অমোঘ নিয়ম

দেহ ধমনীতে যে রক্ত বহমান তারও একটা শব্দ আছে। ইচ্ছে করলেই তুমি শুনতে পাবে প্রিয় কিংবা প্রিয়ার বক্ষে প্রতিনিয়তই বেজে চলছে- হার্টবিট, এর মানে তুমি আছো তাই আমি আছি। শুনতে কি পাও?... বিস্তারিত

প্রতীকী

রহস্যময় পৃথিবীর প্রেম সু-বিশাল ঐশ্বর্যে টলমল, তোমার ভালোবাসার রূপ সীমাহীন রং মাখা পাগল বসন্তের ছোঁয়ায় রাঙা হলো ধূসর প্রেমের দিগন্ত আমার তোমার সু-বিশাল প্রেমের সহস্র শিখর মনশ্চক্ষুরও অদূরে। তোমার প্রেমের বনভূমিতে সুন্দর... বিস্তারিত

লুকোচুরি

শৈশবের সেই লুকোচুরি খেলা আর হয়ে উঠে না সকলের সঙ্গে তবে যা হয় তা তোমাতে আমাতে। জীবন সুখ নামের যে শব্দটা শৈশবে যেটা পেয়েছিলাম অঢেল তা আর পাই না তোমাতে তুমি বিষণœ... বিস্তারিত

ধূসর স্মৃতি

যে প্রেম পদ্ম পত্রে জলসম ভাসে যে স্মৃতি ধূসর হয়ে আসে তাকে আমি প্রেম বলি না তাকে বলি ছলনা। যে পরিচয় মন ভুলে যায় যে কথা শুধুই হারায় তাকে আমি বলি ঝরা... বিস্তারিত

ফিরে পেতে চাই

মাঝে মাঝে কেন জানি শৈশব ও কৈশোরকে ফিরে পেতে খুব ইচ্ছে করে। ইচ্ছে করে সব বন্ধুদের নিয়ে আবারো অজানা আনন্দে হারিয়ে যেতে। আমরা সকলে মনের কোথাও না কোথাও হারিয়ে যাওয়া সময়গুলো ফিরে... বিস্তারিত

ফিরে এসো

নীল দিগন্তে চোখ মেলে অশান্ত স্রোতের ধারায় ফিরে এসো তটে, অপেক্ষমান এই আমি তোমার তরে। বেহায়া বাতাস উড়িয়েছে ওড়নার পাল, ফিরে এসো জড়াবো তোমায় বুক মাজারে। গোধূলি পেরিয়ে সন্ধ্যা তারা হয়ে ফিরে... বিস্তারিত

একটি কৃষ্ণচূড়ার মৃত্যু সংবাদ

এদিকে অনেকটা পথ ভাঙাচোরা। মেইন রোড থেকে বাম দিকের গলিতে রিকশা কিছুটা এগোলেও বাকিটা হাঁটতে হয়। ৫/৬ মিনিটের মতো। এখানে এলেই অন্যরকম মনে হয় পৃথিবীটাকে। শহরের ভেতরেই যেন এক টুকরো গ্রাম। একদম... বিস্তারিত

নিয়তি তোমার

ষোড়শীর চোখে ছিল প্রজাপতি ভোর, মেঠোপথ, ঘাসফুল, শঙ্গা নদীর জল ষোড়শীর মনে ছিল অজানা আঁচড়, বেজেছিল পায়ে তার বেদনার মল। ‘ও মেয়ে তুই ডুবিস না ঐ জলে নিজেই শুধু মরবি কেন হায়’,... বিস্তারিত

কবিতা

তেঁতুল সমীরণে প্রণয়ের আয়োজন জাহিদ হোসেন ফাগুনের বুক থেকে তুলে আনা জ্যোৎস্নার সুখ ছায়াসুন্দরী ভেবে প্রবল ব্যাকুলতায় তেঁতুল সমীরণে ফুলকুমারী রচনা করে শীতপদ্য বসন্ত বিলাসে। তেঁতুলতলার ভূত আজ সভ্যতার অশ্লীল স্লোগান তেঁতুল... বিস্তারিত

অভিমান পর্ব…

সোনালি রঙ ছড়িয়ে সূর্য অস্ত যায় পশ্চিমের আকাশে, সে রঙে অপরূপ সাজে সাদাকালো মেঘ। দিন ও রাতের এ সন্ধিক্ষণে প্রকৃতিতে ভর করে ভালো লাগার অদৃশ্য মায়াবী আবেশ। কে যেন নীড়ে ফেরা পাখির... বিস্তারিত

রূপা, আমি এবং ইছামতি

রূপার সঙ্গে সর্বশেষ কবে দেখা হয়েছে তা এ মুহূর্তে মনে করতে পারছি না। হয়তো অনেকদিন আগেই হবে; তা না হলে মনে থাকার কথা। ইদানীং কেন জানি সবকিছু ভুলে যাই, ইচ্ছে করে পুরনো... বিস্তারিত

খোকার জন্মদিন

টুঙ্গিপাড়া আলো করে জন্ম নিল খোকা সীমা ডাঙার পাঠশালাতে পড়ালেখায় ঢোকা। শিশুকালে সবার প্রিয় যুবককালেও সেরা খোকার মাথায় দেশের মানুষ আপন আলোয় ঘেরা। খোকার ডাকে দেশ জনতা জীবন করে দান রক্ত দিয়ে... বিস্তারিত

লজ্জা

‘কী ব্যাপার এই ক’দিন তোমার দেখা নেই কেন?’ রূপকথার দিকে তাকিয়ে প্রশ্ন করে রাতুল। রূপকথার চুল হাওয়ায় উড়ছিল। ওরা ছোট্ট নদীর ওপরের সেতুটার রেলিং ঘেঁষে দাঁড়িয়ে আছে। জায়গাটা নিরিবিলি। একটা দুটো অটোরিকশা... বিস্তারিত

স্বপ্নের সোনালি সূর্য

আমাদের স্বকীয়তা, স্বাধীনতা লাল পলাশের অবিনাশী গান রক্তে ভেজা এক সিন্ধু সমুদ্র স্মৃতিতে দিয়েছে যাঁরা প্রাণ কৃষ্ণচূড়ার রঙ ছড়িয়ে এ গানে রক্তের নদী চির বহমান জীবনের বিনিময়ে এনেছে মুক্ত দেশ সোনালি সূর্য... বিস্তারিত

পথের দেখা

প্রতিদিন দেখা হয় পিচঢালা রাস্তায় চোখাচোখি হতে একটু হাসি… হয়নি কোনদিনও বাক্য ব্যয়! জানা নেই কারো গন্তব্য কোথায়? এভাবেই পার হয় বছর কয়েক… পথ থেকে ফিরে- অজানা, অচেনা শহর, বিরান রাস্তা এমনি... বিস্তারিত

শেষ প্রার্থনা

কদিন আগেও তুমি এমন ছিলে না তোমার সোনালি ডানায় ছিল রংধনুর সাত রঙ ভ্রমর কৃষ্ণ আলপনা তব মাংসাশী ঘ্রাণে ছিল সম্মোহনী শক্তি যেখানে প্রতিনিয়ত ছুটতাম চুম্বকের টানে। দিন চলে যায়- অচল পয়সার... বিস্তারিত

বকুল ফুলের মালা

লক্ষী কখনো একরঙা শাড়ি পরত না রঙের প্রতি লক্ষীর ভালোবাসাটাই ছিল অন্যরকম। শেষ দিনটাতেও এই বকুলতলাতেই বসেছিল ওরা। তবে মুখোমুখি। একে অন্যকে ভালোবেসেছিল অনেকটা। লক্ষীর হাত দুটো অর্ক টেনে নিয়েছিল নিজের হাতের... বিস্তারিত

ইলিশে গুঁড়ির বিকেলে

গনগনে রোদে ঘামে ভেজা শরীর নিয়ে বাসে উঠলাম। বাসটা প্রায় ফাঁকা দেখে অনেকটা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললাম। দেখেশুনে জানালার পাশে একটা সিটে বসে খুব আগ্রহ নিয়ে রাস্তা দেখছি। হঠাৎ চিকন গলায় কেউ একজন... বিস্তারিত

ধন্য মুজিব ধন্য

ধন্য মুজিব ধন্য স্বাধীনতার জন্য অনাহারীর মলিন মুখে দিয়েছিলে অন্ন। ধন্য মুজিব ধন্য নেই তুলনা অন্য ইতিহাসের সোনার পাতায় তুমিই আগে গণ্য। ধন্য মুজিব ধন্য তুমিই অগ্রগণ্য আগুন ঝরা কাব্য শুনে যায়... বিস্তারিত

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ

ঐতিহাসিক রেসকোর্সে ভাষণ ছিল অল্প, মূল ভাষণে আগুন ঝরে তাই নিয়ে গান-গল্প। সেই ভাষণের মধ্যমণি জাতির তিনি জনক, রাজনীতির কবি খ্যাত যিনি বাংলার রণক। ভাষণ ছিল প্রতিবাদের শোষণ থেকে মুক্তির, সেই চেতনায়... বিস্তারিত

Bhorerkagoj