্ধ্যাও সন্ত্রস্ত- মরে যাচ্ছে... বিস্তারিত

কাল-কালান্তরের সমাজ-রাষ্ট্র : হরিপদ দত্ত

সাহিত্যের সবচেয়ে জটিলতম অধ্যায় হচ্ছে প্রবন্ধ। ওখানে আবেগের স্থান নেই। যুক্তি, বুদ্ধি, বিচারশক্তি অর্থাৎ মেধার ক্রিয়া চলে ওখানে। সেখানে লিখিয়েদের ভিড় খুব কম। দেখা গেছে জনবিরল ওই স্থানের দিকে বড় সাহসে কেউ... বিস্তারিত

বিকল্প সারগাম নেই : জোবায়ের মিলন

আমি একদিন বাঁধভাঙ্গা বৈশাখ হলে আপত্তি করবেন না জনাব স্কন্ধে জমছে প্রখর ময়লা, পাকস্থলী ভরে গেছে অখাদ্যে-কুখাদ্যে। আমি একদিন আচমকা হ্যাঁচকা টানের বাতাস হলে বিরুদ্ধবাদী বলে রটনা ছড়াবেন না আদালতে দাঁড়িয়ে বলবেন... বিস্তারিত

শূন্যতা : শাহীন রেজা রাসেল

সবাই যখন শূন্যতাকে পূরণ করায় ব্যস্ত, আমি তখন শূন্যতাতেই বেঁচে থাকায় ন্যস্ত। শূন্য হলে প্রকৃতি তা পূরণ করে দেয়, আমার কোন শূন্যতা যে পূরণ হবার নয়। তোমায় বিহীন যে শূন্যতা জমলো আমার... বিস্তারিত

হুমায়ুন আজাদ >> একটি নক্ষত্রের নাম : তানভীরা তালুকদার

আমি সম্ভবত খুব ছোট্ট কিছুর জন্যে মারা যাবো খুব ছোট একটি স্বপ্নের জন্যে খুব ছোট দুঃখের জন্যে আমি হয়তো মারা যাবো কারো ঘুমের ভেতরে একটি ছোট দীর্ঘশ্বাসের জন্যে একফোঁটা সৌন্দর্যের জন্যে। (আমি... বিস্তারিত

মধ্যাহ্নে গোধূলি আলো : দিলীপ কুমার বড়–য়া

মধ্যরাতে স্বপ্ন দেখে হঠাৎ অনিকেতের ঘুম ভেঙে যায়। বাইরে তখন গহন রাত্রি। আকাশে উজ্জ্বল চাঁদ, আর তাকে ঘিরে তারাদের রং ঝিলমিল। ঘুমুতে চেষ্টা করে অনিকেত। কিন্তু কিছুই তার ভালো লাগে না। ব্যালকনিতে... বিস্তারিত

আমাদের হুমায়ুন আজাদ : ফারুক মাহমুদ

হুমায়ুন আজাদ তখনো বিখ্যাত ‘হুমায়ুন আজাদ’ হয়ে উঠেননি। বাহাত্তর সালের দিকে, আমাদের প্রধান আড্ডাস্থান ছিল নিউমার্কেটের বইপাড়া। সুতোছেঁড়া ঘুড়ির মতো আকাশ শহরের সারাদিন যেখানে ঘুরি না কেন, সন্ধ্যায় জমে যাই সেই আড্ডায়।... বিস্তারিত

ভাষাবিজ্ঞানী হুমায়ুন আজাদ : ড. শ্যামল কান্তি দত্ত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক হুমায়ুন আজাদ (১৯৪৭-২০০৪) ছিলেন বাংলাদেশের প্রধান প্রথাবিরোধী ও বহুমাত্রিক লেখক। তাঁর অনেকগুলো সত্তা এবং প্রতিটি সত্তাই গুরুত্বপূর্ণ। তিনি একাধারে জ্যোতির্ময় কবি, ঔপন্যাসিক, সমালোচক, সম্পাদক, সংকলক, গবেষক, ভাষাবিজ্ঞানী,... বিস্তারিত

বাবা, ওপারে ভালো থেকো : মৌলি আজাদ

২৮ এপ্রিল। প্রতি বছরই ঘুরেফিরে এ দিনটি আসে। বাবা মারা গেলেন ১৫ বছর হয়ে গেল। তারপরও তাঁর লেখার যারা ভক্ত তাদের তাঁর সম্পর্কে জানার এখনো রয়েছে প্রবল আগ্রহ। আমার মনে হয় একজন... বিস্তারিত

অশনি সংকেত : আলী ইমাম

এবারের জগন্নাথ মহাবিদ্যালয়ের বৈশাখী উৎসবের প্রধান আয়োজন মঙ্গল শোভাযাত্রার মূল ভাবনা ছিল নদী বিষয়ক সচেতনতাকে বৃদ্ধি করা। দেশবাসীর কাছে এই বক্তব্যকে তুলে ধরা যে ‘বাঁচলে নদী, বাঁচবে দেশ।’ এ থেকেই প্রমাণিত হয়... বিস্তারিত

তিনি জেগে আছেন তাঁর কথায় ও কবিতায় : মারুফুল ইসলাম

হুমায়ুন আজাদ আমার শিক্ষক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে বিগত শতকের আশির দশকে আমি তাঁর কাছ থেকে শিক্ষাগ্রহণ করেছি ভাষা ও সাহিত্যের, বিভাব নিয়েছি জীবন ও জগতের, উদ্বোধিত হয়েছি জীবনবোধে। সে ছিল এমন... বিস্তারিত

হুমায়ুন আজাদের অগ্রন্থিত

কবিতা ও গদ্য : পিয়াস মজিদ হুমায়ুন আজাদ (১৯৪৭-২০০৪) বাংলা ভাষার অন্যতম বহুমাত্রিক কবি-লেখক। তাঁর কবিতা- কথাসাহিত্য- প্রবন্ধ নিবন্ধ- শিশুসাহিত্য ও ভাষাগবেষণা বাংলা সাহিত্যের পরিসরে যোগ করেছে নতুনতর মাত্রা তবে তাঁর অনেক... বিস্তারিত

জোড়া বক, খোলা শামুক : হাবীবুল্লাহ সিরাজী

মুখোশ পরা একটি দুপুর উত্তেজনায় লাল হয়েও পাশবালিশের মতো পড়ে আছে। যেন বাঁশঝাড়ের মাথা পর্যন্ত আকাশ এঁকে বৃষ্টি যেন হাশেম খানের জোড়া বক, খোলা শামুক মধুমালতির ঠোঁট এবং একটু জিরিয়ে নিই বুকের... বিস্তারিত

বহুমাত্রিক শিল্পী

হাশেম খান : নিসার হোসেন বাংলাদেশের সমকালীন শিল্পকলার ইতিহাসে যারা পথিকৃৎ শিল্পী হিসেবে স্বীকৃত, তাঁদের শৈল্পিক অভিযাত্রার সূচনা ঘটেছিল অবিভক্ত বাংলার রাজধানী কলকাতার সরকারি আর্ট স্কুলে। যদিও উনিশ শতকের মাঝামাঝি প্রতিষ্ঠিত ওই... বিস্তারিত

হাশেম খানের জন্য : রহীম শাহ

হঠাৎ আকাশে সূর্য উঠেছে খেপে পৃথিবীটা পুড়ে করবে সে ছারখার আসবে না আর বৃষ্টিরা ঝেঁপে ঝেঁপে করতে থাকুক মানুষেরা হাহাকার- তোমরা মানো না-মানো কারণও তোমরা জানো; পৃথিবীর যত গাছপালা ছিল মানুষ নিয়েছে... বিস্তারিত

চারুশিল্পের জগতে ষাট বছর ধরে আমার বিচরণ : হাশেম খান

‘জোড়াতালির কাঠচিত্র’ বা ‘জোড়াতালির কাঠশিল্প’ বিষয়টি বোধগম্য হওয়ার প্রয়োজনে এবং সহজ করে বুঝে নেয়া খানিকটা ব্যাখ্যা সাপেক্ষ। চিত্রকলা, ভাস্কর্য মুরাল, স্থাপনা ইত্যাকার শিল্প সৃষ্টিতে জোড়াতালির ব্যাপারটা কম-বেশি সব সময়ই ছিল। বর্তমানেও বিশ্বজুড়ে... বিস্তারিত

নৈঃশব্দে : মাহবুব পলাশ

আমার ভেতর তুমি ছিলে হাড্ডিমজ্জায় বহমান নদী ছিল রেটিনার ভিতর ছিলে শুধু তুমি। পাঁজরের ভেতর প্রকৃষ্ট দাহ ছিল মস্তিষ্কে আকণ্ঠ শুধু তুমি ঠোঁট যুগল আর ভুরুর কাঁপনে ও নিতান্তই শুধু তুমি ছিলে।... বিস্তারিত

শুভ জন্মদিন স্যার : ধ্রæব এষ

স্কুল পাঠ্য বই দেখি না বহুদিন। ক্লাস ওয়ান, টু, থ্রি’র বাংলা বইতে কি হাশেম স্যারের আঁকা ছবি আছে এখনো? আমাদের সময়ে ছিল। ‘সবুজ সাথী’ প্রথম ভাগ এবং ‘সবুজ সাথী’ দ্বিতীয় ভাগ বইতে।... বিস্তারিত

জাতিসত্তার শিল্পী হাশেম খানের চিত্রসম্ভার : রবিউল হুসাইন

বাংলাদেশের চিত্রশিল্পে হাশেম খানকে এক পথিকৃতের ভূমিকায় বিচরণ করতে সব সময় দেখা যায়। তিনি একাধারে চিত্রবিদ্যার শিক্ষক, ¯্রষ্টা ও দ্রষ্টা, তেমনি লিপিকার, প্রচ্ছদশিল্পী, অঙ্গ-সজ্জাকর, শিশুতোষ গ্রন্থের চিত্রকর, অঙ্কনশিল্পী, শিল্পবিষয়ক গ্রন্থকার, ছোট গল্পকার... বিস্তারিত

আমাদের হাশেম খান : মুনতাসীর মামুন

সময়টা ১৯৬৯-এর শেষ বা ১৯৭০-এর শুরু। ঠিক মনে পড়ছে না। আমার কিছু গল্প নিয়ে আমার বাবা একটি বই বের করতে চেয়েছিলেন। চাটগাঁয় তখন তো আর মুদ্রণ ও প্রকাশনার এত রবরবা ছিল না।... বিস্তারিত

Bhorerkagoj